1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

হিলারি তেনজিং-এর এভারেস্ট জয়ের ৬০ বছর

১৯৫৩ সালের ২৯শে মে এগারোটা বেজে ত্রিশ মিনিটে নিউজিল্যান্ডের পর্বতারোহী এডমান্ড হিলারি আর শেরপা তেনজিং নোরগে প্রথম মানুষ হিসেবে এভারেস্টের শৃঙ্গে পা রাখেন৷ অনুভূতিটা ছিল উত্তেজনার নয়, বরং সন্তুষ্টির, পরে বলেছেন হিলারি৷

মাথার উপর সুউচ্চ আকাশ৷ নয়তো পৃথিবীটা নীচে পড়ে৷ এভারেস্ট শৃঙ্গের উচ্চতা তখন ছিল ৮,৮৫০ মিটার৷ হিলারি আর তেনজিং-এর আগেও বহু পর্বতারোহী এভারেস্টে ওঠার চেষ্টা করেছেন, কিন্তু সফল হতে পারেননি৷ তেনজিং মারা যান ১৯৮৬ সালে৷ হিলারি ২০০৮ সাল অবধি বেঁচে ছিলেন৷

হিলারি ও তেনজিং-এর সেই ঐতিহাসিক অভিযানের পরের তিন দশকে বহু পর্বতারোহী বিভিন্ন পথ ধরে এভারেস্টে উঠেছেন৷ তার পরের ২৫ বছরে এভারেস্ট যাত্রা যেন পর্যটকদের বাঁধা রুটে পর্যবসিত হয়েছে৷ আজকাল তো ক্যাটালগ থেকেই এভারেস্ট যাত্রা বুক করা যায়৷ শৃঙ্গের চূড়া অবধি খুঁটি আর দড়ি বাঁধা আছে৷

শেরপাদের সাহায্য নিয়ে এ বছরের বসন্তে পাঁচশোর বেশি মানুষ এভারেস্টের চূড়ায় উঠেছেন৷ তাদের মধ্যে ছিলেন এক ৮০ বছরের জাপানি বৃদ্ধ৷ আজকাল প্রায় সব এভারেস্ট আরোহী অক্সিজেনের মুখোশ পরে থাকেন, কেউ কেউ তো ৫,৩০০ মিটার উচ্চতায় আরোহণ শুরু হওয়ার সময় থেকেই৷

এমনকি নিজেদের অক্সিজেনের সিলিন্ডারগুলো নিজেরা বহন করতেও কষ্ট হয় এদের৷ তাই কিছু কিছু হবু ‘এভারেস্ট বিজয়ী' অক্সিজেনের সিলিন্ডারগুলি সামনের শেরপার কাঁধে রুকস্যাকে ঝুলিয়ে নিজেরা টিউব দিয়ে অক্সিজেন শুঁকতে শুঁকতে চলেন৷ রাইনহোল্ড মেসনার কিংবা রাল্ফ ডুইমোভিটস-এর মতো ধ্রুপদী পর্বতারোহীদের কাছে এটা ‘ডোপিং' ছাড়া আর কিছু নয়৷

যে ক'টা দিন এভারেস্টে চড়া যায়, সে ক'দিন পিঁপড়ের মতো সারি দিয়ে পর্বতারোহীদের বাঁধা পথ ধরে উপরে উঠতে দেখা যায়৷ এভারেস্টে ওঠার মানে এককালে ছিল, বিশ্বের গম্ভীরতম গিরিশৃঙ্গগুলির উদাসীন নির্জনতায় সৃষ্টিকর্তার সঙ্গে মুখোমুখি হওয়া৷ আজ অনেক নামী-দামী পর্বতারোহীরা তাদের নির্ঘণ্ট থেকে এভারেস্টকে বাদ দেওয়ার কথাই ভাবছেন, অন্তত সেখানে প্রত্যাবর্তন করার তাদের কোনো ইচ্ছা নেই৷

A team of climbers, including 80-year-old Japanese mountaineer Yuichiro Miura, stand on the summit of Mount Everest, in this photo taken by Kyodo May 23, 2013. Miura, who has had four heart surgeries, reached the top of Mount Everest on Thursday, becoming the oldest person to conquer the world's highest mountain. He took the standard southeast ridge route pioneered by Sir Edmund Hillary and Tenzing Norgay 60 years ago, reached the top of the 8,848 metre (29,028 feet) mountain at roughly 9:00 a.m. local time (0300 GMT). He was accompanied by three other Japanese, including his son, and six Nepali sherpas. Mandatory Credit. REUTERS/Kyodo (NEPAL - Tags: SOCIETY SPORT) ATTENTION EDITORS - THIS IMAGE HAS BEEN SUPPLIED BY A THIRD PARTY. IT IS DISTRIBUTED, EXACTLY AS RECEIVED BY REUTERS, AS A SERVICE TO CLIENTS. FOR EDITORIAL USE ONLY. NOT FOR SALE FOR MARKETING OR ADVERTISING CAMPAIGNS. MANDATORY CREDIT. JAPAN OUT. NO COMMERCIAL OR EDITORIAL SALES IN JAPAN. YES

১৯৫৩ সালের ২৯শে মে এগারোটা বেজে ত্রিশ মিনিটে নিউজিল্যান্ডের পর্বতারোহী এডমান্ড হিলারি আর শেরপা তেনজিং নোরগে প্রথম মানুষ হিসেবে এভারেস্টের শৃঙ্গে পা রাখেন

এভারেস্টের উচ্চতা একই আছে৷ পৃথিবীর সর্বোচ্চ শৃঙ্গ শুধু তার আভিজাত্য, তার একাকীত্ব, তার রোমাঞ্চ হারিয়েছে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন