আইপ্যাডের জন্য ডিজিটাল পাঠ্যবই আনছে অ্যাপল | বিজ্ঞান পরিবেশ | DW | 20.01.2012
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞান পরিবেশ

আইপ্যাডের জন্য ডিজিটাল পাঠ্যবই আনছে অ্যাপল

পাঠ্যবই’এর বাজারের দিকে নজর পড়েছে এবার অ্যাপল’এর৷ বৃহস্পতিবার বিনা খরচার আই-বুকস টু অ্যাপ’টি দেখাল অ্যাপল৷ আইপ্যাডে ইন্টারএ্যাকটিভ পাঠ্যবই৷

ফ্রাঙ্কফুর্ট বই মেলায় ই-বই

ফ্রাঙ্কফুর্ট বই মেলায় ই-বই

‘‘শিক্ষা তো অ্যাপল'এর মজ্জাগত,'' সংস্থাটির সিনিয়র মার্কেটিং ভাইস প্রেসিডেন্ট ফিলিপ স্কিলার বলেছেন৷ মন্তব্য: ‘‘আইপ্যাডের জন্য আই-বুকস টু দিয়ে ছাত্র-ছাত্রীরা আরো গতিশীল, চিত্তাকর্ষক এবং প্রকৃত ইন্টারএ্যাকটিভ পদ্ধতিতে পড়তে ও শিখতে পারবে৷'' স্কিলার বলছেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং বিশ্বের অন্যান্য বহু দেশের বিদ্যালয়ে আইপ্যাডের ব্যবহার বেড়ে চলেছে৷ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নাকি প্রায় ১৫ লক্ষ আইপ্যাড ব্যবহার করা হচ্ছে৷

সাংবাদিক সম্মেলনটা হচ্ছিল নিউ ইয়র্কের সুবিখ্যাত গাগেনহাইম মিউজিয়ামে৷ স্কিলার এবং অ্যাপল'এর অন্যান্য কর্মকর্তারা বিভিন্ন আই-বুকস টেক্সট-বুক থেকে নানা ধরণের ইন্টারএ্যাকটিভ অ্যানিমেশন, ডায়াগ্রাম, ফটো ও ভিডিও প্রদর্শন করেন৷ তাদের মতে ইলেকট্রনিক টেক্সট-বই'এর বিশেষত্ব হল ‘‘দ্রুত, তরল নেভিগেশন; সহজেই দাগানো অথবা নোট নেওয়া; সহজ সন্ধান এবং সংজ্ঞা; সেই সঙ্গে পাঠের পর্যালোচনা ও পাঠ্য বিষয়ের ইনডেক্স কার্ড রাখা''৷

উচ্চ মাধ্যমিকের ডিজিটাল টেক্সট বই প্রকাশের জন্য হাওটন মিফলিন হারকোর্ট, ম্যাকগ্র-হিল এবং পিয়ারসন ইত্যাদি প্রকাশনা সংস্থার সঙ্গে সহযোগিতার কথা ঘোষণা করে অ্যাপল৷ অ্যাপল'এর আই-বুকস্টোরে এ'সব বই'এর দাম হবে ছাপানো পাঠ্যবই'এর চেয়ে অনেক কম৷ অ্যাপল সেই সঙ্গে আই-বুকস অথর বা আই-বুকস লেখক নামের একটি নিখর্চার টুল রাখছে, যার মাধ্যমে ম্যাকিনটশ কম্পিউটার ব্যবহারকারীরা তাদের নিজেদের আই-বুকস টেক্সটবুক সৃষ্টি করে এ্যাপলএর আই-বুকস্টোরে সেগুলো প্রকাশ করতে পারবেন৷

অ্যামাজোন এবং অন্যান্য সংস্থারাও ডিজিটাল টেক্সটবই'এর বাজার ঢুকতে আগ্রহী৷ এবার আরো বেশি নতুন কোম্পানি নতুন পণ্য নিয়ে পাঠ্য বই'এর বাজার আসবে৷ বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের সুবিশাল পাঠ্য বই'এর বাজারের মাত্র ২.৮ শতাংশ হল ইলেকট্রনিক পাঠ্য বই৷

অ্যাপল বৃহস্পতিবার আইপ্যাড, আইফোন এবং আইপড টাচ'এর জন্য একটি আই-টিউন্স ইউ অ্যাপ্লিকেশনের কথা ঘোষণা করেছে, যার মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা নতুন পাঠ্যক্রম সৃষ্টি করতে পারবেন৷ শুধু অক্সফোর্ড, কেম্ব্রিজ, হার্ভার্ড এবং স্ট্যানফোর্ডের মতো বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররাই নয়, অ্যাপ'এর মাধ্যমে বিশ্বের যে কোনো কোণার ছাত্ররাই নাকি এর ফলে উপকৃত হবে৷

প্রতিবেদন: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী
সম্পাদনা: আবদুল্লাহ আল-ফারূক

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন