1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

চীন

হাতির দাঁতের ব্যবসা বন্ধ করবে চীন

২০১৭ সালের মধ্যে হাতির দাঁত বেচা-কেনা অথবা হাতির দাঁত থেকে পণ্য তৈরি করা নিষিদ্ধ করার ঘোষণা দিয়েছে চীন৷ সংরক্ষণবাদীরা এই পদক্ষেপকে হাতিদের জন্য সুখবর হিসেবে বর্ণনা করেছেন৷

চীন সরকারের বিবৃতি অনুযায়ী, চীনে হাতির দাঁত নিয়ে যাবতীয় অভ্যন্তরীণ বাণিজ্য নিষিদ্ধ করা হবে৷ এর উদ্দেশ্য হলো, আফ্রিকায় ব্যাপক ও বেপরোয়া হাতি নিধন রোধ করা৷ চীনের শিনহুয়া সংবাদ সংস্থা এই সরকারি বিবৃতির উদ্ধৃতি দিয়ে জানিয়েছে যে, ‘‘৩৪টি সংস্থা, যারা হাতির দাঁত নিয়ে কাজ করে ও ১৪৩টি হাতির দাঁত কেনা-বেচার বাজার'' এই নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়বে এবং তার মধ্যে বেশ কয়েক ডজন সংস্থা ও প্রতিষ্ঠান ২০১৭ সালের মার্চ মাসের মধ্যে বন্ধ হয়ে যাবে৷ ‘‘এই ডেডলাইনের আগেই আইন শৃঙ্খলা কর্তৃপক্ষ হাতির দাঁতের সঙ্গে যুক্ত যাবতীয় বেআইনি কার্যকলাপের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে থাকবে,'' যোগ করেছে শিনহুয়া৷

বেইজিং গত মার্চ মাসেই ঘোষণা করে যে, ১৯৭৫ সালের আগে সংগৃহীত যাবতীয় হাতির দাঁতের পণ্যের আমদানির উপর নিষেধাজ্ঞা সম্প্রসারিত করা হবে৷ ১৯৭৫ সালেই বন্য প্রাণীদের মাত্রাধিক শিকার ও ব্যবহার সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক চুক্তি কার্যকর হয়৷ বন্য প্রাণী ও উদ্ভিদের বিপন্ন প্রজাতিদের নিয়ে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য সংক্রান্ত চুক্তি সিআইটিইএস বা ‘সাইটস' হাতির দাঁতের বাণিজ্য নিষিদ্ধ করে ১৯৮৯ সালে৷

চীন সরকার ঘোষণা করে যে, বৈধ উৎস থেকে পুরনো হাতির দাঁতের জিনিসপত্র নিলাম করা চলবে, কেননা হাতির দাঁত খোদাই চীনের একটি প্রাচীন সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য৷ চীনে অনেকেই সুন্দরভাবে খোদাই করা হাতির দাঁতের ‘অ্যান্টিক' সংগ্রহ করে থাকেন৷

সংরক্ষণবাদীরা আশাবাদী

সংরক্ষণবাদীরা এতদিন চীনকেই হাতির দাঁত নিয়ে বিশ্বব্যাপী অবৈধ বাণিজ্যের ‘বৃহত্তম বাজার' বলে গণ্য করে এসেছেন৷ কাজেই নিউ ইয়র্ক ভিত্তিক বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ সমিতি ডাবলিউসিএস-এর এশিয়া অঞ্চলের পরিচালক এইলি কাং এক বিবৃতিতে বলেছেন, চীনের এই পদক্ষেপ ‘‘হাতির দাঁতের সবচেয়ে বড় বাজার বন্ধ করে দেবে৷ আমি গর্বিত যে, আমার দেশ এই নেতৃত্ব দেখিয়েছে, যার ফলে হাতিরা বিলুপ্ত না হওয়ার একটা ভালো সুযোগ পাবে৷''

কাং বলেন, ‘‘চীনের ঘোষণা আফ্রিকার হাতিদের জন্যে একটি গেম-চেঞ্জার'', অর্থাৎ পুরো পরিস্থিতি বদলে দেবে৷ গতবছরও আফ্রিকায় শুধু দাঁতের জন্য বিশ হাজারেরও বেশি হাতি মারা হয়েছে বলে পশু অধিকার কর্মীদের অনুমান৷

ওয়ার্ল্ড ওয়াইল্ডলাইফ ফান্ড (ডাবলিউডাবলিউএফ) বেইজিংয়ের পদক্ষেপের প্রশংসা করেছে, কিন্তু হংকংয়ের প্রতি ২০১১ সালের মধ্যে হাতির দাঁতের ব্যবসার অন্ত ঘটানোর আহ্বান জানিয়েছে৷ হংকং ‘‘পাচারকারীদের কাছে বেআইনি হাতির দাঁতকে বৈধ বলে চালু করার  পছন্দের বাজার'' হয়ে উঠতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন ডাবলিউডাবলিউএফ-এর বন্যপ্রাণী সংক্রান্ত অপরাধ বিভাগের কর্মকর্তা চেরিল লো৷

এসি/এসিবি (এপি, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়