1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

১০০ গার্মেন্টস বন্ধ, মজুরি মানছেন না শ্রমিকরা

বাংলাদেশের পোশাক শিল্পে সর্বনিম্ন মজুরি ৫,৩০০ টাকা মানতে চাইছেন না শ্রমিকরা৷ তাঁদের দাবি, সর্বনিম্ন মজুরি হতে হবে ৮,০০০ টাকা৷ এই দাবিতে কয়েকদিনের বিক্ষোভের পর, সোমবার সাভার আশুলিয়ার ১০০ পোশাক কারখানা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে৷

বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শিল্পে ২০১০ সালে সর্বনিম্ন মজুরি নির্ধারণ করা হয় ৩,০০০ টাকা৷ এরপর গত নভেম্বর মাসে তাজরীন ফ্যাশানস-এ আগুন এবং এপ্রিলে রানা প্লাজা ধসে প্রায় ১,৩০০ শ্রমিকের মৃত্যুর ঘটনায় পোশাক কারখানার শ্রমিকদের নিরপত্তা এবং মজুরি নিয়ে প্রশ্ন ওঠে৷ বাংলাদেশের পোশাক শিল্প দেশে ও দেশের বাইরে ব্যাপক চাপের মুখে পড়ে৷ শেষ পর্যন্ত সরকার তিন মাস আগে পোশাক শ্রমিকদের জন্য মজুরি বোর্ড গঠন করে৷ বোর্ড গত সপ্তাহে শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি ৫,৩০০ টাকা নির্ধারণ করে৷ এই মজুরি মালিক-শ্রমিক কেউই প্রথমে মেনে নেননি৷ কিন্তু শেষ পর্যন্ত চলতি সপ্তাহে মালিকরা এই মজুরি মেনে নিলেও, শ্রমিকরা অনড় রয়েছেন৷ তাঁদের দাবি, সর্বনিম্ন মজুরি হতে হবে ৮,১১৪ টাকা৷

Garments workers in Bangladesh are facing measurable problems in Bangladesh. After the building collapse in Savar, near Dhaka International organizations are pressuring Government to provide more legal support to Garments workers. DW/Harun Ur Rashid Swapan, Dhaka via: DW/ Arafatul Islam

বাংলাদেশের পোশাক শ্রমিকরা...

এই দাবিতেই তাঁরা সোমবার সাভার এবং আশুলিয়া এলাকায় পোশাক কারখানার কাজ বন্ধ করে ভাঙচুর চালায়৷ ভাঙচুরের সময় ৩০ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে৷ এই পরিস্থিতিতে মালিকরা ঐ এলাকার ১০০টি পোশাক কারখানা বন্ধ করে দিয়েছেন৷ ক্ষতিগ্রস্ত একটি পোশাক কারখানা আলিফ ভিলেজে-র মালিক আলতাফ হোসেন ডয়চে ভেলেকে জানান, তাঁরা কারখানার নিরাপত্তা না পেলে উত্‍পাদন অব্যাহত রাখতে পারবেন না৷ তিনি বলেন, নতুন ঘোষিত মজুরিতে শ্রমিকদের ৭৭ ভাগ বেতন বেড়েছে৷ তারপরও শ্রমিকরা তুষ্ট না হলে তাঁদের আর করার কিছু নেই৷ কারণ ক্রেতারা একটি নির্দিষ্ট মূল্যে তাঁদের কাছ থেকে পোশাক কেনেন৷ এর বেশি মজুরি দিলে তাঁদের পক্ষে ব্যবসা চালানো সম্ভব হবে না৷



অন্যদিকে আন্দোলনকারী শ্রমিক ফেডারেশনের সাভার আশুলিয়া অঞ্চলের নেতা মো. ইব্রাহিম ডয়চে ভেলেকে জানান, শ্রমিকদের সর্বনিম্ন মজুরি নির্ধারণ করতে হবে বর্তমান বাজার দর এবং জীবনযাত্রার ব্যয় হিসাব করে৷ তাঁর কথা, মালিকরা অধিক মুনাফার লোভে শ্রমিকদের ন্যায্য মজুরি দিতে চান না৷ তিনি বলেন, সিপিডি এবং নিরপেক্ষ গবেষকরাও মনে করেন যে, ন্যূনতম মজুরি ৮,০০০ টাকা হওয়া উচিত৷

অপরদিকে পোশাক কারখানার মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ-র সহ সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান ডয়চে ভেলেকে বলেন, একটি চক্র বাংলাদেশের পোশাক খাতকে ধ্বংসের ষড়যন্ত্র করছে৷ তারাই পোশাক কারখানায় ভাঙচুর এবং অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করছে৷ তিনি বলেন, নতুন মজুরি দিতেই মালিকদের হিমশিম খেতে হবে৷ তবে গার্মেন্টস শ্রমিক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক সিরাজুল ইসলাম ডয়চে ভেলেকে বলেন, নতুন মজুরিতে শ্রমিকদের জীবনধারণ সম্ভব নয়৷ মালিকরা ভালো উত্‍পাদন চাইলে কমপক্ষে ৮,০০০ টাকা বেতন দিতে হবে৷

বাংলাদেশ বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম পোশাক রপ্তানিকারক দেশ৷ রপ্তানি আয়ের প্রায় ৮০ ভাগই আসে এই খাত থেকে৷ কিন্তু গত কয়েক মাস ধরে এই খাত চাপের মুখে রয়েছে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়