‘অশ্লীল ছবি ছড়ানোর হুমকি′তে কিশোরীর আত্মহত্যা | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 05.07.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

‘অশ্লীল ছবি ছড়ানোর হুমকি'তে কিশোরীর আত্মহত্যা

ঢাকার বাসাবো এলাকায় এক যুবক স্কুলছাত্রীর ‘অশ্লীল ছবি ধারণ করে তা ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়ায় কিশোরী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ৷

ডয়চে ভেলের কনটেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের প্রতিবেদন অনুযায়ী  এ ঘটনায় মেয়েটির বাবা সোমবার সকালে সবুজবাগ থানায় স্থানীয় দুই যুবকের বিরুদ্ধে ‘আত্মহত্যায় প্ররোচনার' মামলা করেছেন বলে ওসি মোরাদুল ইসলাম জানিয়েছেন৷

১৪ বছর বয়সী মেয়েটি বাসাবোতে নানার বাড়িতে থেকে স্থানীয় একটি স্কুলে ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ত৷ তার বাবা-মা থাকেন ধলপুর এলাকায় একটি বস্তিতে৷

ওসি বলেন, " প্রেমের ফাঁদে ফেলে ওই স্কুলছাত্রীর অশ্লীল ছবি ধারণ করে তা ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ব্ল্যাকমেইল করছিল এক যুবক৷ এক পর্যায়ে পরিবারের লোকজন বিষয়টি জানতে পারলে মেয়েটিকে শাসন করে৷ এরপর রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে সে গলায় ফাঁস দেয়৷''

অচেতন অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাত সাড়ে ৯টার দিকে মেয়েটিকে মৃত ঘোষণা করেন৷

এরপর মেয়েটির বাবা সোমবার সকালে সবুজবাগ থানায় গিয়ে শামীম ও ফাহিম নামের দুই যুবকের বিরুদ্ধে মামলা করেন বলে জানান ওসি৷

ওই কিশোরীর বাবার রিকশার গ্যারেজ আছে৷ মা সিটি করপোরেশনের ক্লিনার৷ পরিবারের দুই বোনের মধ্যে মেয়েটি ছিল বড়৷

কিশোরীর মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে বলে ঢাকা মেডিকেল পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া জানিয়েছেন৷

এনএস/কেএম (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম) 

নির্বাচিত প্রতিবেদন