1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

হিলারি দোটানায়, জেব বাজিমাত করতে পারেন

হোয়াইট হাউসের গদির লড়াই এর মধ্যেই শুরু হয়ে গেছে, যদিও ভোটপর্ব অনুষ্ঠিত হবে ২০১৬ সালের নভেম্বর মাসে৷ ডেমোক্র্যাটিক শিবিরে হিলারি ক্লিন্টন এগিয়ে থাকলেও জেব বুশের পাল্লাভারি বলে মনে করেন গ্রেহেম লুকাস৷

আগামী বছরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের লড়াইয়ে নামার সূচনা হিলারি ক্লিন্টন ও জেব বুশ – কারও জন্যই তেমন ভালো হয়নি৷ দু'জনকেই নার্ভাস দেখাচ্ছে৷ দেখে মনে হচ্ছে উপদেষ্টারা তাঁদের ভালো করে শিখিয়ে-পড়িয়ে প্রস্তুত করেছেন৷ অন্যদের লেখা ভাষণ তাঁরা অক্ষরে-অক্ষরে পড়ে শোনাচ্ছেন৷ অবশ্যই অনেকটা পথ চলা বাকি৷ আধুনিক যুগে অ্যামেরিকার দুই বিখ্যাত রাজনৈতিক বংশের এই দুই প্রার্থীকে সবার আগে নিজ নিজ দলের মনোনয়ন পেতে হবে৷ প্রাইমারি পর্যায়ে দলের বাকি প্রার্থীদের জোরালো মোকাবিলা করতে হবে৷ তাঁরা নিজ নিজ দলের চূড়ান্ত মনোনয়ন পেলে তবেই এই দুই পরিবারের সরাসরি সংঘাতের প্রশ্ন উঠবে৷

Jeb Bush Vorwahlkampf Präsidentschaftswahlen

জেব বুশ

বুশ বংশের ঝুলিতে দু'জন এবং ক্লিন্টন বংশের ঝুলিতে একজন প্রেসিডেন্ট রয়েছেন৷ ১৯৯০-এর দশকের বিপুল জনপ্রিয় প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিন্টন স্ত্রী হিলারির প্রচার অভিযানে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবেন – এটা ধরে নেওয়া যায়৷ অন্যদিকে আফগানিস্তান ও ইরাক যুদ্ধের স্থপতি জর্জ ডাব্লিউ বুশ অত্যন্ত বিতর্কিত এক চরিত্র৷ জেব বুশ-এর বাবা জর্জ ১৯৮৮ থেকে ১৯৯২ সাল পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট থাকলেও তিনি রোনাল্ড রেগান-এর ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবেই বেশি পরিচিত৷ অর্থাৎ জনমানসে তাঁর নিজস্ব কোনো পরিচয় নেই৷ ইরাক যুদ্ধের দুই বছর পর ১৯৯২ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বিল ক্লিন্টনের হাতে পরাজয়ের ফলে জর্জ বুশ অনেকটা অখ্যাত রয়ে গেছেন৷ ফলে ছেলে জেব-এর প্রচার অভিযানে তাঁর কারণে কোনো ক্ষতির সম্ভাবনা নেই৷

Lucas Grahame Kommentarbild App

গ্রেহেম লুকাস, ডয়চে ভেলে

তবে মানুষ নেতা নির্বাচনের সময় অতীতের দিকে বেশি তাকিয়ে দেখে না৷ মানুষ তার পকেটের জোর দেখে, চাকুরির বাজারে সুযোগের সম্ভাবনা দেখে, জীবনযাত্রার মান নিয়ে ভাবে৷ ১৯৯২ সালে বিল ক্লিন্টন নিজের প্রচার অভিযানের কৌশল সম্পর্কে উপদেষ্টাদের সঙ্গে আলোচনার সময় একটা মূল্যবান কথা বলেছিলেন – ‘‘ইটস দ্য ইকোনমি স্টুপিড'' – অর্থাৎ আসল কথা হলো অর্থনীতি৷ ফার্স্ট লেডি হিসেবে হিলারি যথেষ্ট প্রভাবশালী ছিলেন৷ বারাক ওবামার প্রথম কার্যকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবেও তিনি ভালো কাজ করেছেন৷ কিন্তু তিনি কখনো কোনো সরকারের নেতৃত্ব দেন নি বা কোনো বড় অর্থনীতির প্রয়োজন নিয়ে কাজ করেননি৷ প্রথম নারী হিসেবে দেশের প্রেসিডেন্ট হবার সম্ভাবনাও তাঁকে বেশি সাহায্য করবে বলে মনে হয় না৷ ২০০৮ সালে ওবামার বিরুদ্ধে প্রতিযোগিতার সময়ও সেই আবেগ কাজ করেনি৷ তার উপর তাঁর ডেমোক্র্যাটিক দল সম্প্রতি আরও বামঘেঁষা হয়ে পড়েছে৷ প্রচার অভিযানে তাঁর প্রথম ভাষণ শুনলে মনে হবে, দলের মনোনয়ন পেতে তিনি নিজেও বাম রাজনীতির দিকে এগোনোর পরিকল্পনা করছেন৷ এর যথেষ্ট কারণও রয়েছে৷ গবেষণার ফল অনুযায়ী কোনো প্রার্থী বিদায়ী প্রেসিডেন্টের সমর্থকদের উপর নির্ভর করলে আগামী বছরে ৪ শতাংশ পর্যন্ত ভোট হারাতে পারেন৷ অর্থাৎ ক্লিন্টনকে ওবামার সমর্থকদের উপর নির্ভর করলে চলবে না৷ কৃষ্ণাঙ্গ, ল্যাটিনো ও উদারপন্থিদের বৃত্তের বাইরেও তাঁকে সমর্থন খুঁজতে হবে৷ যেমন শ্রমিক সংগঠন৷ এ কারণে হিলারি ওবামার পরিকল্পিত ট্রান্স-অ্যাটলান্টিক সহযোগিতার সমালোচনা করেছেন৷ বামপন্থি শিবিরের অনেকে মনে করেন, এর ফলে অ্যামেরিকায় অনেকে চাকুরি হারাবে৷ এই প্রেক্ষাপটে হিলারি ক্লিন্টন বলেছেন, সমৃদ্ধি ও গণতন্ত্র সব মার্কিন নাগরিকের আওতায় আনতে হবে৷ অন্যদিকে তিনি আবার মধ্যপন্থিদেরও উপেক্ষা করতে পারেন না, কারণ নির্বাচনে জয়-পরাজয় অনেকটা তাদের উপর নির্ভর করে৷ এটাই তাঁর উভয়-সংকট৷

অন্যদিকে জেব বুশ ফ্লোরিডা রাজ্যের অত্যন্ত সফল গভর্নর হিসেবে পরিচিত৷ ১৯৯৯ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত দু'টি কার্যকালে তিনি রাজ্যের কোষাগার বৃদ্ধি ও শিক্ষাক্ষেত্রে যথেষ্ট অবদান রেখেছেন৷ ভাই জর্জ ডাব্লিউ বুশ প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন তিনি যথেষ্ট দূরত্ব বজায় রেখেছেন৷ ২০০৩ সালের ইরাক যুদ্ধের সময় ভাইয়ের জনপ্রিয়তা কমে যাবার সময় জেব মাথা নীচু রেখেছিলেন৷ প্রচার অভিযানের সূচনার সময় তিনি অবশ্য নিজের পরিবারকে এড়িয়ে যাননি৷ বাবা-মাকেও তাতে শামিল করেছেন তিনি৷ সবচেয়ে বড় বিষয় হলো, তিনিই সম্ভবত রিপাবলিকান দলের একমাত্র প্রার্থী, যিনি সেই সব মধ্যপন্থিদের সমর্থন পেতে পারেন, যাদের মনে হিলারি ক্লিন্টন সম্পর্কে সংশয় রয়েছে৷ এখনো অনেক সময় রয়েছে বটে, কিন্তু পশ্চিমা বিশ্বের নেতৃত্বের লড়াই যে বেশ জমজমাট হবে, এখন থেকেই তার আঁচ পাওয়া যাচ্ছে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়