1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

হলোকস্ট নিয়ে নেতানিয়াহুর বিতর্কিত মন্তব্য

বৃহস্পতিবার বার্লিনে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু'র সঙ্গে মিলিত হবার পর মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি যাবতীয় প্ররোচনা বন্ধ করার আবেদন জানিয়েছেন৷ এর আগে হলোকস্ট নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেন নেতানিয়াহু৷

কেরি সাংবাদিকদের বলেন: ‘‘সব ধরনের প্ররোচনা বন্ধ করা অত্যন্ত জরুরি; সব ধরনের সহিংসতা বন্ধ করা ও ভবিষ্যতের একটি বৃহত্তর প্রক্রিয়ার সম্ভাবনার দিকে অগ্রসর হওয়া, যে সম্ভাবনা আপাতত অনুপস্থিত৷''

কেরির পাশে তখন নেতানিয়াহু বসে ছিলেন৷ নেতানিয়াহু অবশ্য তাঁর বক্তব্যে পুনরায় ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস'কে ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনি এলাকাগুলিতে এ'মাসের শুরু থেকে চলমান সহিংসতার জন্য দায়ী করেন৷

নেতানিয়াহু বলেন: ‘‘এ'নিয়ে কোনো প্রশ্ন উঠতে পারে না যে, সাম্প্রতিক আক্রমণের হিড়িক চলেছে সরাসরি প্ররোচনার কারণে - হামাস, ইসরায়েলে ইসলামপন্থি আন্দোলন এবং আমাকে দুঃখের সঙ্গে বলতে হচ্ছে, প্রেসিডেন্ট আব্বাস ও ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের প্ররোচনা থেকে৷''

এর আগের দিন নেতানিয়াহু নিজেই একটি মন্তব্য করে বিতর্কের মুখে পড়েন৷ একটি বক্তৃতায় তিনি এই মত প্রকাশ করেন যে, এক ফিলিস্তিনি নেতা হিটলারকে হলোকস্টের ধারণা দিয়েছিলেন৷ অতঃপর বিভিন্ন ইসরায়েলি ইতিহাসবিদ ও রাজনীতিক, এবং সেই সঙ্গে জার্মান সরকারের তরফ থেকেও নেতানিয়াহু'র বক্তব্যের বিরোধিতা করা হয়েছে৷

বার্লিনে নেতানিয়াহু বলেন, ‘‘ষাট লাখ ইহুদিকে হত্যার জন্য হিটলার ও নাৎসিদের দায়িত্ব সব নিরপেক্ষ মানুষের কাছেই স্পষ্ট৷'' যুগপৎ তিনি উল্লেখ করেন যে, ১৯৪১ সালে জেরুসালেমের গ্র্যান্ড মুফতি হজ আমিন আল-হুসেইনি'র ভূমিকাও বিস্মৃত হওয়া উচিত নয়৷

ভিডিও দেখুন 01:14

Video: Netanayhu defend Israel's hard line

নেতানিয়াহু'র সঙ্গে যৌথ সাংবাদিক সম্মেলনে জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল পুনরায় বলেন যে, তাঁর দেশ ‘‘হলোকস্টের জন্য দায়ী'' এবং ‘‘আমরা অতীত ইতিহাস সম্পর্কে আমাদের মনোভাব পরিবর্তন করার কোনো কারণ দেখি না৷''

বৃহস্পতিবারও ইসরায়েলে একাধিক হিংসাত্মক ঘটনা ঘটেছে৷ দু'জন ফিলিস্তিনির ছুরি আক্রমণে একজন ইসরায়েলি আহত হয়েছেন৷ এছাড়া একজন ইহুদি এক ইসরায়েলি সৈন্যের গুলিতে নিহত হয়েছেন৷ দৃশ্যত সৈন্যটি তাকে ‘‘সন্ত্রাসবাদী'' বলে মনে করেছিল৷

এই সহিংসতার স্রোতে অক্টোবর মাসে এ পর্যন্ত ৪৯ জন ফিলিস্তিনি ও আটজন ইসরায়েলি নিহত হয়েছেন৷

এসি/জেডএইচ (এএফপি, এপি, রয়টার্স, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়