অস্ত্রভাণ্ডার বাড়াতে সাইবার হামলা করছে উত্তর কোরিয়া | ইউনেস্কো বিশ্ব ঐতিহ্য | DW | 06.08.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

উত্তর কোরিয়া

অস্ত্রভাণ্ডার বাড়াতে সাইবার হামলা করছে উত্তর কোরিয়া

নিজেদের অস্ত্রভাণ্ডারকে সমৃদ্ধ করতে সাইবার আক্রমণের মাধ্যমে ব্যাংক থেকে অর্থ আর ক্রিপ্টোকারেন্সি হাতিয়ে নিচ্ছে উত্তর কোরিয়া৷ অভিযোগ রয়েছে এ পর্য্ন্ত দুই বিলিয়ন মার্কিন ডলার অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে তারা৷

দেশটির সাইরবার হামলাগুলো এতটাই সুপরিকল্পিত, তাঁদের বিরুদ্ধে কোনো প্রমাণই মিলছে না৷ জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ এমন তথ্য দিয়েছে৷

গত ছয় মাস ধরে পিয়ংইয়ংয়ের ওপর আরোপ করা আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞাগুলো পর্যবেক্ষণ করে প্রতিবেদন তৈরি করেছেন বিশেষজ্ঞরা৷ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উত্তর কোরিয়া ‘বড় আকারে এবং বুদ্ধিমত্তার' সঙ্গে সাইবার হামলা চালাচ্ছে৷ এখন পর্যন্ত দেশটি দুই বিলিয়ন মার্কিন ডলারের সমপরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে বলেও দাবি করেছেন বিশেষজ্ঞরা৷

বিভিন্ন আর্থিক ও ক্রিপ্টোকারেন্সি বিনিময় প্রতিষ্ঠান থেকে এই অর্থ চুরি করা হয়েছে বলেও উল্লেখ রয়েছে প্রতিবেদনে৷ বলা হচ্ছে, ১৭টি দেশে অন্তত ৩৫টি হামলা চালিয়েছে তারা, যা এখন খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷ সরকারি তদারকি কম এবং ব্যাংকিং খাতের ঢিলেঢালা নিয়ন্ত্রণ থাকা প্রতিষ্ঠানগুলোকে বাছাই করে হামলা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া, যাতে কেউ তাঁদের শনাক্ত করতে না পারে৷

জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞার কারণে প্রচলিত রাজস্ব উৎস থেকে বঞ্চিত দেশটি৷ এছাড়া কয়লা, লোহা, সিসা, টেক্সটাইল এবং সামুদ্রিক খাদ্য রপ্তানিও নিষিদ্ধ রয়েছে দেশটির৷

‘অবমূল্যায়ন' করা যাবে না

সোমবার ওয়াশিংটনভিত্তিক উত্তর কোরিয়ার থিঙ্কট্যাংক ‘৩৮ নর্থ' তাদের প্রতিবেদনে জানিয়েছে, উত্তর কোরিয়া সরকারের সাইবার হামলার সক্ষমতাকে অবমূল্যায়ন করা উচিত হবে না৷ প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, সাইবার হামলাগুলোর তথ্য-উপাত্ত খুঁজে বের করাটাও মুশকিল হবে৷

হ্যাকিংয়ের পেছনে কারা?

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বেশকিছু সাইবার হামলার জন্য উত্তর কোরিয়ার হ্যাকার গ্রুপ ‘লাজারুস'-এর দিকে আঙুল তুলছেন বিশেষজ্ঞরা৷ ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে লাজারুসের সঙ্গে সম্পৃক্ত এক ‘হাই-প্রোফাইল' হ্যাকার নিউ ইয়র্কের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংকে খোলা বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট থেকে ৮১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার চুরি করে৷

পরের বছর তাইওয়ানের ফার ইস্টার্ন ব্যাংকের কম্পিউটার সিস্টেমে মেলওয়্যার পাঠিয়ে ৬০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার চুরি করে লাজারুসের আরেক হ্যাকার৷ এর আগে ২০১৪ সালে নির্মাতা প্রতিষ্ঠান সনির সিস্টেম হ্যাক করে তাদের সার্ভারের সব ডেটা মুছে দিয়েছেল লাজারুস চক্র৷ তাতে ক্ষতি হয়েছিল অন্তত ১৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার৷

সেন্টার ফর স্ট্র্যাটেজিক অ্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিজের আন্তর্জাতিক সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ জেমস লুইস বলেন, ‘‘কিম পরিবারের ব্যয়বহুল অস্ত্র পরীক্ষা আর দেশের অস্ত্রের মজুদ বাড়াতে অপরাধকে উৎসাহিত করছে উত্তর কোরিয়া৷ দেশটি এখন রাষ্ট্র পরিচালিত সাইবার সন্ত্রাসীর কারখানায় পরিণত হয়েছে৷''

ওয়েসলি রান/টিএম

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন