1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

হংকংয়ে আবার নিস্ফল আলোচনা, বাড়ছে বিক্ষোভবিরোধী ক্ষোভ

হংকংয়ে পরিস্থিতির কোনো উন্নতি নেই৷ বরং মঙ্গলবার বেইজিংপন্থি নেতাদের সঙ্গে সরাসরি আলোচনা শেষ করে হতাশাই ব্যক্ত করেছে স্টুডেন্ট ফেডারেশন৷ অন্যদিকে আপাত নিস্ফলা প্রতিবাদ-বিক্ষোভের বিরুদ্ধে ক্ষোভ বাড়ছে৷

মঙ্গলবার প্রথমবারের মতো বেইজিংপন্থি নেতাদের সঙ্গে সরাসরি আলোচনায় বসে হংকং স্টুডেন্ট ফেডারেশন৷ কিন্তু আলোচনা শেষে সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক অ্যালেক্স চাও সরকারের কথাবার্তাকে ‘অস্পষ্ট' হিসেবে আখ্যায়িত করে বলেন, ‘‘ভবিষ্যতে আমরা এমন আলোচনায় আর অংশ নেবো কিনা ভেবে দেখতে হবে৷ এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে হবে আমাদের৷ সরকারকে সমস্যা সমাধানের উপায় বের করতে হবে৷ এখন তাঁরা যা বলছেন তাতে বাস্তবসম্মত কোনো প্রস্তাব নেই৷''

Beginn von Gesprächen in Hongkong 21.10.2014 Studenten verfolgen die Live-Übertragung

বিক্ষোভ সমাবেশ

মঙ্গলবার রাতের এ আলোচনার পর কয়েকজন ছাত্র মিছিল করে হংকংয়ের নেতা লিউং চুন-ইং-এর বাড়িতে যায়৷ তবে এমন কর্মসূচিতেও দাবি আদায়ের সম্ভাবনা খুব কম৷ বিশ্লেষকদের মতে, প্রতিবাদ-বিক্ষোভ ধীরে ধীরে জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ছে৷ বিশেষ করে স্থানীয় জনগণের মাঝে অসন্তোষ দেখা দিচ্ছে৷

স্থানীয়দের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের বেশ কয়েকবার বাকবিতণ্ডা হয়েছে৷ বুধবার বিক্ষোভবিরোধী একটি সংগঠন ‘মংকক' রাস্তার সব বাধা সরানোর চেষ্টা করে৷ আরেক জায়গায় রাস্তার ব্যারিকেডের সামনে ট্যাক্সি থামিয়ে জনজীবন অচল করে দিয়ে চালানো বিক্ষোভের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানায় সংগঠনটি৷

Beginn von Gesprächen in Hongkong

আলোচনায় ছাত্রপ্রতিনিধিরা

বুধবার একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে ফেসবুকে৷ সেখানে দেখা গেছে ছাত্র নেতা অ্যালেক্স চাও এক বাস স্টপে দাঁড়িয়ে আছেন৷ তাঁকে দেখে এক বৃদ্ধ নারী এগিয়ে এসে বলেন, ‘‘তোমার মা তোমাকে ভুল করে জন্ম দিয়েছেন৷ জন্মের পরই তিনি তোমাকে গলা টিপে মেরে ফেললে ভালো করতেন৷ এত লেখাপড়া জানা মানুষ হয়েও তুমি এখন হংকংয়ের দুর্ভোগ বাড়াচ্ছো৷ তুমি কি মনে কর চীন কোনোদিন তোমাদের কথা শুনবে?''

এসিবি/জেডএইচ (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন