1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

যুক্তরাষ্ট্র

হাটে হাঁড়ি ভাঙতে চলেছেন প্রাক্তন উপদেষ্টা?

রাশিয়ার সঙ্গে ‘অনৈতিক', সন্দেহজনক সম্পর্কের একাধিক অভিযোগ তাড়িয়ে বেড়াচ্ছে ট্রাম্প প্রশাসনের একাধিক ব্যক্তিকে৷ পদচ্যুত প্রাক্তন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা এবার ‘আসল ঘটনা' ফাঁস করার ইঙ্গিত দিচ্ছেন৷

গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই ও সংসদের বিশেষ কমিটি ট্রাম্প টিম-এর সঙ্গে রাশিয়ার সম্পর্কের বিষয়ে তদন্ত চালাচ্ছে৷ বলা বাহুল্য, প্রশাসনের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির বিরুদ্ধে এমন সব গুরুতর অভিযোগ নিয়ে চরম অস্বস্তিতে ভুগছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প৷ সেই টিমেরই একজনের ‘রাজসাক্ষী' হবার সম্ভাবনার ফলে এবার তাঁর দুশ্চিন্তা আরও বেড়ে গেল৷ মাইকেল ফ্লিনের আইনজীবী এই মর্মে একটি বিবৃতি দিয়েছেন৷

অর্থাৎ আইনি রক্ষাকবচ পেলে তিনি ‘রাজসাক্ষী' হতে রাজি৷ এ নিয়ে তিনি কংগ্রেসের সঙ্গে আলোচনা করছেন৷ দুই পক্ষের মধ্যে রফা হলে রাশিয়ার ভূমিকা সংক্রান্ত তথ্য-প্রমাণ প্রকাশ্যে আসতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে৷ ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল বিষয়টি নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে৷

জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা হিসেবে মাত্র কয়েক দিন কাটাতে পেরেছিলেন মাইকেল ফ্লিন৷ তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ, অন্যদের মতো তিনিও ওয়াশিংটনে রাশিয়ার রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে যোগাযোগ রেখেছেন এবং বিষয়টি পুরোপুরি স্বীকার করেননি৷ কিন্তু প্রক্রিয়াগত কারণ দেখিয়ে তাঁকে বরখাস্ত করা হয়৷ ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইকেল পেন্সকে তিনি সত্যি কথা বলেননি বলে ট্রাম্প তাঁকে সরিয়ে দেন৷ ফ্লিন এতকাল নীরব থাকার পর মুখ খুলেছেন৷

রাশিয়ার সঙ্গে যোগাযোগের প্রশ্নে ট্রাম্প প্রশাসনের সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের আচরণ সন্দেহ আরও উসকে দিচ্ছে৷ স্পষ্ট অবস্থান নেবার বদলে তাঁরা নানাভাবে বিষয়টি এড়িয়ে যাবার চেষ্টা করছেন বলে অভিযোগ উঠছে৷

 

এসবি/এসিবি (এএফপি, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়