1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বাংলাদেশ

৫৬০টি পর্নো ওয়েবসাইট ব্লক করেছে বাংলাদেশ

বাংলাদেশের কর্তৃপক্ষ নৈতিকতা অভিযানের অংশ হিসেবে পাঁচশো'র বেশি পর্নোগ্রাফিক ওয়েবসাইট নিষিদ্ধ করেছে৷ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন এই তথ্য৷

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) জানিয়েছে, শিশুদের উপর কুপ্রভাবের কথা বিবেচনা করে স্থানীয় ইন্টারনেট সেবাদাতাদের পর্নোগ্রাফিক ওয়েবসাইট ব্লক করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে৷ বিটিআরসি'র মুখপাত্র সরোয়ার আলম লিখেছেন, ‘‘পর্নোগ্রাফির কুফল থেকে আমাদের শিশুদের এবং তরুণ প্রজন্মকে রক্ষায় আমরা পর্নো ওয়েবসাইটগুলো নিষিদ্ধ করছি৷''

তিনি বলেন, ‘‘আমাদের সংস্কৃতি এবং নৈতিক মূল্যবোধের উন্নয়নের অংশ হিসেবে এটা করা হচ্ছে৷ আমরা একটি কমিটি গঠন করেছিলাম যারা ৫৬০টি পর্নো সাইটের তালিকা তৈরি করেছে৷ এই কমিটি স্থানীয় আইএসপিদের সাইটগুলো ব্লক করতে বলেছে৷''

বাংলাদেশের ১৬০ মিলিয়ন অধিবাসীর মধ্যে এক তৃতীয়াংশের ইন্টারনেটে প্রবেশের সুযোগ রয়েছে যাদের মধ্যে কয়েক মিলিয়ন শিশু-কিশোরও রয়েছে৷ স্মার্টফোন, ল্যাপটপ এবং ট্যাবলেটে অনেকেই এখন ইন্টারনেট ব্যবহার করে৷ এর আগে বাংলাদেশের টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম এক ফেসবুক পোস্টে জানান, ‘‘বাইরে থেকে জেনারেটেড বা ইউটিউবে এসব কন্টেন্ট পুরোপুরি ব্লক করা যায় না- যদি সত্তর ভাগও করা যায়, মানুষ উপকৃত হবে৷''

‘তরুণ প্রজন্মকে রক্ষায় আমরা পর্নো ওয়েবসাইটগুলো নিষিদ্ধ করছি’

‘তরুণ প্রজন্মকে রক্ষায় আমরা পর্নো ওয়েবসাইটগুলো নিষিদ্ধ করছি’

তিনি লিখেছেন, একাধিক পত্রিকার খবরে দেখলাম, দেশের জনগোষ্ঠীর একটা অংশ পর্নো-আসক্তির কারণে নানা অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে৷'' তবে পর্নো সাইট নিষিদ্ধের সমালোচনা করে ফেসবুকে অনেকে মন্তব্য করেছেন৷ ফ্রিল্যান্স ফটোগ্রাফার হাসান মুরাদ লিখেছেন, ‘‘...এতদিন জানতাম এই দেশের অধিকাংশ মানুষ যৌনতা নিয়ে তেমন কোনো জ্ঞান রাখে না এবং ছোট কাল থেকে পারিবারিক ও সামাজিক কুসংস্কারে প্রবাহিত হয়ে এক ধরণের অবদমিত যৌন ধারনা ও ভাবনা নিয়ে বড় হয়, কিন্তু এখন দেখি রাষ্ট্র নিজেই যৌন বিকারগ্রস্থ! শরীরের রোগের উপসর্গ কি সেটা ভাল করে জানার চেষ্টা না করে আপনি যতই চিকিৎসা করেন না কেন তাতে রোগ সারবে না বরং ছড়াবে...!!''

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক বি এম মইনুল হোসেন ঠিক কী প্রক্রিয়ায় এবং কী ধরনের তথ্যের ভিত্তিতে পর্নো সাইট বন্ধের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন৷ তিনি লিখেছেন, ‘‘...পর্নো একটা সমস্যা সেটাতে সন্দেহ নেই৷ কিন্তু, সেটাই এখন আমাদের প্রায়োরিটি কিনা সেটা ভেবে দেখার বিষয় আছে৷ যে সিদ্ধান্তগুলো নেয়া হচ্ছে সেগুলো নিয়ে বিশদভাবে পড়ে দেখার সুযোগ আমার হয়নি, তাই মন্তব্য করছি না৷ কিন্তু, এটা নিশ্চিত যে, সিদ্ধান্তগুলো ড্যাটা ড্রিভেন না৷''

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়