অবশেষে মাস্ক পরলেন ট্রাম্প | বিশ্ব | DW | 12.07.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র

অবশেষে মাস্ক পরলেন ট্রাম্প

করোনা মহামারির শুরু থেকেই বিষয়টি হালকাভাবে নিচ্ছিলেন ডনাল্ড ট্রাম্প৷ এই ভাইরাস নিয়ে নানা বিভ্রান্তিও ছড়িয়েছেন তিনি৷ তবে, দেরিতে হলেও সম্ভবত ভাইরাসটির ভয়াবহতা বুঝেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট, পরতে শুরু করেছেন মাস্ক৷

করোনার আঘাতে মার্কিন মুল্লুকের অবস্থা কাহিল৷ আর এই অবস্থার জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পকে দায়ী করছেন অনেকে৷ নিন্দুকরা মনে করছেন, ভাইরাসটি প্রতিরোধে যথেষ্ট সচেতন ছিলেন না তিনি৷ আর তার পরিণাম ভুগতে হচ্ছে মার্কিনিদের৷ 

অব্যাহত এই সমালোচনার মাঝে জনসচেতনতার প্রতীক হতেও চাপ ছিল ট্রাম্পের উপর৷ সেই চাপের কাছে কি নতিস্বীকার করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট? প্রথমবারের মতো শনিবার তাকে জনসমক্ষে দেখা গেছে মাস্ক পরা অবস্থায়৷

যুদ্ধাহতদের দেখতে ওয়াশিংটনের কাছে ওয়াল্টার রিড সেনা হাসপাতাল দেখতে গিয়েছিলেন ট্রাম্প৷ সেই হাসপাতালের করিডরে গাঢ় রংয়ের মাস্ক পরা অবস্থায় হাঁটতে দেখা গেছে তাকে৷ এসময় তার সঙ্গে থাকা সেনা কর্মকর্তা ও নিরাপত্তারক্ষীদের মুখেও মাস্ক ছিল৷

মাস্ক পরা ট্রাম্প অবশ্য সাংবাদিকদের কোনো প্রশ্নের জবাব দেননি৷ তবে, হোয়াইট হাউস থেকে বের হওয়ার সময় বলেছিলেন, ‘‘আমি কখনোই মাস্ক পরার বিরুদ্ধে ছিলাম না৷ তবে আমি বিশ্বাস করি সেটা পরার একটা সময় এবং স্থান রয়েছে৷''

মার্কিন গণমাধ্যমে গত কয়েকদিন ধরেই খবর প্রকাশিত হচ্ছিল যে ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠজনরা তাকে প্রকাশ্যে মাস্ক পরতে এবং সংবাদকর্মীদের সেই মাস্ক পরা অবস্থার ছবি তুলতে সুযোগ দিতে অনুরোধ করেছেন৷ দেশটির কিছু রাজ্যে বর্তমানে করোনা সংক্রমণের হার বাড়ছে৷ আর নভেম্বরে অনুষ্ঠিতব্য মার্কিন নির্বাচনের আগে প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেনের তুলনায় জনসমর্থন নাকি কমছে ট্রাম্পের৷ মাস্ক পরা ট্রাম্পের ছবি তার জনপ্রিয়তা বাড়াতে পারে বলে মনে করছেন ট্রাম্প সমর্থকরা৷

উল্লেখ্য, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে গত কয়েকদিন ধরে টানা প্রতিদিন ষাট হাজারের বেশি নতুন করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ছে৷ দেশটিতে রোববার পর্যন্ত করোনায় মৃতের সংখ্যা এক লাখ ৩৫ হাজার জন৷

এআই/এফএ (এপি, এএফপি)

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন