1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ভাইরাল ভিডিও

হাতি না গণ্ডার – জিত হবে কার?

দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রুগার ন্যাশনাল পার্ক সারা বিশ্বে খ্যাত৷ কিন্তু সেখানেও ‘বিগ ফাইভ’-এর দু’টি প্রজাতির মুখোমুখি হওয়ার ঘটনা বিরল৷ তাই ভিডিওটি ভাইরাল হতে বাধ্য ছিল৷

এ বছরের ২৮শে ফেব্রুয়ারি তারিখে আপলোড করা ভিডিওটি এক মাসের মধ্যে দেখেছেন প্রায় সাত লাখ মানুষ৷ যার ক্যামেরায় হাতি ও গণ্ডারের এই অনবদ্য মোলাকাতের দৃশ্য ধরা পড়েছে, তিনি হলেন সাফারি টুরিস্ট জো গ্রেগরি৷ গ্রেগরি নিজেই লেটেস্টসাইটিংসডটকম-কে সে কাহিনি শুনিয়েছেন

ক্রুগারের এই অংশটা ন্যাশনাল পার্কের এক প্রত্যন্ত প্রান্তে, যেখানে শুধু বোটে করে যাওয়া যায়৷ টুরিস্টরা সেখানে পৌঁছালে, তাঁদের লাঞ্চ খাইয়ে দুপুরের ‘গেম ড্রাইভে’ নিয়ে যাওয়া হয়৷ গেম ড্রাইভ বলতে গাড়িতে চড়ে ওয়াইল্ডলাইফ দেখতে যাওয়া৷

রেঞ্জাররা জো আর অন্যান্য টুরিস্টদের নিয়ে দ্বীপটির উপর জলাভূমি এলাকায় গাড়িতে চড়ে ঘুরছিলেন৷ হঠাৎ তাঁরা একদল হাতি ও একটি গণ্ডারের ঝোপঝাড় ভেঙে ধেয়ে আসার শব্দ শোনেন৷ তারপর দেখেন দুই মহারথীকে৷

প্রথমটি এক তরুণ মদ্দা হাতি, কিন্তু ‘মস্ত’, অর্থাৎ মদমত্ত৷ দ্বিতীয়টি একটি মদ্দা সাদা গণ্ডার৷ হাতি আর গণ্ডার হল ক্রুগারের ‘বিগ ফাইভ' বা পাঁচটি সবচেয়ে বিপজ্জনক জানোয়ার – অর্থাৎ হাতি, গণ্ডার, সিংহ, চিতাবাঘ ও বুনোমোষের মধ্যে এরা হলেন প্রথম ও দ্বিতীয়৷ দ্বিতীয়ত, হাতি আর গণ্ডার উভয়েই তৃণভোজী বলে এই দু’টি প্রাণীর মধ্যে কোনোকালেই বিশেষ সদ্ভাব নেই৷ কাজেই দুই পাড়ার মস্তানের মধ্যে হঠাৎ সাক্ষাৎ হলে গোলমাল বাধার শঙ্কা তো থাকবেই৷

একজনের ওজন পাঁচ টন, তো অন্যজনের ওজন চার টন৷ একজনের শুঁড় আর সুবিশাল পায়ের চাপ৷ অন্যজনের খাড়া শিং! আর দু’জনেই টেস্টোস্টেরোন মানে ‘পুরুষত্বে’ ভরপুর৷

তাও হাতি ভায়া সম্মুখসমরে না গিয়ে, মাথার ওপর একটা গাছের ডাল ব্যালান্স করে, পরে সেটা শৃঙ্গী প্রতিদ্বন্দ্বীর নাকের সামনে ফেলে দিলেন – চ্যালেঞ্জ হিসেবে৷

গণ্ডার ভায়া একবার হাতির দিকে খানিকটা দৌড়ে গিয়ে দেখালেন: ‘‘আরে আমি কি তোকে ভয় পাই নাকি? তোর ওজন না হয় একটু বেশি...৷’’

হাতি ভায়া তখন ডালটা আবার মাটি থেকে তুলে নিয়ে শুঁড় দিয়ে ছুঁড়ে ফেলে দিলেন: ‘‘দেখলি আমার কিরকম গায়ের জোর?...’’

গণ্ডার ভায়া তখন ব্যাকগিয়ার দিয়ে পিছু হটছেন৷ কিন্তু আসল কথা হলো, মারামারির দিকে দু'জনের কেউই গেলেন না৷ দু'জনেই জানেন কিনা, এইটুকু মস্তানির জন্য একটা বড় চোট পেয়ে কোনো লাভ নেই৷

তাহলে জিতল কে? জো গ্রেগরি নিজেই বলেছেন: দু'জনেই৷

এ থেকে কি আমাদের কিছু শেখার আছে?

এসি/ডিজি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়