1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

৬৮ বছর বয়সে আবার স্কুলে যাচ্ছেন ‘বাবা'

বয়স ৬৮ বছর৷ তাতে কী? শিক্ষা গ্রহণের তো কোনো বয়স হয় না! তাই নেপালের নিম্নবর্ণের মানুষ দুর্গা কামি দশম শ্রেণিতে ভর্তি হয়েছেন, নতুন করে শুরু করেছেন শিক্ষাজীবন৷

দলিত মানুষেরা পাথর ভাঙ্গছে

প্রতীকী ছবি

বয়স ও শ্রেণিবৈষম্য যে শিক্ষার ক্ষেত্রে কোনো বাধা নয়, তা আবারও প্রমাণ করছেন নেপালের সবচেয়ে বেশি বয়সের শিক্ষার্থী দুর্গা৷ ৬ সন্তানের জনক এবং আটজন নাতি নাতনির দাদা ভিডিও সাক্ষাৎকারে বলেছেন, মৃত্যুর আগে তিনি স্কুলের শিক্ষা শেষ করতে চান৷ দুর্গার জীবনযাপন কিন্তু সহজ ছিল না, কারণ, তিনি দলিত৷ পদে পদে তাঁকে নানা সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছে৷

তাঁর এই ভিডিওটি দেখা হয়েছে ৯১ হাজার বার৷ শেয়ার হয়েছে হাজারেরও বেশি বার৷ মন্তব্যে অনেকেই লিখেছেন, দুর্গার এই পদক্ষেপ অনেক মানুষকে অনুপ্রেরণা জোগাবে৷

স্ত্রীর মৃত্যুর পর একাকীত্ব দূর করতে দুর্গা আবারও স্কুলে যাওয়া শুরু করেন৷ একে দলিত, তার ওপর আবার দারিদ্যের চাপে লেখাপড়া চালিয়ে যেতে না পারা দুর্গা এখন শিক্ষক হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন৷ একটি লাঠি নিয়ে দীর্ঘ পথ হেঁটে তিনি রোজ স্কুলে যাতায়াত করেন৷ তাঁর এই পদক্ষেপ অনেক দলিতকেই শিক্ষা গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করবে বলে আশা করেন দুর্গা৷

দুর্গার সহপাঠীরা তাঁকে ‘বাবা' বলে ডাকে৷ বাড়িতে বিদ্যুৎ না থাকায় রাতে টর্চের আলোয় লেখাপড়া করেন ‍দুর্গা৷

তিনি আমৃত্যু লেখাপড়া চালিয়ে যেতে চান৷ দুর্গা আশা করছেন, তাঁকে দেখে আরও অনেকে উৎসাহ পাবেন এবং বয়সের বাধা কাটিয়ে শিক্ষাজীবন শুরু করবেন৷

এপিবি/এসিবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন