অনির্দিষ্টকাল বন্ধ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় | বিশ্ব | DW | 05.11.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

অনির্দিষ্টকাল বন্ধ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ৷ এর আগে উপাচার্য বিরোধী আন্দোলনকারী শিক্ষক শিক্ষার্থীদের উপর ছাত্রলীগের হামলার ঘটনা ঘটে৷

উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের পদত্যাগের দাবিতে চলমান আন্দোলনের মুখে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ৷ মঙ্গলবার বিকাল চারটার মধ্যে শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজ৷

সম্প্রতি উপাচার্যের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তদন্তের দাবিতে আন্দোলনে নামে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা৷ দাবি পূরণ না হওয়ায় উপাচার্যের পদত্যাগ দাবি করেন তারা৷ গত সপ্তাহে দেয়া হয় ধর্মঘটের ডাক৷

ডয়চে ভেলের কনটেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম তাদের প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে, ‘‘সোমবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে উপাচার্যের বাসভবন ঘেরাও করে রাখেন আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা৷ মঙ্গলবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে উপাচার্যকে বাসা থেকে বের করে কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য সেখানে উপস্থিত হন তার সমর্থক শিক্ষক-কর্মকর্তারা৷ দুই পক্ষের মধ্যে উত্তপ্ত বাক-বিতণ্ডা চলার মধ্যেই বেলা পৌনে ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি মো. জুয়েল রানার নেতৃত্বে একটি মিছিল সেখানে আসে৷ সেই মিছিল থেকে আন্দোলনকারীদের ওপর চড়াও হয় ছাত্রলীগ কর্মীরা৷ তারা এলোপাতাড়ি মারধর করে আন্দোলনকারীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়৷ এসময় একাধিক শিক্ষককেও চ্যাংদোলা করে দূরে নিয়ে ফেলতে দেখা যায়৷’’

এদিকে সমর্থক সহকর্মী ও ছাত্রলীগ কর্মীদের ‘গণঅভ্যুত্থানের’ জন্য ধন্যবাদ জানান উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম৷ আন্দোলনের পেছনে জামায়াতপন্থিদের হাত রয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি৷ বলেন, ‘‘সরকারের উচিৎ হবে এই চক্রটাকে দেখা৷ এরা কোথায় ছড়িয়ে আছে এবং বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর অবস্থা কেন খারাপ হচ্ছে৷’’ 

এর পরপরই জরুরি বৈঠকে বসে সিন্ডিকেট; সেখানেই বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধের ঘোষণা আসে বলে উল্লেখ করেছে বিডিনিউজ৷

পরিস্থিতি পর্যবেক্ষেণ করছেন প্রধানমন্ত্রী

এদিকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিস্থিতি প্রধানমন্ত্রীর পর্যবেক্ষণে রয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের৷ তিনি বলেন, ‘‘এটা প্রধানমন্ত্রীর নজরে আছে, এর সর্বশেষ খবর প্রধানমন্ত্রী জানেন৷ কোনো ব্যবস্থা নিতে হলে তিনি খোঁজ-খবর নিয়ে নেবেন৷ সরকার প্রধান এ ব্যাপারে খুব সজাগ৷ তিনি বিষয়টা পর্যবেক্ষণ করছেন, অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা নেবেন৷’’

উল্লেখ্য জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে এক হাজার ৪৪৫ কোটি টাকার কাজে দূর্নীতির অভিযোগ ওঠে৷ তখন থেকেই ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ নামের প্ল্যাটফর্মে সোচ্চার হন শিক্ষক এবং ছাত্ররা৷ গত ২৫ আগস্ট থেকে তারা আন্দোলন শুরু করেন৷ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন ফান্ড থেকে চাঁদা দাবিসহ বেশ কিছু অভিযোগে পদ হারান কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের শীর্ষ দুই নেতাও৷ ভিসি ফারজানা ইসলামের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগকে চাঁদা দেয়ার অভিযোগও রয়েছে৷

নৃবিজ্ঞান বিভাগের  অধ্যাপক ফরজানা ইসলাম ২০১৪ সালের মার্চে প্রথম দফা উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পান৷ গত বছর তাকে দ্বিতীয় দফায় নিয়োগ দেয়া হয়৷ তিনি ভিসি হওয়ার আগ পর্যন্ত তার আগের উপাচার্যকে সরানোর আন্দোলনে যুক্ত ছিলেন৷

এফএস/কেএম (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)

২৭ সেপ্টেম্বরের ছবিঘরটি দেখুন...

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়