অস্ত্র নিয়ন্ত্রণের পথে এগোচ্ছে কানেকটিকাট | বিশ্ব | DW | 04.04.2013
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

অস্ত্র নিয়ন্ত্রণের পথে এগোচ্ছে কানেকটিকাট

সবার হাতে অস্ত্র তুলে দেয়া যদি অনেকটা আগুন নিয়ে খেলা হয় তাহলে সে খেলা বন্ধ করার উদ্যোগ নিয়েছে কানেকটিকাট৷ অস্ত্র নিয়ন্ত্রণের জন্য একটি বিল পাস হয়েছে যু্ক্তরাষ্ট্রের এ রাজ্যের সেনেটে৷

গত ১৪ ডিসেম্বর কানেকটিকাটে ঘটেছিল ভয়াবহ এক ঘটনা৷ নিউটাউনের স্যান্ডি হুক এলিমেন্টারি স্কুলে গিয়ে এক তরুণ গুলি করে মেরেছিল ২০ জন শিশুশিক্ষার্থী এবং ৬ জন শিক্ষিকাকে৷ যুক্তরাষ্ট্র জুড়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া হয়েছিল এ ঘটনার৷ নিজের লাইসেন্স করানো অস্ত্র নিয়ে এক তরুণের এমন বিভৎস হত্যাযজ্ঞের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের অস্ত্র আইনের গ্রহণযোগ্যতা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছিল৷ শুরু হয়েছিল তুমুল বিতর্ক৷ প্রচলিত আইনের পক্ষে কথা বলতে গিয়ে অনেকেই তুলে ধরছিলেন নাগরিকের সাংবিধানিক এবং নিরাপত্তার অধিকারের প্রসঙ্গ৷ পাল্টা যুক্তি একটাই – চাইলেই যে কেউ অস্ত্র পাবে আর যখন যেভাবে খুশি অস্ত্র নিয়ে যাকে-তাকে মেরে ফেলবে এটা কোনো আইনই হতে পারেনা৷

বুধবার কানেকটিকাটের সেনেটে পাশ হওয়া বিল সারা দেশের আইন হলে অবস্থার যে অনেকটাই পরিবর্তন হবে সে বিষয়ে খুব একটা সন্দেহ নেই৷ তবে যুক্তরাষ্ট্রে সেই পরিস্থিতি আসা প্রায় অসম্ভব৷ সেনেটের বিল হাউজ অফ রিপ্রেজেন্টেটিভে পাশ হলে তাতে স্বাক্ষর করবেন কানেকটিকাটের ডেমোক্র্যাট গভর্নর ড্যানেল ম্যালয়৷ তারপর সেই রাজ্যে আর যে কেউ চাইলেই সব ধরণের অস্ত্র নিয়ম অনুযায়ী হাতে তুলে নিতে পারবেন না৷

কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রে এমন আইন এক্ষুনি কার্যকর হবে এমন আশা করা যাচ্ছে না৷ অস্ত্র আইন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষমতাসীন ডেমোক্র্যাট আর প্রধান বিরোধী দল রিপাবলিকানের মধ্যে মতবিরোধ রয়েছে৷ এর প্রতিফলন সর্বক্ষেত্রে পড়াটাই স্বাভাবিক৷ কানেকটিকাটের হার্টফোর্ড কোরান্ট পত্রিকার প্রতিবেদন অনুযায়ী, ওয়াশিংটন ডিসি এবং ১৭টি রাজ্য কঠোর অস্ত্র আইনের পক্ষে, কিন্তু ২৬টি রাজ্যের সমর্থন পাচ্ছে উদার অস্ত্র আইন৷

এবিসি/ ডিজি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন