1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন

হিলারি ক্লিন্টন: যেমন মানুষ, যেমন রাজনীতিবিদ 

ত্রিশ বছর ধরে মানুষ তাঁকে দেখছে, তবুও তাকে কেউ ঠিকভাবে চেনে না বলে ভোটারদের ধারণা৷ জীবনীকাররা বলেন, এর কারণ হলো হিলারির জটিল ও কখনো-সখনো পরস্পরবিরোধী ব্যক্তিত্ব৷

অর্ধেকের বেশি মার্কিনি হিলারি ক্লিন্টনকে অস্বচ্ছ, এমনকি কপট বলে মনে করেন৷ কিন্তু তাঁর জীবনীকারদের মধ্যে হিলারি সম্পর্কে এক আশ্চর্য মতৈক্য দেখা যায়৷তাঁদের মতে, হিলারি হলেন পরিশ্রমী, নাছোড়বান্দা, দুই বিরোধী দলের অভিমত সম্বলিত, বিশ্লেষক মনোবৃত্তির, মধ্যমপন্থি মনোভাবের, সুশৃঙ্খল এক ব্যক্তিত্ব যিনি রক্ষণশীল এবং কখনো-সখনো একটু উদ্ধত৷ 

এক জীবনীকার কারেন ব্লুমেনথাল হিলারিকে ‘নার্ড ছাত্র’ বা ছাত্রীদের সঙ্গে তুলনা করেছেন৷ বলেছেন, হিলারির তাঁর স্বামী বিল ক্লিন্টন কিংবা বারাক ওবামার মতো ক্যারিসমা নেই৷ ‘‘বস্তুত উনি কিছুটা বোরিং,’’ বলেছেন ব্লুমেনথাল৷

হিলারি ক্লিনটন

হিলারির কর্মপদ্ধতি ও লাইফস্টাই​​​​​​​ল বিশেষভাবে রক্ষণশীল- এই ধারণা তাঁর ব্রিটিশ জীবনীকার জেমস ডি. বয়েজের

বিশিষ্ট বামপন্থি পত্রিকা ‘দ্য নেশন’-এর লেখক রিচার্ড ক্রাইটনার বলেছেন, মার্কিনিরা পরিশ্রমী মানুষদের পছন্দ করে বটে, কিন্তু তার মানে এই নয় যে, তারা হিলারিকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে চায়৷ হিলারি যে সাম্প্রতিক মার্কিন ইতিহাসে সব ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থীর মধ্যে জরিপে সবচেয়ে নেতিবাচক ফলাফল করে থাকেন, অথচ বিশ বারের বেশি অ্যামেরিকার সবচেয়ে প্রশংসনীয় মহিলা হিসেবেও নির্বাচিত হয়েছেন,  তার কারণ সম্ভবত মার্কিনিদের এই দ্বিবিধ মনোভাব৷

হিলারি বস্তুত গোড়ায় রিপাবলিকান ছিলেন৷ তাঁর কর্মপদ্ধতি ও লাইফস্টাইল বিশেষভাবে রক্ষণশীল, বলে হিলারির ব্রিটিশ জীবনীকার জেমস ডি. বয়েজের ধারণা৷ তাঁর এই মধ্যমপন্থি, আপসের মনোভাবের ভালো-মন্দ দুই দিকই আছে, বলেন বয়েজ৷

বিল ও হিলারি ক্লিনটন

বিল ও হিলারি ক্লিনটন

তিন লেখকেরই অভিমত যে, শিশুদের সুরক্ষা, নারী অধিকার, সার্বজনীন স্বাস্থ্য সেবা, সামাজিক ন্যায় ও একটি যুক্তযুক্ত ও কিছুটা কঠোর বিদেশনীতির ক্ষেত্রে হিলারি পিছু হটবেন না৷ কিন্তু তাঁর ক্যারিয়ারের স্বার্থে হিলারি নরম হয়ে যাবেন বলেই ক্রাইটনারের ধারণা৷ ইরাক যুদ্ধের সপক্ষে তিনি সে কারণেই ভোট দিয়েছিলেন৷ ব্লুমেনথালও মনে করেন যে, সেনেটে হিলারি ডেমোক্র্যাট ও কনজারভেটিভ দু’পক্ষেরই মতামত নিয়ে প্রশংসা কুড়িয়েছেন বটে, কিন্তু তিনি যে সঠিক কী চান, তা বোঝা মুশকিল৷

বয়েজের উত্তর হলো, হিলারি সর্বাগ্রে চান একান্ততা, প্রাইভেসি৷ প্রকাশ্য মঞ্চে তিনি তাঁর স্বামী, কিংবা বারাক ওবামা, এমনকি তাঁর রিপাবলিকান প্রতিদ্বন্দ্বি ডোনাল্ড ট্রাম্পের মতো কোনোদিনই স্বস্তি বা স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেননি৷ তাঁর ই-মেল কেলেংকারির পিছনেও এই একান্ততার কামনা আছে বলে বয়েজ-এর অভিমত৷ হিলারি ‘‘অবিশ্বাস্যরকম বুদ্ধিমতী, কিন্তু মাঝেমধ্যে অতিমাত্রায় বোকার মতো কাজ করে বসেন,’’- বলেও মনে করেন ব্লুমেনথাল৷

জেফারসন চেজ/এসি

ভিডিও দেখুন 01:58

ভিডিওটি দেখলেন? কেমন লাগলো জানান আমাদের৷ লিখুন নীচের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়