1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

৩৫ বছর পরে আবারো গুটি বসন্ত

গুটি বসন্ত – এক ভয়াবহ রোগ৷ ১৯৭৯ সালের আগে একাধিকবার মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়েছিল এই রোগ, যাতে মৃত্যু ছিল প্রায় অবধারিত৷ প্রায় ৩৫ বছর পর, যুক্তরাষ্ট্রের বিজ্ঞানীরা আবারো এই রোগের জীবাণু সন্ধান পেয়েছেন৷

সব ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ এবং প্রতিরোধ কেন্দ্র সিডিসি-এর প্রধান আগামী সপ্তাহে মার্কিন কংগ্রেসে এটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানাবেন৷ আর সিডিসি পরিচালক টম ফ্রিডেন ১৬ই জুলাই মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদে এর নিরাপত্তা ও প্রতিরোধ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবেন৷

গত সপ্তাহে মেরিল্যান্ডে ‘খাদ্য ও মাদক প্রশাসন' এফডিএ-এর একটি গুদাম ঘর পরিষ্কারের সময় কর্মীরা কয়েকটি শিশি খুঁজে পান৷ ঐ শিশিগুলোতে গুটি বসন্তের জীবাণু কথা লেখা ছিল৷ শিশিতে লেখা তারিখ থেকে জানা গেছে যে, ৫০-এর দশকে সেই সব শিশিতে ঐ জীবানু রাখা হয়েছিল৷

Pocken Virus Mikroskop

অনুবীক্ষণ যন্ত্রে গুটি বসন্তের জীবাণু

আটলান্টায় সিডিসি-র কেন্দ্রীয় গবেষণাগারে কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে রাখা হয়েছে শিশিগুলো৷ সিডিসি জানায়, ‘‘আমাদের জানা মতে কোনো শিশি ভাঙেনি, তাই জীবানু ছড়িয়ে পড়ার ভয় নেই৷'' এমনকি এখনো পর্যন্ত পরিচ্ছন্ন কর্মী বা গবেষণাগারের কর্মীরা কেউ কোনো সংক্রমণের শিকার হননি বলেও জানান তারা৷ বর্তমানে টিস্যু কালচারের মাধ্যমে এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করছেন গবেষকরা৷ পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে নমুনাগুলো ধ্বংস করে ফেলা হবে বলে জানান তাঁরা৷

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছে৷ নমুনাগুলো যাতে ঠিকমত ধ্বংস করা হয় তা তদারকি করবে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি৷

গুটি বসন্ত ১৯৭৯ সালে পৃথিবী থেকে বিদায় নিয়েছিল৷ সাধারণত গুটি বসন্ত একজন মানুষের সমস্ত শরীরে হয় এবং এটি শরীরে পুঁজ বা ক্ষত সৃষ্টি করে৷ এর অসহ্য ব্যথা মানুষের সহ্যের প্রায় বাইরে চলে যায়৷ এ রোগে মৃত্যুর হারও খুব বেশি৷

এপিবি/ডিজি (এপি, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন