আজও বেঁচে আছে ভাইকিং সংস্কার | অন্বেষণ | DW | 03.04.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

অন্বেষণ

আজও বেঁচে আছে ভাইকিং সংস্কার

স্কটল্যান্ডের উত্তরে এক দ্বীপপুঞ্জে বছরে একবার ভাইকিং সংস্কৃতি জীবন্ত হয়ে ওঠে৷ মানানসই পোশাক ও সাজসরঞ্জাম নিয়ে সর্দার সদলবলে মিছিল করেন৷ অভিনব এই উৎসবের প্রস্তুতির জন্য যথেষ্ট বেগ পেতে হয়৷

ভাইকিংরা আবার ফিরে এসেছে৷ বিজ্ঞানীদের নির্ঘাত ভুল হয়েছিল৷ ভাইকিংদের সংস্কৃতি মোটেই লোপ পায় নি, বরং বহাল তবিয়তে রয়েছে৷ অন্তত আপাতদৃষ্টিতে সেরকমই মনে হচ্ছে৷ তবে ভাইকিংরা স্কটল্যান্ডের শেটল্যান্ড দ্বীপপুঞ্জের উপর হামলা চালায় নি৷ সেখানে ‘আপ হেলি আ' নামের উৎসব পালিত হচ্ছে৷ অনেকটা ভাইকিং কার্নিভালের মতো৷

ব্রিটেনে সবচেয়ে উত্তরের এই দ্বীপপুঞ্জ শক্তিশালী শেটল্যান্ড পনি বা ছোট ঘোড়ার জন্য পরিচিত৷ কিন্তু সেখানকার জীবনযাত্রা মোটেই তেমন সহজ নয়৷ খাড়া উপকূল, রুক্ষ সমুদ্র ও অনুর্বর জমি সত্ত্বেও নবম শতাব্দীতে ভাইকিংরা সেই দ্বীপগুলি দখল করে৷ পঞ্চদশ শতাব্দী পর্যন্ত এই দ্বীপপুঞ্জ নরওয়ের অংশ ছিল৷

ভিডিও দেখুন 03:04

ভাইকিংদের ফিরে আসা

আজও সেখানে স্ক্যান্ডিনেভিয়ার সংস্কৃতির ছাপ সর্বত্র চোখে পড়ে৷ বিশেষ করে ভাইকিং উৎসবে তা জীবন্ত হয়ে ওঠে৷ বছরে একবার লারউইকের প্রায় এক হাজার পুরুষ ভাইকিংদের পোশাক গায়ে চাপিয়ে শহরের মধ্য দিয়ে শোভাযাত্রায় অংশ নেন৷ নারীরা সরাসরি অংশ নিতে না পারলেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন বৈকি৷ উৎসবের সহ আয়োজক জিন উইসেম্যান বিষয়টি ব্যাখ্যা করে বলেন, ‘‘অনেক কাজ করতে হয়৷ এটা গুরুত্বপূর্ণ এক দিন৷ আমরা সবাই অত্যন্ত গর্ব বোধ করি৷ নারীরাও এর অংশ বটে৷ তাদের ছাড়া কিছুই সম্ভব নয়৷ আমরা সবকিছু আয়োজন করি৷ নেপথ্যেও অনেক কিছু চলে, যা আমাদের ছাড়া পুরুষরা একা সামলাতে পারতো না৷ অতএব নারীদের অংশগ্রহণ নিয়ে দুশ্চিন্তার কারণ নেই৷''

ভাইকিংদের সর্দার বা ‘গাইসে ইয়ার্ল' গোটা আয়োজনের মধ্যমণি৷ এ বছর লিয়েম সামার্স সেই চরিত্রে অভিনয় করছেন৷ তিনি বলেন, ‘‘এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ, বছরের সেরা দিন৷ আমরা নিজেদের পরিচয়, নিজেদের বৈশিষ্ট্য উদযাপন করি৷ এমনটা করে আমাদের মনেও খুব আনন্দ হয়৷''

কে কে সর্দারের দল বা ‘ইয়ার্ল স্কোয়াড'-এর মিছিলে অংশ নিতে পারবে, এক কমিটি ১৪ বছর আগেই তা স্থির করে দেয়৷ ততদিন পর্যন্ত ৬০ জন পুরুষ প্রস্তুতি নিতে পারেন৷ হাতে তৈরি সাজসরঞ্জামের ব্যবস্থা করতে বেশ কয়েক হাজার ইউরো ব্যয় হয়৷

সারা রাত ধরে উৎসব চললেও অংশগ্রহণকারী পুরুষরা প্রতিটি মুহূর্ত উপভোগ করবেন৷ কারণ অনেক বছর ধরে তাঁরা এই মুহূর্তের জন্য অপেক্ষা করে রয়েছেন৷

মাইকে ক্র্যুগার/এসবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

বিজ্ঞাপন