1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

৩২ বছর পর আবার ভারত-পাকিস্তান মুখোমুখি

এ সময়ে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পরস্পরকে অনেকবারই সামনে পেয়েছে, তবে এশিয়ান গেমস হকির ফাইনালে এবারই প্রথম৷ ১৯৮২-তে ভারতের মাটিতেই ভারতকে ৭-১ গোলে বিধ্বস্ত করেছিল পাকিস্তান৷ কি হবে এবারের ফাইনালে?

Hockey Pakistan Lahore Team Spieler und Trainer Nationales Hockeystadion

১৯৮২ সালে ভারতকে ৭-১ গোলে হারিয়েছিল পাকিস্তান (ফাইল ফটো)

লড়াইটা যে খেলায় আর যে আসরেই হোক, ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে জয়-পরাজয়ের চেয়ে বড় হয়ে ওঠে ‘সম্মান'৷ সে হিসেবে ৩২ বছর আগে দিল্লি এশিয়াডে ঘোরতর ‘অসম্মান' হয়েছিল ভারতীয়দের৷ তখনকার প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর উপস্থিতিতে ৭-১ গোলের পরাজয়- এমন স্মৃতি কি ভোলা যায়!

ভারত তা ভোলেনি৷ ১৯৯০ সালের বেইজিং এশিয়াডে বদলা নেয়া হয়তো সম্ভব হতো সে আসরে ‘ফাইনাল' বলে কিছু থাকলে৷ কিন্তু মজার ব্যাপার, সেবার প্রতিযোগিতা হয়েছে রাউন্ড রবিন লিগ পদ্ধতিতে৷ তাই বেশি পয়েন্ট যার, সে-ই সেরা- এ নিয়মে পাকিস্তান পেয়ে যায় সোনার পদক আর ঠিক পেছনে থাকায় ভারতের জোটে রুপা

সেই আসরটি ‘ফাইনালহীন' ছিল বলে ঠিক ৩২ বছর পর এবারের ইনচন এশিয়ান গেমস ফাইনালে ভারত আবার পাচ্ছে পাকিস্তানকে৷ বৃহস্পতিবার, অর্থাৎ আজই ফাইনাল৷ বিশ্বজুড়ে কোটি কোটি চোখ যে ম্যাচের সময় টেলিভিশনের পর্দায় উৎকণ্ঠা নিয়ে চোখ রাখবে তাতে আর সন্দেহ কী!

Flash-Galerie Sport Jahresrückblick 2010

এশিয়ান গেমস ফাইনালে ভারত আবার পাচ্ছে পাকিস্তানকে (ফাইল ফটো)

এবারের ফাইনালেও পাকিস্তানই ফেবারিট৷ টুর্নামেন্টের প্রাথমিক পর্বে ভারতকে ২-১ গোলে হারিয়েছে তারা৷ তাছাড়া এশিয়ান গেমস হকির ফাইনালে ‘ধ্যান চাঁদের দেশ' ভারতের সাফল্য মাত্র দুটি৷ ১৯৬৬ আর ১৯৯৮ সালের আসর দুটি ছাড়া একবারও এশিয়ান গেমসে সোনা জেতেনি তারা৷ বিশ্বের সবেচেয়ে বড় ক্রীড়া আসর অলিম্পিকে যারা আটবার সোনা জিতেছে তাদের জন্য এশিয়াডে মাত্র দুবারের সাফল্য আর এমন কী!

এশিয়াডে পাকিস্তান দারুণ সফল৷ মোট আটবার স্বর্ণপদক গলায় ঝুলিয়েছে তারা৷ এবার নবম স্বর্ণপদকের অপেক্ষা৷ পাকিস্তানের কোচ শাহনাজ শেখ অবশ্য ভারতকে হারানো সহজ মনে করছেন না৷ বিশেষ করে সেমিফাইনালে মালয়েশিয়ার বিপক্ষে স্ট্রাইকারদের ব্যর্থতা খুব চিন্তায় ফেলেছে তাঁকে৷ সেই ম্যাচ শেষ হয়েছিল গোলশূন্যভাবে৷ টাইব্রেকারে গোলরক্ষক ইমরান বাট প্রাচীরের মতো দাঁড়িয়ে না গেলে ম্যাচের ফলাফল অন্যরকমও হতে পারতো৷

ভারতের জন্য সেমিফাইনালই হতে পারে বড় প্রেরণা৷ স্বাগতিক দক্ষিণ কোরিয়াকে ১-০ গোলে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে তারা৷ ফাইনালে যে জিতবে, সোনার পদক তো জুটবেই, আরো থাকছে রিও ডি জেনিরো অলিম্পিকে সরাসরি অংশ নিতে পারার হাতছানি৷ এমন ম্যাচে জয় কে না চায়? কে চায় রুপার পদক নিয়ে অলিম্পিক হকির বাছাইপর্বের জন্য অপেক্ষা করতে!

এসিবি/জেডএইচ (এএফপি)