1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

হাত দেখিয়ে গাড়িতে ওঠে যে রোবট

ইউরোপের পথে প্রায়ই অনেককে গাড়িতে ‘লিফট' চাইতে দেখা যায়৷ এই হিচহাইকার-দের সংখ্যা কমে চলেছে৷ মানুষের বদলে রোবট যদি হাত তুলে কারো কাছে ‘লিফট' চায়? হামবুর্গ শহরের রাস্তায় ডয়চে ভেলের ক্রিস্টফ হার্টমান-এর এমনই অভিজ্ঞতা হয়েছে৷

হামবুর্গের পথে আমি এক রোবটের খোঁজ করছি৷ তার নাম হিচবট৷ তাকে তৈরি করেছেন ক্যানাডার বিজ্ঞানীরা৷ সে আবার হিচহাইকিং করে জার্মানি ঘুরছে৷ সে নাকি গাড়িচালকদের সঙ্গে কথাও বলতে পারে৷ কথাটা কি সত্যি? জিপিএস সিগনালের মাধ্যমে তার খোঁজ পাওয়া গেল৷ ১৫ মিনিট অন্তর অন্তর সে সংকেত পাঠায়৷ হিচবট-এর ডেভেলপার ডেভিড হ্যারিস স্মিথ বলেন, ‘‘একটা আইডিয়া ছিল এটা দেখা, যে মানুষ কি রোবটকে সাহায্য করবে? আমরা জানতে চেয়েছিলাম, মানুষ কি তাকে মেনে নিয়ে তাকে এগিয়ে যেতে সহায়তা করবে৷''

প্রথম দর্শনে হিচবট-কে ঠিক রোবট নয়, পুতুল বলে মনে হলো৷ ওজন বেশি নয়, কিন্তু ধরাও সহজ নয়৷ গাড়ির সিগারেট লাইটারের মাধ্যমে সে তার বিদ্যুৎ পায়৷ তার সঙ্গে সংলাপ চালানো মোটেই সহজ নয়৷

– বললাম, হিচি – চলো যাওয়া যাক৷

– কোথায় যেতে চাও?

– হিচবট?

– নাঃ, তুমি দেখছি মোটেই মিশুকে নও৷

হিচবট তখন বলে উঠলো:

– আমি কি গাড়িতে?

– হ্যাঁ হিচবট, তুমি এখন গাড়িতে৷

– দেখো, তোমাকে কেউ চিনতে পেরেছে৷

– হ্যাঁ, জার্মানিতে তোমার অনেক ফ্যান রয়েছে৷ তুমি তাদের সঙ্গে কথা বলছো না, এটা দুঃখের বিষয়৷

কথা বেশি না বললেও, তাকে দেখে বিস্ময় জাগে বৈকি৷

ডেভিড হ্যারিস স্মিথ বলেন, ‘‘যারা বলবে, ‘না, এটা আসল বিজ্ঞান নয়', তাদের সঙ্গে আমি একমত৷ তাছাড়া এটা একেবারেই প্রচলিত ‘ইউজার স্টাডি'-র মতো নয়৷ এই প্রকল্পের উদ্দেশ্যই হলো আবিষ্কারের আনন্দ৷ একবার এক বৃদ্ধ দম্পতি পাশ দিয়ে যাচ্ছিলেন৷ গাড়ি থামিয়ে তাঁরা হিচবট-কে তুলে নিলেন৷ বললেন, এর আগে কখনো কোনো হিচহাইকার-কে গাড়িতে তুলিনি৷ কিন্তু সংবাদমাধ্যমে হিচবট সম্পর্কে জেনেছি৷ আমরা বললাম, কেন নয়? অর্থাৎ হিচবট-এর কারণে সে একটা রাইড পেল৷''

সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল অনুযায়ী হিচবট কথাবার্তায় বেশ পটু৷ কিন্তু সরাসরি সংলাপে সে তথ্যভাণ্ডারে রাখা কথা বলে অবাক করে দেয়৷ তাকে প্রশ্ন করা হলো,

– জার্মানি ভালো লাগে?

– ‘‘মিত্রশক্তি নিয়ন্ত্রিত ৩টি এলাকা থেকে ১৯৪৯ সালে ফেডারেল জার্মান প্রজাতন্ত্র সৃষ্টি হয়, সোভিয়েত জোনে জার্মান গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র৷''

– বাঃ বেশ তো৷ কিন্তু এটা ঠিক আমার প্রশ্নের উত্তর নয়৷ তোমার জার্মানি ভালো লাগে?

– ‘‘ঊনবিংশ শতাব্দীর মাঝামাঝি সময় থেকে জার্মানিতে শিল্পবিপ্লব আরও জোরদার হয়৷''

ডেভিড হ্যারিস স্মিথ বলেন, ‘‘হিচবট আসলে সময় দিলে বেশ মনোরঞ্জন করতে পারে৷ এর জ্ঞানভাণ্ডার বেশ গভীর৷ কখনো তার সঙ্গে কয়েকদিন না কাটালে তার কাছ থেকে বেশি কিছু শোনা যাবে না৷ একদিন সে হঠাৎ করে নেলি ফুরটাডো-র গান ‘আই অ্যাম লাইক আ বার্ড' গাইতে শুরু করলো৷''

হিচবট আসলে ‘সিরিয়াস' বিজ্ঞানের চেয়ে অনেক বেশি সামাজিক এক্সপেরিমেন্ট৷ তার সঙ্গে সময় কাটাতে বেশ মজা লাগে, তার বেশি কিছু নয়৷

সত্যি, ভেবেছিলাম বেশ মিশুকে সহযাত্রী পাবো৷ এবার তাকে দেখতে হবে, সে কী ভাবে আরও এগিয়ে যেতে পারে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

সংশ্লিষ্ট বিষয়