অরিগামি যখন স্ট্রিট আর্ট | অন্বেষণ | DW | 22.10.2015
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

অন্বেষণ

অরিগামি যখন স্ট্রিট আর্ট

শিল্প সৃষ্টির জন্য কী কী লাগে? শুধু কাগজের টুকরো ভাঁজ করে পাখি, নৌকা, মাছ ইত্যাদি অনেক কিছুই তৈরি করতে শেখায় জাপানের ‘অরিগামি'৷ ফ্রান্সের এক শিল্পী আরও এক ধাপ এগিয়ে অরিগামি-কে স্ট্রিট আর্ট-এর পর্যায়ে নিয়ে গেছেন৷

অরিগামি কাগজ ভাঁজ করা ছাড়া কিছুই নয়৷ ২৯ বছর বয়সি শিল্পী মাদমোয়াজেল মোরিস প্যারিসে তাঁর ছোট্ট স্টুডিওয় কাজ করেন৷ শুধু বই পড়েই এই বিদ্যা রপ্ত করেছেন তিনি৷ তিনি পাঁচটি মোটিফ ব্যবহার করেন – সাধারণ পাখি, সারস পাখি, বাতাস, জাহাজ ও ফুল৷ এগুলি যাকে বলে, অরিগামি জগতের ক্ল্যাসিক৷ মাদমোয়াজেল মোরিস বলেন, ‘‘একটি ইনস্টলেশনের জন্য ৮০০ থেকে ১,৫০০টি পিস লাগে৷ সাইজ ও সারফেসের উপর নির্ভর করে৷''

উচ্চশিক্ষার পর মাদমোয়াজেল মোরিস স্থপতি হিসেবে কাজ করেছেন৷ কিন্তু সেই পেশা তাঁর জন্য তা যথেষ্ট সৃজনশীল ছিল না৷ শিল্পজগতে নিজস্ব স্টাইল খুঁজে পেতে তাঁর কিছুটা সময় লেগেছিল৷ প্রথমে তিনি ‘ফিশ আই লেন্স' দিয়ে ছবি তোলেন৷ তারপর তিনি সুতো দিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেন৷ তাঁর প্রথম স্ট্রিট আর্ট উপহারের মোড়কের ফিতে দিয়ে তৈরি৷ অরিগামি-র মধ্যে তিনি স্ট্রিট আর্টের নতুন এক রূপ খুঁজে পেয়েছেন৷

তাঁর সৃষ্টি যে অনন্তকাল টিকতে পারে না, সেটাও কনসেপ্টের অংশ৷ ফরাসি শিল্পী মাদমোয়াজেল মোরিস বলেন, ‘‘আমি এমন ইনস্টলেশন তৈরি করতে চাই, যা টেকসই নয়৷ এই সৃষ্টি আমাদের মানবিক অস্তিত্বের প্রতিফলন – সেটাও তো অস্থায়ী৷ এই সত্য আমাকে নিজের কাজ নিয়ে মাতামাতি না করতে সাহায্য করে৷''

২০১৩ সালে ফ্রান্সের পশ্চিমে রাব্লে-সুয়র-লেয়ঁ অঞ্চলে তিনি প্রথম বড় প্রদর্শনী আয়োজন করেছিলেন৷ ১২০ বর্গ মিটার এলাকায় ৪০টিরও বেশি শিল্পকীর্তি তুলে ধরা হয়েছিল৷ তার মধ্যে ছিল পুনর্ব্যবহারযোগ্য কাগজ দিয়ে তৈরি পোর্ট্রেট৷ সৃষ্টির মাধ্যমে মাদমোয়াজেল মোরিস পরিবেশ সম্পর্কে আরও সচেতনতা সৃষ্টি করতে চান৷ কয়েকটি কাজের মাধ্যমে তিনি জঙ্গলে মাত্রাতিরিক্ত কাঠ কাটার বিষয়টি তুলে ধরতে চান৷ নিজের কাজের মাধ্যমে মাদমোয়াজেল মোরিস মানুষের চিন্তাভাবনা জাগিয়ে তুলতে চান৷ সে কাজে তিনি সফলও হচ্ছেন৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন