1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

২০২২ সালে অলিম্পিক আয়োজনের বিপক্ষে মিউনিখ

২০২২ সালে শীতকালীন অলিম্পিকে মিউনিখ আয়োজক হবে কিনা – এ বিষয়ে ভোটাভুটি হয়েছে রবিবার৷ ভোটে দেখা গেছে, মিউনিখবাসী অলিম্পিক আয়োজনের বিপক্ষে৷ অর্থাৎ, না ভোটের পক্ষে মত দিয়েছেন বেশিরভাগ অধিবাসীই৷

শীতকালীন অলিম্পিক আয়োজনের প্রার্থী হতে যেখানে দরকার ছিল সংখ্যাগরিষ্ঠের ভোট, সেখানে সমর্থন গেল না ভোটের পক্ষে৷ রবিবার গণভোটের মাধ্যমে জনগণের কাছ থেকে ২০২২ সালের শীতকালীন অলিম্পিকের আবেদনের জন্য অনুমোদন চাওয়া হলে ‘না' ভোট পড়ে৷

German athletes present the official uniforms of the German Olympic team for the Sochi 2014 Winter Olympic Games in Duesseldorf October 1, 2013. REUTERS/Ina Fassbender (GERMANY - Tags: SPORT OLYMPICS FASHION)

২০১৪ সালে সোচি শীতকালীন অলিম্পিকের জার্মান ‘টিম’

ইন্টারন্যাশনাল স্কি ফেডারেশন এফআইএস-এর প্রেসিডেন্ট সোমবার জানিয়েছেন, মিউনিখবাসীর এই ভোটই বলে দিচ্ছে যে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি আইওসি-র উপর তাঁদের আস্থা নেই৷ প্রেসিডেন্ট গিয়ান ফ্রাঙ্গো কাসপার বার্তা সংস্থা ডিপিএ-কে বলেছেন, রবিবারের গণভোটে না ভোটের আধিক্যই এটা প্রমাণ করে৷ তিনি বলেন, ২০১৪ সালে সোচি শীতকালীন অলিম্পিক এবং ২০২২ সালে কাতারের ফুটবল বিশ্বকাপ অনুষ্ঠানের আয়োজন নিয়ে নিয়মিত শিরোনাম ও খবরও এ ব্যাপারে তাঁদের মনে কোনো আগ্রহ তৈরি করেনি৷

কাসপারের মতে, আয়োজনটা কোন দেশে হচ্ছে বা স্বাগতিক দেশ কোনটি – সেটা মূখ্য বিষয় না হয়ে সেখানকার নেতিবাচক দিকগুলো মূখ্য হয়ে উঠেছে, যা তাঁদের মনে ভীতির সঞ্চার করছে৷

অলিম্পিকের ভেন্যু হিসেবে মিউনিখের যে চারটি জায়গার নাম প্রস্তাব করার কথা, প্রতিটি অঞ্চলের অধিবাসীরাই ‘না' ভোট দিয়েছেন৷ এই চারটি জায়গা হলো মিউনিখ শহর, গার্মিশ-পার্টেনকির্শেন, ট্রাউনস্টাইন এবং ব্যার্চটেসগাডেন্যার৷

এর আগে ২০১৮ সালে শীতকালীন অলিম্পিকের আয়োজনের জন্য মিউনিখ আবেদন করলেও সেবার জেতে দক্ষিণ কোরিয়ার পিয়ংচাং শহরটি৷ ২০২২ অলিম্পিক আয়োজনের প্রার্থী হতে আবেদন করবে নরওয়ের রাজধানী অসলো, ইউক্রেনীয় শহর লভিভ, বেইজিং-এর অদূরে ঝানজিয়াকু, কাজাখস্তানের আলমাতি এবং পোল্যান্ডের ক্রাকাও৷

বৃহস্পতিবারের মধ্যে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির কাছে চূড়ান্ত নামসহ আবেদন পেশ করতে হবে৷ ২০১৫ সালে কুয়ালালামপুরে এ ব্যাপারে ভোট হবে৷

এপিবি/ডিজি (ডিপিএ/এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন