1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

হাইতিতে ঔষধ প্রদান সীমিত করেছে ডাব্লিউএইচও

হাইতিতে বিনামূল্যে ঔষুধ প্রদানের ক্ষেত্রে কিছুটা পরবির্তন এনেছে ডাব্লিউএইচও৷ এখন থেকে শুধুমাত্র, সরকারি হাসপাতালগুলো পাবে এই বিনামূল্যের ঔষুধ৷ এদিকে, হাইতির সরকার ভূমিকম্পে নিহতের নতুন সংখ্যা ঘোষণা করেছে৷

default

ফাইল ফটো

মৃত ২ লাখ ৩০ হাজার

হাইতিতে ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা আরো একবার বাড়ালো দেশটির সরকার৷ গত ১২ই জানুয়ারি সেখানে সাত মাত্রার ভূমিকম্পে প্রাণ হারিয়েছে কমপক্ষে ২ লাখ ৩০ হাজার মানুষ, বলেছেন হাইতির যোগাযোগ মন্ত্রী মারি-লাওরেন্স জেসিলিন৷ তার ভাষায়, নিহতের এই সংখ্যার মধ্যে বেসরকারি বা পারিবারিকভাবে যাদের সমাধিস্থ করা হয়েছে, তাদেরকে অন্তর্ভূক্ত করা হয়নি৷ ফলে, মৃতের এই সংখ্যা একেবারেই নিখুঁত নয়৷

বিনা পয়সায় ঔষধ নয়

এদিকে, মঙ্গলবার থেকে হাইতির দুর্গতদের জন্য ঔষধ সরবরাহে খানিকটা ভিন্ন পথ অবলম্বন করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ডাব্লিউএইচও৷ সংস্থাটি জানিয়েছে, এখন থেকে বেসরকারি স্বাস্থ্যকেন্দ্র এবং বেসরকারি সাহায্য সংস্থাকে ঔষধপত্র দেবে না ডাব্লিউএইচও৷

Haiti Erdbeben

বিভিন্ন বেসরকারি কেন্দ্রে দেয়া এসব ঔষুধ বিক্রি করা হচ্ছে, এমন তথ্যের ভিত্তিতে সংস্থাটির এই সিদ্ধান্ত৷ আর তাই, এখন থেকে শুধুমাত্র সরকারি হাসপাতালে বা চিকিৎসা কেন্দ্রে বিনামুল্যে ঔষধ সরবরাহ করবে ডাব্লিউএইচও৷

এই প্রসঙ্গে সংস্থাটির মুখপাত্র মারিয়া-আগনেস হাইন জানিয়েছেন, কিছু কিছু হাসপাতাল থেকে অভিযোগ এসেছে যে, রোগীদের কাছ থেকে ঔষুধ বাবদ টাকা নেয়া হচ্ছে৷ এটি আমাদের চিকিৎসা সামগ্রীর অপব্যবহার৷

অভিযোগ ভুয়া কুপন!

অবশ্য, ডাব্লিউ এইচ ও-র এই সিদ্ধান্ত হাইতির ভূমিকম্প দুর্গতদের দুর্ভোগ আরো বাড়াবে বলেই মনে করছেন স্থানীয়রা৷ কারণ সাহায্যের পরিধি কমানোর এধরণের নজির দেখাচ্ছে আরো কিছু সংস্থা৷ গত সোমবার, জাতিসংঘ ভুয়া কুপন খুঁজে পাওয়ায় হাইতির রাজধানী পোর্ট অফ প্রিন্সের প্রায় ১০,০০০ দুর্গতকে খাদ্য সাহায্য প্রদান স্থগিত করে৷ এরপর দুর্গতদের দেখা গেছে, ক্ষুধার যন্ত্রণায় পেটে হাত দিয়ে চিৎকার করতে৷

Haiti Erdbeben Flash-Galerie

২৭ দিন পর জীবিত উদ্ধার

এরই মাঝে, হাইতির আরেক ঘটনা নজর কেড়েছে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের৷ সেখানে ভূমিকম্পের ২৭ দিন পরে ধংসস্তুপের মধ্য থেকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে এক ব্যক্তিকে৷ তাঁর পরিবারের দাবি, ভূমিকম্পের সময় ভাত রাঁধছিলেন ইভানস মনসিগ্রেস নামের ঐ ব্যক্তি৷ তবে, খাদ্য এবং পানীয় জল ছাড়া কিভাবে তিনি এতদিন বেঁচে রইলেন তার কোন ব্যাখ্যা এখনো পাওয়া যায়নি৷

হাইতিতে জোলি

হাইতির দুর্গতদের সহায়তায় শুরু থেকেই এগিয়ে এসেছিল হলিউড তারকারা৷ মঙ্গলবার হাইতিতে দেখা গেছে হলিউড তারকা এঞ্জেলিনা জোলিকে৷ তিনি সেখানে ভূমিকম্প দুর্গত শিশুদের একাধিক ক্যাম্প পরিদর্শন করেছেন৷ প্রসঙ্গত, জাতিসংঘের শুভেচ্ছা দূত হিসেবেও কাজ করছেন এঞ্জেলিনা জোলি৷ তিনি এবং তাঁর স্বামী ব্র্যাড পিট হাইতির ভূমিকম্প দুর্গত মানুষদের সাহায্যের জন্য ডক্টরস উইদাউট বর্ডার্স সংগঠনকে দশ লক্ষ ডলার দান করেছেন৷

প্রতিবেদক: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: সাগর সরওয়ার

সংশ্লিষ্ট বিষয়