আগরতলায় মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে চলচ্চিত্র উৎসব শুরু | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 21.08.2013
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

আগরতলায় মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে চলচ্চিত্র উৎসব শুরু

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের চলচ্চিত্র উৎসব ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে৷ রোববার শুরু হওয়া এ উৎসবের আয়োজক ত্রিপুরা ও বাংলাদেশের তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়৷ ১৯ দিনের আয়োজনটি উৎসর্গ করা হয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে৷

চলচ্চিত্র উৎসবে দেখানো হচ্ছে পলাশী থেকে ধানমণ্ডি, কারিগর, জয়যাত্রা, প্রামাণ্যচিত্র-১৯৭১, আমার বন্ধু রাশেদ, গেরিলাসহ ১১টি ছবি৷ এর মধ্যে কিছু তথ্যচিত্রও রয়েছে৷

উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ত্রিপুরার তথ্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী ভানু লাল সাহা বলেন, বাংলাদেশ ও ত্রিপুরার মধ্যে সম্পর্ক ভীষণ গভীর৷ ১৯৭১ সালে বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ত্রিপুরায় শরণার্থীদের আশ্রয় দেয়া হয়েছিল৷ বাংলাদেশের ১৬ লাখ মানুষ আশ্রয় নিয়েছিল ত্রিপুরায়, যা তখনকার জনগোষ্ঠীর চেয়ে বেশি ছিল৷ সেসময় ত্রিপুরার জনসংখ্যা ছিল ১৫ লাখ৷

Sheik Mujibur Rahman

উৎসবটি উৎসর্গ করা হয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে

এ ধরনের উৎসবের মাধ্যমে জনগণ যেমন মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে জানতে পারবে, তেমনি প্রতিবেশী দেশের সাথে এটি সম্পর্ক উন্নয়নেও সহায়ক হবে জানান মন্ত্রী৷

বাংলাদেশের সঙ্গে ত্রিপুরার প্রায় ৮৫৬ কিলোমিটার সীমান্ত রয়েছে৷ রাজধানী আগরতলাসহ ত্রিপুরার চারটি শহরে দেখানো হচ্ছে ছবিগুলো৷ চলচ্চিত্রগুলোর সার্বিক দিক দর্শকদের সামনে উপস্থাপন করতে উৎসবে উপস্থিত থাকছেন প্রদর্শিত ছবিগুলোর পরিচালকরা৷

এপিবি/ডিজি (পিটিআই)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন