অস্ত্র রপ্তানিতে নতুন রেকর্ডের পথে জার্মানি | বিশ্ব | DW | 08.10.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

অস্ত্র রপ্তানিতে নতুন রেকর্ডের পথে জার্মানি

সরকার গঠনের সময় জোটসঙ্গীদের শর্ত মেনে অস্ত্র রপ্তানিতে রাশ টানার সিদ্ধান্ত নিলেও জার্মানি অস্ত্র রপ্তানিতে নতুন রেকর্ড ছুঁতে চলেছে৷  এর সমালোচনা করতে গিয়ে সবুজ দলের এক নেতা বলেছেন, ‘‘এটা অপরাধ৷''

সবুজ দলের নেতা ওমিদ নুরিপুর অবশ্য এর জন্য সিডিইউ এবং সিএসইউ দলের শিবিরকেই দায়ী করেননি, জোটসঙ্গী সামাজিক গণতন্ত্রী দল (এসপিডি)-রও কঠোর সমালোচনা করেছেন তিনি৷ এসপিডি সম্পর্কেই তাঁর মন্তব্য, ‘‘সবচেয়ে খারাপ বিষয় হলো, আজকের এসপিডি শান্তির চেয়ে অস্ত্র বিক্রির লাভকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ মনে করে৷''

২০১৮ সালে জোট সরকার গড়ার আগে সব দল অস্ত্র রপ্তানি কমানোর সিদ্ধান্ত নিলেও জার্মানির অস্ত্র রপ্তানি বাড়ছে৷ চলতি সংসদ অধিবেশনে  সবুজ দলের নেতা ওমিদ নুরিপুরের প্রশ্নের জবাবে জার্মানির অর্থ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত বছরের জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বরের তুলনায় এ বছর একই সময়ে শতকরা ৭৫ ভাগ বাড়বে৷ ২০১৫ সালে মোট সাত দশমিক ৮৬ বিলিয়ন ইউরোর ফস্ত্র রপ্তানি করেছিল জার্মানি৷ এ বছর প্রথম নয় মাসেই ছয় দশমিক ৩৫ বিলিয়ন ইউরোর অস্ত্র রপ্তানির অনুমোদন দিয়েছে আঙ্গেলা ম্যার্কেলের নেতৃত্বাধীন জোট সরকার৷ এই ধারা চললে বছর শেষে রপ্তানির নতুন রেকর্ড হওয়া প্রায় অনিবার্য৷

প্রধান ক্রেতা কোন কোন দেশ?

সাংবাদিক জামাল খাশগজি হত্যার পর সৌদি আরবে অস্ত্র রপ্তানি বন্ধ করে দেয় জার্মানি৷ তবে ইয়েমেন যুদ্ধে সৌদি আরবের মিত্র মিশর এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতে অস্ত্র রপ্তানি চলছে৷ এ বছর মিশরের কাছে এ পর্যন্ত ৮০২ মিলিয়ন ইউরো এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের কাছে ২০৬ মিলিয়ন ইউরোর অস্ত্র বিক্রিতে অনুমোদন দিয়েছে ম্যার্কেল সরকার৷ সংযুক্ত আরব আমিরাত অবশ্য ইতিমধ্যে ইয়েমেনে যুদ্ধরত সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট থেকে সরে এসেছে৷

তবে অনুমোদিত হিসেব অনুযায়ী প্রথম নয় মাসে ইউরোপের দেশগুলোতেই সবচেয়ে বেশি এক দশমিক ৭৭ বিলিয়ন ইউরো মূলের অস্ত্র বিক্রি করবে জার্মানি৷ সেরা দশের তালিকায় ন্যাটোভুক্ত দেশ যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, নরওয়ে এবং হাঙ্গেরির পাশাপাশি দক্ষিণ কোরিয়াও আছে৷

এসিবি/ কেএম (কেএনএ, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন