অস্ত্র মামলায় সাহেদের যাবজ্জীবন | বিশ্ব | DW | 28.09.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

অস্ত্র মামলায় সাহেদের যাবজ্জীবন

করোনা পরীক্ষা জালিয়াতিসহ নানা অভিযোগে গ্রেপ্তার রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহেদকে অবৈধ অস্ত্র রাখার দায়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত৷

ঢাকা মহানগর ১ নম্বর বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক কে এম ইমরুল কায়েশ সোমবার এ রায় ঘোষণা করেন বলে বাংলাদেশে ডয়চে ভেলের কন্টেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জানিয়েছে৷

সাহেদের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলাগুলোর মধ্যে উত্তরা পশ্চিম থানার এই অস্ত্র আইনের মামলার রায়ই প্রথম এলো৷

অস্ত্র আইনের দুটি ধারায় আদালত সাজা ঘোষণা করেছে৷ এ আইনের ১৯ (এ) ধারায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের পাশাপাশি আরেকটি ধারায় সাহেদকে সাত বছরের জেল দেয়া হয়েছে৷ সাজা দুটি একসাথে কার্যকর হবে বলে এ ক্ষেত্রে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডই প্রযোজ্য হবে৷

করোনা ভাইরাসের শুরুর দিকে রিজেন্ট হাসপাতালে কোভিড-১৯ পরীক্ষা প্রতারণার ঘটনায় দেশজুড়ে আলোচনায় আসেন সাহেদ৷ এ বিষয়ে তার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি মামলার প্রেক্ষিতে গত ১৫ জুলাই ভোরে সাতক্ষীরার দেবহাটা সীমান্ত থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়

মামলার রিমান্ড চলা অবস্থায় গত ১৮ জুলাই রাতে সাহেদকে নিয়ে উত্তরায় অভিযান চালায় পুলিশ৷ এ সময় তার একটি গাড়ি থেকে গুলিসহ একটি পিস্তল ও কিছু মাদক উদ্ধার করা হয় বলে পুলিশ জানায়৷ এর প্রেক্ষিতে উত্তরা পশ্চিম থানায় তার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনের মামলা করা হয়৷

করোনা পরীক্ষা জালিয়াতির অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ৬ জুলাই সাহেদের মালিকানাধীন রিজেন্ট হাসপাতালের উত্তরা ও মিরপুর শাখায় অভিযান চালায় ব়্যাব৷ এ সময় করোনা ভাইরাসের ভুয়া পরীক্ষা ও হাসপাতালের নানা অনিয়ম ধরা পড়ে৷

আরআর/এসিবি (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফো ডটকম)

১৫ জুলাইয়ের ছবিঘরটি দেখুন...

নির্বাচিত প্রতিবেদন