1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

হিমালয়ে সমকামীদের মধুচন্দ্রিমা, নেপালে বদলে যাচ্ছে সংবিধান

মাত্র পাঁচ বছর আগের ঘটনা৷ নেপালের পুলিশের লাঠির আঘাতে আহত হয়েছিল এক সমকামী দম্পত্তি৷ এখন আর সেই অবস্থা নেই৷ আজ সেই হিমালয় কন্যা নেপাল সমকামীদের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে৷

default

এক সমকামী দম্পত্তি

হিমালয়ের বেস ক্যাম্পে আয়োজন করা হচ্ছে বিশ্বের সমকামীদের সবচেয়ে বড় মধুচন্দ্রিমা অনুষ্ঠানের৷ সংবিধান বদলে দিতে করা হচ্ছে নতুন আইন৷

সমকামীদের অধিকারের জোর দাবী জানিয়ে সভা সমাবেশ আর বক্তব্য বিবৃতি দিচ্ছেন নেপালের একমাত্র স্বঘোষিত সমকামী সংসদ সদস্য সুনিল পান্থ৷ তিনি বলছেন, নেপালে যাতে সমকামীরা পূর্ণ আনন্দ নিয়ে মধুচন্দ্রিমা পালন করতে পারে সে জন্য নতুন পর্যটক আইনটি দ্রুত করা উচিত৷ এমনকি যেসব সমকামী নিজ দেশে আইনি জটিলতার কারণে বিয়ে করতে পারছেনা, তাদের জন্যও একটি সুব্যাবস্থা করা উচিত৷ এতে নেপালের পর্যটক সংখ্যা আরও বাড়বে এবং প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা আয় হবে৷

নেপালের সংসদ এ ধরণের একটি আইন করার বিষয়ে এখন চূড়ান্ত কাজ করছে বলেই বার্তা সংস্থাগুলোর খবর৷ অবশ্য এই আইন করার বিষয়টিকে এককাঠি এগিয়ে দিয়েছে নেপালের উচ্চ আদালত৷

Himalaya-Massiv mit Mount Everest

হিমালয় পর্বতমালা

উচ্চ আদালত সম্প্রতি সরকারকে সমকামীদের জন্য আইন তৈরির নির্দেশ দিয়েছে৷ তবে এর জন্য ২০১০ সালের মে মাসের ২৮ তারিখ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে৷ সংসদের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানাচ্ছেন স্থানীয় সমকামীরাও৷ এদের একজন বিঞ্চু অধিকারী৷ তিনি বলেন, এর মাধ্যমে আমাদের অধিকার প্রতিষ্ঠিত হবে৷ একই সঙ্গে এখন নেপালের মানুষ এই বিষয়কে আস্তে আস্তে মেনে নিচ্ছে বলে তিনি উল্লেখ করেন৷

ইতিমধ্যে বেশ কয়েক সমকামী দম্পত্তি নেপালে এসে বিয়ে করার অপেক্ষায় রয়েছেন৷ তারা চাইছেন আইনটি হয়ে গেলেই নেপালে বিয়ে আর হিমালয়ে মধুচন্দ্রিমা৷

আর এই কাজের জন্য সমকামী পর্যটকদের গড়ে ওঠা ট্রাভেল এজেন্ট 'পিংক মাউন্টেন ট্রাভলস এন্ড টুরস' কাজ করে যাচ্ছে৷ তারা ইতিমধ্যেই এ জন্য একটি প্যাকেজ ছেড়েছে৷ এই প্যাকেজে বেশ সাড়াও নাকি পাওয়া যাচ্ছে৷ এই তো গত ফেব্রুয়ারী মাসে 'পিংক মাউন্টেন' কাটমান্ডুতে এশিয়ার প্রথম সমকামী সেমিনারের আয়োজন করেছিল৷ ভারতসহ বেশ কয়েকটি দেশের সমকামীরা এতে যোগও দিয়েছিলেন৷

হিমালয়ের বেস ক্যাম্পে পরিকল্পিত বিশ্বের সমকামীদের সবচেয়ে বড় মধুচন্দ্রিমা নেপালের দারিদ্র বিমোচনে বড় ধরণের সহায়তা করবে বলেই দাবি করছেন অনেকে৷

প্রতি বছর পর্যটন খাত থেকে নেপালের আয় হয় প্রায় সাড়ে তিনশ মিলিয়ন ডলার৷ সরকারের পর্যটন বিভাগের আশা আগামী বছর এই অঙ্ক দ্বিগুণ হয়ে যাবে৷ আর দ্বিগুণটা হবে কেবল সমকামীদের জন্য৷ নেপাল টুরিজম বোর্ডের মুখপাত্র আদিত্য বারেলের এমনটাই আশা৷ তিনি বললেন, সমকামী পর্যটকরা নিরাপত্তার সঙ্গে ঘুরে বেড়াতে, খরচ করতে চায়, কিন্তু এমন জায়গার সংখ্যা খুব কম৷

প্রতিবেদক: সাগর সরওয়ার

সম্পাদনা: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সংশ্লিষ্ট বিষয়