‘অযথাই নির্বাচনের নামে নাটক করছে নির্বাচন কমিশন′ | পাঠক ভাবনা | DW | 26.12.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

পাঠক ভাবনা

‘অযথাই নির্বাচনের নামে নাটক করছে নির্বাচন কমিশন'

ভোটকেন্দ্রে ভোটারদের মোবাইল নিয়ে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা সম্পর্কে  অনেক পাঠকই খুব  বিরক্ত আর হতাশ৷ সেসব কথাই তাঁরা ডয়চে ভেলের ফেসবুক পাতায় তুলে ধরেছেন৷

নির্বাচন কমিশনার জানিয়েছেন, ভোটকেন্দ্রে ভোটাররা মোবাইল নিয়ে প্রবেশ করতে পারবেন না৷ নির্বাচন কমিশনারের এই নিষেধাজ্ঞায় পাঠক এমএ হাসান লিখেছেন,  ‘‘এটা উদ্দেশ্যমূলক! এই নির্বাচন কমিশন একটা পক্ষপাতদুষ্ট অকর্মা কমিশন৷''

আর এ বিষয়ে সৈয়দা আফরিন মনে করেন, ‘‘অযথাই নির্বাচনের নামে নাটক করছে নির্বাচন কমিশন, যা নীলনকশা করার দরকার, তা সরকার আর কমিশনার মিলে করেই ফেলেছে৷ এখন শুধু লোক দেখানো নির্বাচন মাত্র৷''

অন্যদিকে  মোবাইল নিয়ে প্রবেশ করা নিষেধ সম্পর্কে  আনিসুর রহমান শুধু একটি শব্দই লিখেছেন, ‘‘তামাশা! ''

আর বেশ ক্ষুব্ধ হয়েই সাইমু জামান প্রশ্ন করেছেন এভাবে, ‘‘মোবাইল নিয়ে ভোটকেন্দ্রে গেলে কি ভোটাররা ভোটকেন্দ্রের জালিয়াতি ধরে

ফেলবে ?''

তবে আরিফুল ইসলাম রুবেল বলছেন, ‘‘ কী দরকার ছিল রাষ্ট্রের এতগুলো টাকা খরচ করে এ নাটক করার? সরাসরি তৃতীয় মেয়াদ ঘোষণা করে দিলেই তো হতো৷ আসলে আমরা যে আন্তর্জাতিক সমাজে বসবাস করছি, সেখানে কি এ উলঙ্গ সেচ্ছাচারিতার কোনো প্রতিকার নেই? সব কিছু দেখেও আমরা কেমন একটা বিশেষায়িত সুশীল আচরণ করি, যেখানে স্পষ্টবাদিতা খুব একটা দেখা যায় না৷''

পাঠক হাসান শিশির লিখেছেন,‘‘ নির্বাচনের দিন নেট থাকবে না৷ মোবাইল হাতে রেখে মানুষ কী করবে? মানুষের হাতে মোবাইল থাকা বা না থাকা একই কথা৷''

সংকলন: নুরুননাহার সাত্তার

সম্পাদনা: আশীষ চক্রবর্ত্তী

নির্বাচিত প্রতিবেদন