অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে মন্দির হবে | বিশ্ব | DW | 09.11.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভারত

অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে মন্দির হবে

ভারতের অযোধ্যার বিতর্কিত জমিতে মন্দির নির্মাণের রায় দিয়েছেন ভারতের সুপ্রিম কোর্ট৷ তবে, মুসলমানদের মসজিদ গড়তে বিকল্প জমি প্রদান করতে বলা হয়েছে৷

১৯৯২ সালে বাবরি মসজিদে হামলা চালানো হয় (ফাইল ফটো)

১৯৯২ সালে বাবরি মসজিদে হামলা চালানো হয় (ফাইল ফটো)

ভারতের অযোধ্যার এক বিতর্কিত জমি নিয়ে কয়েক দশক অপেক্ষার পর শনিবার রায় ঘোষণা করেছে দেশটির সর্বোচ্চ আদালত৷ রায়ে ওয়াকাফ বোর্ডের আর্জি এবং নির্মোহী আখড়ার জমির উপর দাবি দুটোই খারিজ করে দেন বিচারকরা৷ বিতর্কিত সেই জমিতে একটি ট্রাস্টের অধীনে মন্দির নির্মাণের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত৷ পাশাপাশি, একটি মসজিদ গড়তে কাছাকাছি অন্য কোথাও মুসলমানদের পাঁচ একর জমি দিতেও বলা হয়েছে রায়ে৷

প্রসঙ্গত, হিন্দুদের দাবি হচ্ছে, রামের জন্মস্থান অযোধ্যা এবং যে স্থান নিয়ে বিতর্ক সেখানে একটি মন্দির ছিল৷ সেই মন্দিরের স্থানেই কয়েকশত বছর আগে বাবরি মসজিদ তৈরি করা হয়েছিল বলে দাবি তাদের৷

সুপ্রিম কোর্টের রায়ের অংশবিশেষ উল্লেখ করে ভারতের আনন্দবাজার পত্রিকা লিখেছে, ‘‘রায়ে উল্লেখ করা হয়েছে, বাবরের সেনাপতি মির বাকিই যে মসজিদ তৈরি করেছিলেন, তার প্রমাণ রয়েছে৷ তবে সেটা কোন সালে, তা নির্ধারিত নয় এবং তারিখ গুরুত্বপূর্ণও নয়৷ ভারতীয় পুরাতত্ত্ব সর্বেক্ষণের খননে অন্য কাঠামোর প্রমাণ মিলেছে৷ তবে সেই কাঠামো থেকে এমনও দাবি করা যায় না যে, সেগুলি মন্দিরেরই কাঠামো৷''

আনন্দবাজার লিখেছে, ‘‘আবার সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের দাবি খারিজ করে শীর্ষ আদালত বলেছে, শুধুমাত্র বিশ্বাসের ভিত্তিতে কোনও অধিকার দাবি করা যায় না৷ জমির মালিকানা আইনি ভিত্তিতেই ঠিক করা উচিত৷''

উল্লেখ্য, ১৯৯২ সালে একদল হিন্দু উগ্রপন্থি বাবরি মসজিদ গুঁড়িয়ে দিলে হিন্দু ও মুসলমানদের মধ্যে দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়ে যাতে অন্তত দুই হাজার মানুষ প্রাণ হারায়৷ নিহতদের মধ্যে অধিকাংশই ছিল মুসলামান৷ শনিবার রায় ঘোষণার পর যাতে পরিস্থিতি অশান্ত হয়ে না পড়ে সেজন্য ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে ভারত সরকার৷

এআই/কেএম (এএফপি, এপি, আনন্দবাজার)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন