1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

হাতে তৈরি লজেন্সের চাহিদা অনেক

জার্মানিতে এগুলোকে বলে বনবন, আরা আমাদের দেশে লজেন্স৷ ছোটবেলায় মানে আমাদের বয়সে আর কি আটা আনা পয়সাতেই পাওয়া যেত এমন লজেন্স৷ কোলনের এক ক্যান্ডি ফ্যাক্টিরিতে হাতে বানানো হয় নানা রকমের চকলেট৷

জার্মানির কোলোন শহরের কেন্দ্রস্থলে যেটি সহজে চোখে পড়ে না তেমন একটি ছোট রাস্তায় রয়েছে একটি ক্যান্ডি ফ্যাক্টরি৷ সুবিধাজনক স্থানে না হলেও পথচারীদের নজর কাড়ে এটি৷

হাতে তৈরি ক্যান্ডির ব্যবসা ক্রমশই বাড়ছে৷ চাহিদা অনুযায়ী পণ্য সরবরাহে তাই সবসময় সচেতন ফ্লোরিয়ান বেলগার্ড৷ কোলোনের এই বাসিন্দা ক্যান্ডি তৈরিতে সনাতন পদ্ধতি অনুসরণ করেন৷ শুরুতে প্রয়োজনীয় বিভিন্ন দ্রব্য একটি পাত্রে গরম করা হয়৷ এরপর বিভিন্ন ধাপের পর সেগুলো পরিণত হয় ছোট ছোট ক্যান্ডিতে৷

এই প্রক্রিয়া বেশ লম্বা৷ বিশেষ করে ধৈর্য ও শক্তি প্রয়োজন৷ আর মানের দিকে সর্বাধিক গুরুত্ব দেন বেলগার্ড৷ এই ক্যান্ডি প্রস্তুতকারক বলেন, ‘‘চকোলেট তৈরির পর অন্তত একটি খেয়ে দেখা হয়৷ প্রস্তুতের পর খদ্দেরের কাছে পৌঁছানোর আগে স্বাদ পরখ করাটা জরুরি৷ এখন আমার মনে হয় আমি বেশ মিষ্টি হয়ে গেছি, সেজন্য সুযোগ পেলেই বনবন খাই৷''

বনবন নামের এই বিশেষ ক্যান্ডি তৈরির কাজে বেশ দ্রুত করতে হয়৷ গলানো চিনি বেশিক্ষণ ফেলে রাখা যায় না৷ গরম থাকতে থাকতেই সেটিকে নির্দিষ্ট আকার দিতে হয়৷ ফ্লোরিয়ান বেলগার্ড অনেক মনোযোগ আর ভালোবাসা দিয়ে বিভিন্ন ডিজাইন করেন৷ এটা তাঁর কাছে শিল্পকর্মের মতো৷

বনবন প্রস্তুতের চূড়ান্ত ধাপে মাখামাখি করতে হয়৷ এক ঘণ্টা ধরে বিভিন্নভাবে নাড়াচাড়ার পর প্রস্তুত হয় বনবন৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক