অস্তিত্বের লড়াইয়ে সরকারের সাহায্য পাচ্ছে লুফটহানসা | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 26.05.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

অস্তিত্বের লড়াইয়ে সরকারের সাহায্য পাচ্ছে লুফটহানসা

জার্মানির প্রধান বিমান সংস্থার অস্তিত্ব রক্ষার স্বার্থে সরকার বিশাল অঙ্কের সহায়তা করতে চলেছে৷ প্রতিকূল অধিগ্রহণ মোকাবিলা ও কর্মসংস্থানের স্বার্থে সরকার সাময়িকভাবে লুফটহানসার শেয়ার কিনছে৷

অন্যান্য অনেক ছোট-বড় কোম্পানির মতো করোনা সংকটে বিপর্যস্ত জার্মানির বিমান সংস্থা লুফটহানসা৷ বিমান চলাচল প্রায় স্তব্ধ হয়ে যাওয়ার ফলেবিশাল অঙ্কের লোকসানের মুখ দেখতে হচ্ছে৷ পরিস্থিতির উন্নতির কোনো সম্ভাবনাও আপাতত দেখা যাচ্ছে না৷ অস্তিত্বের সংকট দেখা দেওয়ায় সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলো জার্মানির ফেডারেল সরকার৷ কয়েক সপ্তাহ ধরে আলোচনার পর ৯০০ কোটি ইউরো বিনিয়োগ করে এবং ২০ শতাংশ মালিকানার অংশীদার হয়ে এ যাত্রায় জার্মানির সবচেয়ে বড় বিমান সংস্থাকে রক্ষা করতে এগিয়ে এলো আঙ্গেলা ম্যার্কেলের সরকার৷ তবে শর্ত হিসেবে ভবিষ্যতে শেয়ারের মালিকদের জন্য ডিভিডেন্ড বন্ধ রাখতে হবে৷ ম্যানেজারদের বেতন ও ভাতা বাড়ানোও চলবে না৷ পরিচালকমণ্ডলীতে সরকারের দুই প্রতিনিধি থাকবেন৷

জার্মানির সরকার এক ঢিলে অনেকগুলি পাখি মারতে পারতে চায় বলা চলে৷ দেশের প্রধান বিমান সংস্থার সুরক্ষার পাশাপাশি বিশাল সংখ্যার মানুষের কর্মসংস্থান নিশ্চিত করতে পারে এই সিদ্ধান্ত৷ তাছাড়া সরকারি অংশিদারিত্বের ফলে অন্য কোনো সংস্থা দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে লুফটহানসা অধিগ্রহণ করতে পারবে না৷ এমন প্রচেষ্টার ক্ষেত্রে সরকার আরও পাঁচ শতাংশ শেয়ার কিনে ভেটো প্রয়োগ করতে পারবে৷ এই সংস্থাকে আরও সাহায্য করতে জার্মান পুনর্গঠন ব্যাংক এবং কিছু বেসরকারি ব্যাংক তিন বছরের জন্য আরও ৩০০ কোটি ইউরো অঙ্কের ঋণ দিচ্ছে৷

এককালে ডাক কোম্পানি, টেলিকম ও লুফটহানসার মতো কোম্পানি সরকারি মালিকানায় চলতো৷ তারপর বেসরকারিকরণ প্রক্রিয়ার আওতায় এমন সব কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ সংস্থা বেসরকারি হাতে চলে যায়৷ তা সত্ত্বেও সরকার আংশিক মালিকানা ছাড়ে নি৷ করোনা সংকটের কারণে জরুরি পরিস্থিতিতে সরকার সহায়তা প্যাকেজের অংশ হিসেবে প্রয়োজনে বেসরকারি সংস্থার আংশিক মালিকানার সুযোগ রেখেছে৷ উল্লেখ্য, এর আগে আন্তর্জাতিক আর্থিক সংকটের সময়ও জার্মানির সরকার কম্যার্ৎসবাংক কোম্পানির ১৫ শতাংশ অংশিদারিত্ব নিয়ে নেয়৷ 

জার্মানির অর্থ ও অর্থনীতি মন্ত্রণালয় সোমবার জানিয়েছে, যে সংস্থা হিসেবে লুফটহানসা বেশ লাভজনক এবং অনুকূল পরিস্থিতির মধ্যে ছিল৷ কিন্তু মহামারির কারণে এই বিমান সংস্থা সমস্যায় পড়েছে৷ অর্থমন্ত্রী ওলাফ শলৎস সীমিত সময়ের জন্য এমন প্রস্তুতির পক্ষে সওয়াল করেছেন৷ তিনি মনে করিয়ে দেন, যে সরকার ২০২৩ সালের শেষের মধ্যে নিজস্ব শেয়ার বিক্রি করার পরিকল্পনা নিয়েছে৷ লুফটহানসা আবার নিজের পায়ে দাঁড়ালে সরকার সম্ভবত সামান্য মুনাফাসহ শেয়ার বিক্রি করে আরও অনেক প্রয়োজন মেটাতে সেই অর্থ বিনিয়োগ করবে, বলেন শলৎস৷

 

জার্মান সরকারের এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করার আগে ইউরোপীয় ইউনিয়নের অনুমোদনের প্রয়োজন রয়েছে৷ প্রতিযোগিতার বাজারে সব সংস্থার জন্য সমান সুযোগ নিশ্চিত করতে ইইউ এমন সরকারি সাহায্য সম্পর্কে নীতিগতভাবে সন্দিহান থাকে৷ তবে জার্মানির সরকারের আশা, বর্তমান পরিস্থিতির আলোকে ব্রাসেলস কোনো আপত্তি জানাবে না৷

এসবি/কেএম (রয়টার্স, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন