1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

৭৫ বছর পর ভুল স্বীকার করে ক্ষমা প্রার্থনা!

দৌড়ে প্রথম হয়েছিলেন তিনি৷ কিন্তু বিচারকদের রায়ে হতে হলো চতুর্থ৷ ১৯৩৮ সালের ঘটনা৷ ফিনল্যান্ডের অ্যাথলেটিক অ্যাসোসিয়েশন সেই ভুলের জন্য ক্ষমা চেয়েছে ৭৫ বছর পর৷

default

ফাইল ছবি

ইংরেজিতে একটি কথা আছে, ‘বেটার লেট, দ্যান নেভার'৷ ভালো কাজ একেবারে না হয়ে, একটু দেরিতে হওয়াও ভালো৷ এই যুক্তিতে প্রশংসা করাই যায় ফিনিশ অ্যামেচার অ্যাথলেটিক অ্যাসোসিয়েশন (এসইউএল)-কে৷ পৃথিবীর কত জায়গায় কত মানুষই তো কত রকমের অন্যায় করে ক্ষমা না চেয়ে উল্টো সগর্বে বুক ফুলিয়ে ঘোরে, এসইউএল তো তবু ক্ষমা চেয়েছে!

ফিনল্যান্ডে অলিম্পিক হয়েছিল ১৯৫২ সালে৷ তবে হেলসিঙ্কি অলিম্পিক স্টেডিয়ামের উদ্বোধন হয়েছিল ১৯৩৮ সালে৷ উদ্বোধন উপলক্ষ্যে আয়োজিত প্রতিযোগিতাতেই ঘটেছিল ঘটনাটা৷ ১০০ মিটার স্প্রিন্টে প্রথম হয়েছিলেন আব্রাহাম টোকাজিয়ের৷ কিন্তু বিচারকরা বিজয়ী হিসেবে ঘোষণা করেন আরে সাবোলানিয়েন-কে৷ আব্রাহাম টোকাজিয়ের ছিলেন ইহুদি৷ বিচারকদের বিবেচনায় তিনি হলেন চতুর্থ৷ ৭৫ বছর পর সেই ঘটনা আবার উঠে এসেছিল ফিনল্যান্ডের সংবাদ মাধ্যমে৷ এক ইহুদি ক্রীড়াবিদের প্রতি যে বড় রকমের অন্যায় হয়েছিল তা একটা ছবি ছেপে দেখিয়ে দেয়া হয়৷ সমালোচনার ঝড় ওঠে৷ সমালোচনাকে আমলে নিয়ে অবশেষে ক্ষমা চেয়েছে এসইউএল৷ এসইউএল-এর চেয়ারম্যান ভেসা হামাকর্পি এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘‘ফলাফলে যে কোনোরকমের কারচুপিই দুঃখজনক৷ তা খেলাধুলার মৌলিক চেতনার বিরুদ্ধে যায়৷ তাই ওই ঘটনায় যাঁরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তাঁদের কাছে আমি এসইউএল-এর পক্ষ থেকে ক্ষমা চাচ্ছি৷''

১৯৩৮ সালের ওই দিনে বিচারকদের ছবি দেখে সিদ্ধান্ত নেয়ার সুযোগ ছিল না৷ এমন পরিস্থিতিতে বড় বড় অনেক ভুলই এখন ক্রীড়া ইতিহাসের অংশ৷ ১৯৮৬ সালের ফুটবল বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে হাত দিয়ে গোল করেছিলেন ডিয়েগো মারাদোনা৷ সেই ম্যাচ জিতে শেষ পর্যন্ত বিশ্বকাপও জিতেছিল আর্জেন্টিনা৷ এমন ভুল আরো আছে ক্রীড়া ইতিহাসে৷ ফিনিশ অ্যামেচার অ্যাথলেটিক অ্যাসোসিয়েশনের এত আগের ভুলের জন্য ক্ষমা চাওয়া সেই ইতিহাসে এক উজ্জ্বল ব্যাতিক্রম৷

এসিবি/ডিজি (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়