1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ভাইরাল ভিডিও

৫০ বছর পর বাড়িতে ফিরলেন তিনি!

চীনের এক ব্যক্তি ৫০ বছর পর ভারত থেকে দেশে ফিরেছেন৷ দেশের মাটি ছুঁয়েছেন ৫০ বছর পর, আর এই দীর্ঘ সময় পর দেখা হয়েছে  প্রিয় স্বজনদের সঙ্গে৷ তাঁদের পুনর্মিলনের এই আবেগঘন ভিডিওটি সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেছে৷

১৯৬৩ সালে ওয়াং কি নামের ঐ চীনা সৈনিক পথ হারিয়ে সীমান্ত পার হয়ে ভারতে ঢুকে পড়েছিলেন৷ কিন্তু তার কাছে কোনো কাগজ না থাকায় ভারতীয় সেনারা তাঁকে আটক করে৷ চীনের সেনাবাহিনীতে থাকাকালীন রাস্তা তৈরির কাজ করছিলেন৷ কাজ করতে করতে এক সময় রাস্তা হারিয়ে ফেলেন তিনি, এমন সময় রেডক্রসের একটি ভ্যান দেখে সেখানে সাহায্য চাইলে তাঁরা ভারতীয় সেনাবাহিনীর হাতে তুলে দেন তাঁকে৷ এরপরের ৭ বছর বিভিন্ন জেলখানায় কেটেছে তাঁর৷ ১৯৬৯ সালে মুক্তি দেয়া হয়৷ পুলিশ মধ্য প্রদেশের একটি গ্রামে নিয়ে যায় তাঁকে৷ কিন্তু তাঁর ভারত ছাড়ার উপর নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকে৷

এরপর গমের একটি কারখানায় কাজ শুরু করেন তিনি, বিয়ে করেন স্থানীয় এক নারীকে এবং নিজের পরিবার গড়ে তোলেন৷ প্রতিবেশীরা জানান, তাঁদের জীবনে সব সময় অভাব লেগেই ছিল৷

অবশেষে চীনা কূটনীতিকদের সহায়তায় ওয়াং ৫০ বছর পর মাতৃভূমিতে যাওয়ার সুযোগ পেলেন৷ বিমানটি যখন বেইজিং বিমানবন্দরে পৌঁছায়, তখন তিনি তাঁর স্বজনদের সঙ্গে প্রথমবারের মতো দেখা করেন৷ সেখানে এক আবেগঘন পরিবেশ সৃষ্টি হয়৷ এরপর তাঁর নিজের শহর সিয়ানইয়াং-এ নিয়ে যাওয়া হলে সেখানকার অধিবাসীরা তাঁকে ভালোবাসায় বরণ করে নেয়৷ ব্যানারে লেখা ছিল, ‘‘বাড়িতে স্বাগত সৈনিক, এক ভয়ঙ্কর দীর্ঘ পথ পাড়ি দিতে হলো তোমাকে৷''

শুক্রবার রাতে দিল্লি বিমানবন্দর থেকে রওনা হন তিনি৷ সঙ্গে ছিলেন তাঁর সন্তানরা৷ চীনা কর্তৃপক্ষ বিমানে ওঠার আগে দিল্লিতে তাঁর সন্তানদের কেনাকাটা করিয়েছেন৷ তাঁর পুরো পরিবারকে ভারতীয় পাসপোর্ট দেয়া হয়েছে, যাতে তারা বাবা'কে সঙ্গ দিতে পারে৷ তবে ওয়াংয়ের স্ত্রী অসুস্থ থাকায় সঙ্গে যেতে পারেননি৷

 

এটা এখনো নিশ্চিত না যে ওয়াং ভারতে ফিরবেন কিনা৷ তাঁকে কখনো ভারতের নাগরিকত্ব দেয়া হয়নি৷ ২০১৩ সালে তাঁকে চাইনিজ পাসপোর্ট দেয়া হয়৷ 

এপিবি/এসিবি (এপি, এএফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়