অঘটন না কড়া পরিকল্পনা | খেলাধুলা | DW | 01.07.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ফুটবল

অঘটন না কড়া পরিকল্পনা

একে অঘটন বলার চেয়ে নীলনকশা বলাই ভালো৷ রুশ পরিকল্পনার কাছেই হেরেছে স্পেন৷ তাই আর্জেন্টিনা, পর্তুগালের পর দ্বিতীয় রাউন্ডের ঘরের পথ দেখেছে তারাও৷ পেনাল্টি শুটআউটে ৪-৩ গোলে জিতেছে রাশিয়া৷

এ যেন নার্ভের পরীক্ষা৷ শুটআউটের আগে ১২০ মিনিটে ৯০ শতাংশেরও বেশি সঠিক পাস৷ অথচ গোল করতে না পারা৷ রুশ শিবিরের যেন পরিকল্পনাই ছিল খেলাকে টাইব্রেকারে নিয়ে যাওয়া৷ কারণ সেখানে তাদের শক্তি শক্ত দেয়ালের মতো দাঁড়িয়ে থাকা গোলরক্ষক ইগোর আকিনফ্যিফ৷
সে কাজটা সফলভাবেই করলেন তিনি যখন ১২০ মিনিট শেষে খেলার স্কোরলাইনে ১-১ সমতা৷
টসে জিতে আগে শট নেবার সিদ্ধান্ত স্প্যানিশ অধিনায়ক রামোসের৷ সেই সিদ্ধান্তকে উড়ন্ত সূচনা এনে দেন দলটির কিংবদন্তী মিডফিল্ডার ইনিয়েস্তা৷ তাঁর শট বুঝতেই পারেননি আকিনফ্যীফ৷

Fußball WM 2018 Spanien vs Russland (Reuters/K. Pfaffenbach)

ইনিয়েস্তার শট


রাশিয়ান প্লেমেকার স্মলোভ নেন স্বাগতিকদের পক্ষে প্রথম শটটি৷ বলের অ্যাঙ্গেল ঠিকই বুঝে ফেলে সেদিকেই ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের তারকা গোলরক্ষক ডে গেয়া ৷ কিন্তু শেষ পর্যন্ত বলের গতির কাছে হেরে গেলেন৷
এরপর স্পেনের ডিফেন্ডার জেরার্ড পিকে সহজেই পরাস্ত করেন প্রতিপক্ষের গোলরক্ষককে৷ একইভাবে সফল হন রাশিয়ার ইগানশেভিচ৷ এরপরই প্রথম ধাক্কা খায় স্পেন৷ কোকে'র শটটি ঠেকিয়ে দেন আকিনফ্যিফ। কিন্তু রাশিয়ান তারকা গলোভিন ঠিকই পরাস্ত করেন ডে গেয়াকে৷ ফলে ৩-২ গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা৷ এরপর রামোস ও চেরিশেভ নিজ নিজ দলের পক্ষে গোল করলে স্পেনের স্ট্রাইকার আসপাসের সামনে গোল করার বিকল্প ছিল না৷ কিন্তু গোলরক্ষকে ফাঁকি দিয়ে তিনি মাঝ বরাবর শটও নেন৷ কিন্তু ডান দিকে ঝাঁপিয়ে পড়ে ভুল বুঝতে পেরে শূন্যে থেকেই পা দিয়ে বলের দিক পরিবর্তন করে দেন আকিনফ্যিফ৷ বনে যান রুশদের জয়ের নায়ক৷

Fußball WM 2018 Spanien vs Russland

রাশিয়ার জয়ের নায়ক আকিনফ্যিফ


ম্যাচের শেষ দিকে গ্রীষ্মের গরমে মস্কোর আকাশ থেকে পড়া বৃষ্টি যেন শুভবার্তা নিয়ে এসেছিল স্বাগতিকদের জন্য৷ ৮১ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতার লুঝনিকি স্টেডিয়ামটির গ্যালারি ছিল কানায় কানায় পূর্ণ৷
৫-৪-১ ফর্মেশনে খেলা রাশিয়া দল শুরু থেকেই যেন পন করে রেখেছিল আর যাই হোক প্রতিপক্ষকে গোল করতে দেয়া যাবে না৷ সঙ্গে চালাতে হবে পালটা আক্রমণ৷ তাই বল দখল সিংহভাগ লালনীল শিবিরে থাকলেও, নিয়ন্ত্রণ ছিল না৷ যদিও ইসকো'র নেতৃত্বে স্পেনের আক্রমণভাগের চাপে অনেকবারই নড়বড়ে হয়ে পড়েছিল রুশ ডিফেন্স, কিন্তু দলকে একাধিকবার বাঁচিয়ে দিয়েছেন সেই আকিনফ্যিফ৷
১২ মিনিটে প্রথম গোল পায় স্পেন৷ প্রতিপক্ষের ডিবক্সে ডান দিকে থেকে আসা একটি ক্রস প্রতিপক্ষের জালে ফেলার জন্য তৈরিই ছিলেন তিনি৷ কিন্তু ইগানশেভিচের সঙ্গে ধাক্কাধাক্কিতে দু'জনই গেলেন পড়ে৷ সেখানে ইগানশেভিচের পায়ের পেছন দিকে লেগে রুশ জাল ভেদ করে বল৷ বেচারা ইগানশেভিচ টেরই পাননি কীভাবে কী হয়ে গেল!

Fußball WM 2018 Spanien vs Russland

দ্বিতীয় রাউন্ডেই বিদায় ২০১০ বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়নদের


৩৮ মিনিটে স্প্যানিশ ডি বক্সে জেরার্ড পিকে'র উঁচু করা হতে বল লাগলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি৷ সেখান থেকে স্বাগতিকদের মুখে হাসি ফেরান স্ট্রাইকার জুবা৷
আক্রমণের ধার বাড়িয়ে ও সুযোগ তৈরি করেও পুরো ম্যাচে এরপর গোলের দেখা পায়নি স্পেন৷ রেফারির কিছু সিদ্ধান্তের জন্যও হয়ত আক্ষেপ থাকবে তাদের৷
তবে মোদ্দা কথা হলো, দ্বিতীয় রাউন্ডেই বিদায় নিতে হলো ২০১০-এর চ্যাম্পিয়নদের৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন