আগামী সপ্তাহের মধ্যে ক্যাম্প প্রস্তুত হবে: মিয়ানমার | বিশ্ব | DW | 15.01.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

মিয়ানমার

আগামী সপ্তাহের মধ্যে ক্যাম্প প্রস্তুত হবে: মিয়ানমার

মিয়ানমার ও বাংলাদেশের মধ্যে স্বাক্ষরিত চুক্তি অনুযায়ী, আগামী সপ্তাহ থেকে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবর্তন শুরু হওয়ার কথা৷ সেই প্রক্রিয়া বাস্তবায়নের বিস্তারিত নিয়ে দুই দেশের কর্মকর্তাদের মধ্যে সোমবার আলোচনা হয়েছে৷

মিয়ানমারের রাজধানীতে অনুষ্ঠিত ঐ আলোচনায় বাংলাদেশের ১৪ সদস্যের এক প্রতিনিধি দল অংশ নিয়েছে৷ মিয়ানমারের সমাজকল্যাণ ও ত্রাণমন্ত্রী উইন মিয়াত আয়ে বলেন, কতজন রোহিঙ্গাকে ফিরতে দেয়া হবে এবং কীভাবে তাদের পরিচয় পরীক্ষা করা হবে, সেসব বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে৷

বাংলাদেশের দুই কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বার্তা সংস্থা এএফপিকে আলোচনার ব্যাপারটি নিশ্চিত করলেও বিষয়বস্তু সম্পর্কে বিস্তারিত জানাননি৷

এদিকে, মিয়ানমারের সরকারি গণমাধ্যম ‘গ্লোবাল নিউ লাইট অফ মিয়ানমার'-এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২৩ জানুয়ারি থেকে রোহিঙ্গাদের গ্রহণ করতে প্রস্তুত মিয়ানমার৷ এ লক্ষ্যে মংদুতে ১২৪ একর এলাকার উপর একটি ‘অস্থায়ী ক্যাম্প' নির্মাণের কাজ শেষের পথে রয়েছে৷

ভিডিও দেখুন 01:26
এখন লাইভ
01:26 মিনিট

৪০ হাজার রোহিঙ্গা শিশুর খোঁজ নিচ্ছে না কেউ

সেখানে ৬২৫টি ভবনে প্রায় ত্রিশ হাজার জনের বসবাসের ব্যবস্থা হবে বলেও ঐ প্রতিবেদনে জানানো হয়৷ স্থায়ীভাবে বসবাসের ব্যবস্থা হওয়ার আগ পর্যন্ত রোহিঙ্গারা ঐ ক্যাম্পে থাকবেন৷

উল্লেখ্য, রোহিঙ্গাদের ফেরত নেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করতে গত বছরের নভেম্বরে ঢাকায় দুই দেশের মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিল৷ এরপর ডিসেম্বরে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে এক লক্ষ রোহিঙ্গার নামের একটি তালিকা মিয়ানমারকে দেয়া হয়৷ তবে মিয়ানমার এখনও ঐ তালিকা পাবার বিষয়টি নিশ্চিত করেনি৷

চুক্তি অনুযায়ী, ২০১৬ সালের অক্টোবর থেকে যে রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে পালিয়ে গেছেন তাঁদের ফিরে যাওয়ার কথা৷ জাতিসংঘের হিসেবে সংখ্যাটি সাড়ে ছয় লক্ষের উপরে৷ তবে মিয়ানমার আসলেই কতজন রোহিঙ্গাকে ফেরতে নেবে, তা নিয়ে কূটনীতিকদের মধ্যে সংশয় রয়েছে৷

এদিকে, রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠানোর আগে তাঁরা আসলেই ফিরতে চান কিনা, তা জিজ্ঞাসা করার দাবি জানিয়েছে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা৷ কারণ, বাংলাদেশে পালিয়ে যাওয়া রোহিঙ্গাদের অনেকের মনে শঙ্কা যে, মিয়ানমারে ফিরে গেলে আবারও হয়ত নির্যাতনের শিকার হতে হবে৷ বার্তা সংস্থা এএফপি বলছে, বাংলাদেশের ক্যাম্পে আশ্রয় নেয়া অনেক রোহিঙ্গার সঙ্গে তাদের প্রতিবেদকরা কথা বলেছেন৷ এদের বেশিরভাগই মিয়ানমারে ফিরতে আগ্রহী নন৷

জেডএইচ/এসিবি (এএফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন