1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

হামবুর্গে কিশোর হত্যার পিছনে আইএস?

হামবুর্গে আততায়ীর ছুরির আঘাতে নিহত হয়েছিল এক কিশোর৷ হত্যাকারীকে এখনো ধরতে পারেনি পুলিশ৷ তথাকথিত ইসলামি জঙ্গি সংগঠন আইএস দাবি করছে, হত্যাকারী তাদের ‘সৈনিক'৷ দাবিটি সত্যি কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ৷

সপ্তাহ দুয়েক আগে, হামবুর্গের এক লেকের ধারে বসে গল্প করছিল দুই কিশোর-কিশোরী৷ হঠাৎ পেছন থেকে এসে ১৬ বছর বয়সি কিশোরটির ওপর উপর্যুপরি ছুরির আঘাত শুরু করে এক ব্যক্তি৷ কিশোরকে মারাত্মকভাবে আহত করে ঐ ব্যক্তি পাশের কিশোরীকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয় লেকে৷ হাসপাতালে নেয়ার পর কিশোরটি মারা যায়৷ কিশোরী অক্ষত, তবে আতঙ্ক কাটাতে এখনো মনোচিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হচ্ছে তাকে৷

হামবুর্গে আতঙ্ক ছড়ানো এ ঘটনার পর থেকেই হামলাকারীকে খুঁজছে পুলিশ৷ পুলিশ জানিয়েছে, হামলাকারীর বয়স ২৩ থেকে ২৫-এর মধ্যে৷


এদিকে শনিবার তথাকথিত জঙ্গি সংগঠন আইএস দাবি করেছে, হামবুর্গের ওই কিশোর তাদের কর্মীর চালানো হামলাতেই নিহত হয়েছে৷ আমাক নিউজে প্রকাশিত এক বিবৃতির মাধ্যমে তারা এ দাবি জানায়৷ বিবৃতিতে বলা হয়, ‘‘এ মাসের ১৬ তারিখ ইসলামিক স্টেটের এক সৈনিক দুই ব্যক্তিকে ছুরিকাঘাত করে৷'' জার্মানি সিরিয়া এবং ইরাকে আইএসবিরোধী বিমান অভিযানে অংশ নিচ্ছে বলেই এ হামলা চালানো হয়েছে বলে বিবৃতিতে দাবি করা হয়৷

তবে আমাকের এ বিবৃতির সঙ্গে প্রকৃত ঘটনার অমিল রয়েছে৷ হামবুর্গের ঘটনায় দু'জনকে নয়, একজনকে ছুরি দিয়ে আঘাত করা হয়েছে৷

হামলাকারী সত্যিই আইএস জঙ্গি কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ৷ হামবুর্গ পুলিশের মুখপাত্র জানিয়েছেন, আমাকে প্রকাশিত বিবৃতিটি সম্পর্কে তারা অবগত, তবে সব কিছু খতিয়ে দেখার আগে এ বিষয়ে তারা কোনো মন্তব্য করতে চান না৷

এসিবি/ডিজি (এএফপি, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়