1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

হেলমুট কোল শেষ শয্যায় শায়িত

জার্মানির সদ্যপ্রয়াত সাবেক চ্যান্সেলর হেলমুট কোলকে স্পায়ার শহরে সমাহিত করা হয়েছে৷ এর আগে স্পায়ার ক্যাথিড্রালে কোলের সম্মানে ‘রিকুইয়েম মাস’ অনুষ্ঠিত হয়৷

জার্মানির পুনরেকত্রীকরণের চ্যান্সেলর হিসেবে পরিচিত হেলমুট কোলকে শনিবার সকালে স্ট্রাসবুর্গের ইউরোপীয় সংসদে সম্মান জানানো হয়৷ সেইসময় সেখানে জার্মানির প্রেসিডেন্ট ও চ্যান্সেলর সহ জার্মান মন্ত্রিসভা ও সংসদের কয়েকজন সদস্য উপস্থিত ছিলেন৷ এছাড়া উপস্থিত ছিলেন ইইউ-র ১৪ জন বর্তমান সরকার প্রধান সহ ইইউ-র শীর্ষ নেতৃবৃন্দ ও সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিন্টন৷ রাশিয়ার প্রতিনিধি হিসেবে অনুষ্ঠানে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভ৷

স্ট্রাসবুর্গে অনুষ্ঠান শেষে হেলিকপ্টারে করে কোলের কফিন প্রথমে জার্মানিতে তাঁর জন্মস্থান ল্যুডভিগসহাফেনে নিয়ে যাওয়া হয়৷ সেই সময় কোলের কফিন জার্মান পতাকা দিয়ে মোড়ানো ছিল৷ স্ট্রাসবুর্গের অনুষ্ঠানে ব্যবহার করা হয়েছিল ইইউ-র পতাকা৷

ল্যুডভিগসহাফেনে শেষ শ্রদ্ধা জানানোর পর কোলের কফিন জাহাজে করে রাইন নদী দিয়ে স্পায়ার ক্যাথিড্রালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ সেই সময় রাস্তা ও রাইনের ধারে দাঁড়িয়ে অনেক মানুষ কোলকে শেষ বিদায় জানান৷

স্পায়ার ক্যাথিড্রালে ‘রিকুইয়েম মাস’ (মৃত ব্যক্তির আত্মার সদগতির উদ্দেশ্যে নিবেদিত প্রার্থনা সংগীত) অনুষ্ঠিত হয়৷ সেই সময় বিশপ কার্ল-হাইনৎস ভিজেমান বলেন, কোল ছিলেন একজন ‘সত্যিকারের মহান স্টেটসম্যান’৷ এই অনুষ্ঠানে শীর্ষ পর্যায়ের অনেক ব্যক্তির উপস্থিতি জার্মানি ও ইউরোপে কোলের গুরুত্বপূর্ণ অর্জনেরই স্বীকৃতি বলে মন্তব্য করেন তিনি৷ স্পায়ার ক্যাথিড্রালের অনুষ্ঠানেও সাবেক ও বর্তমান অনেক বিশ্ব নেতা অংশ নেন৷ জার্মান প্রেসিডেন্ট ফ্রাংক ভাল্টার স্টাইনমায়ার ও চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল ছাড়াও ছিলেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিন্টন ও ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট জ্যঁ-ক্লোদ ইয়ুংকার৷ কোলের দ্বিতীয় স্ত্রী মাইকে কোল-রিশটার ক্লিন্টন ও ইয়ুংকারের মাঝে বসেছিলেন৷

ভিডিও দেখুন 01:58

কোলকে ইতিহাস কিভাবে স্মরণ করবে?

মাস-এর শেষ পর্যায়ে ক্যাথিড্রালের ‘এম্পেরর বেল’ থেকে ঘণ্টাধ্বনি বাজানো হয়৷ ঐ ক্যাথিড্রালে সমাহিত থাকা আট রোমান সম্রাটের নামে ঐ বেলটির নামকরণ করা হয়েছে৷ ঘণ্টাধ্বনি শেষে ক্যাথিড্রাল থেকে কফিন বের করে বাইরে সামরিক মর্যাদায় কোলকে সম্মান জানানো হয়৷

এরপর ক্যাথিড্রাল থেকে প্রায় দেড় কিলোমিটার দূরে অবস্থিত আডেনাওয়ার পার্কের কবরস্থানে কোলকে সমাহিত করা হয়৷ সেই সময় শুধু পরিবারের কয়েকজন ঘনিষ্ঠ সদস্য উপস্থিত ছিলেন৷

পুলিশ বলছে, ল্যুডভিগসহাফেন থেকে স্পায়ারে নিয়ে কোলের কফিন নিয়ে যাওয়ার সময় নিরাপত্তা দিতে প্রায় তিন হাজার পুলিশ মোতায়েন ছিল৷ স্পায়ারে ক্যাথিড্রালের ভেতরের অনুষ্ঠান দেখাতে বাইরে একটি বিশাল টিভি স্ক্রিন বসানো হয়েছিল৷

জেডএইচ/ডিজি (ডিপিএ, ইপিডি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়