অভিবাসী শিশুদের জন্য জার্মানিতেই দরকার ৪২ হাজার শিক্ষক | বিশ্ব | DW | 20.11.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

অভিবাসী শিশুদের জন্য জার্মানিতেই দরকার ৪২ হাজার শিক্ষক

জাতিসংঘের প্রতিবেদন জানাচ্ছে, বিভিন্ন দেশে আশ্রয় নেয়া অভিবাসী শিশুরা যথাযথ শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে৷ ইউরোপের দেশগুলো আছে সেই তালিকায়৷ অভিবাসী শিশুদের জন্য এ মুহূর্তে জার্মানিতেই প্রয়োজন অন্তত ৪২ হাজার শিক্ষক৷

জাতিসংঘের সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এখনো মানসম্পন্ন শিক্ষা থেকে বঞ্চিত বহু অভিবাসী শিশু৷ ‘২০১৯ গ্লোবাল এডুকেশন মনিটারিং রিপোর্ট' শিরোনামের এই প্রতিবেদন বলছে, প্রশিক্ষিত শিক্ষক ও পর্যাপ্ত বিনিয়োগের অভাবেই দেখা দিয়েছে এই সমস্যা৷

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, বর্তমান বিশ্বের ঘর ছাড়তে বাধ্য হওয়া মানুষদের অর্ধেকের বয়সই আঠারোর কম৷যে দেশগুলিতে আশ্রয় চাইছেন তারা, সেখানে মানসম্পন্ন শিক্ষা জুটছে না তাদের৷

বিশ্বের ৮৯ শতাংশ শরণার্থীর বাস নিম্ন ও মাঝারি আয়ের দেশগুলিতে৷ সেখানে শরণার্থী শিশুদের জন্য নেই কোনো উন্নত শিক্ষা পরিষেবা৷জার্মানিতেও প্রয়োজন রয়েছে অন্তত ৪২,০০০ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শিক্ষকের৷

কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে, উগান্ডা, চাদ ও ইথিওপিয়া'র মতো নিম্ন আয়ের দেশের শিক্ষাব্যবস্থায় অভিবাসী শিশুদের অংশগ্রহণ চোখে পড়বার মতো৷ এছাড়া সর্বব্যাপী শিক্ষানীতির কারণে ক্যানাডা ও আয়ারল্যান্ডও জাতিসংঘের প্রতিবেদনে প্রশংসা কুড়িয়েছে৷

জাতিসংঘ বলছে, এই সমস্যার সমাধানে শিক্ষাখাতে বরাদ্দ অর্থের তিনগুণ বিনিয়োগ প্রয়োজন৷

‘‘অভিবাসীদের শিক্ষাকে গুরুত্ব না দিলে ভবিষ্যতে তার প্রভাব সবার ওপরে এসে পড়বে,'' এমনটাই মনে করেন জাতিসংঘের শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক সংস্থা ইউনেস্কো'র প্রধান অড্রে আজুলে৷

জার্মানির উন্নয়ন মন্ত্রী গের্ড ম্যুলারও এই বিষয়ে সহমত পোষণ করে বলেন, ‘‘বিপজ্জনক পরিস্থিতি থেকে উঠে আসা অভিবাসী শিশুদের শিক্ষাখাতে জার্মানি ভবিষ্যতে বিনিয়োগ আরো বাড়াবে৷ বর্তমানে এই খাতে ১৬ মিলিয়ন ইউরো খরচ করা হয়, কিন্তু শীঘ্রই তা বাড়িয়ে ৩১ মিলিয়ন ইউরো করা হবে৷''

বিশ্বের সাড়ে সাত কোটি শিশু বর্তমানে যুদ্ধবিধ্বস্ত অঞ্চলে বাস করে৷ ফলে এখনই সময় এই শিশুদের ভবিষ্যৎ রক্ষায় তৎপর হওয়ার, মনে করেন গের্ড ম্যুলার৷

এসএস/এসিবি (এপি/এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন