1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

‘স’ তে সেক্স, ‘য’=যৌন, এর নাম গুগল

আরো অনেক ভাষার সঙ্গে গুগল সার্চ এর রয়েছে বাংলা ইন্টারফেস৷ সেইসঙ্গে শব্দ খোঁজার সম্ভাব্য তালিকা৷ কিন্তু সেই তালিকা ভরে উঠছে অশ্লীল কিংবা আপত্তিকর শব্দে৷ ফলে বাংলায় কিছু খুঁজতে গেলেই বিব্রত হচ্ছেন সাধারণ ব্যবহারকারীরা৷

default

ফাইল ফটো

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম৷ পড়ালেখার ফাঁকে ফাঁকে ইন্টারনেটে আনাগোনা তাঁর৷ জেনেছিলেন ইন্টারনেটে বাংলায়ও খোঁজা যায়৷ আর তাই শুরুতে নিজের নামটাই লেখার চেষ্টা করেন গুগলে৷ কিন্তু ‘স’ লিখতেই চোখ ছানাবড়া তাঁর৷ সম্ভাব্য তালিকায় যা দেখেছে সে তাতে রীতিমত আক্কেলগুড়ুম অবস্থা৷ তালিকার প্রথম শব্দটি ‘সেক্সি মেয়ে'৷ জানালেন, এমনটা কখনো ভাবিনি আমি৷ গুগলের মতো এমন নাম করা ওয়েবসাইটে এধরণের শব্দের এত কদর কেন?

একইধরণের অভিযোগ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থিনীর৷ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঐ শিক্ষার্থী জানান, বাংলাদেশ নিয়ে কিছু তথ্য বাংলায় খুঁজতে ঢুকেছিলাম গুগল বাংলায়৷ ছোট ভাই ছিল সঙ্গে৷ কিন্তু ‘ব’ লিখতেই সম্ভাব্য তালিকায় প্রথম যে শব্দটি আসে, সেটা ‘বাসর রাত'৷ তারপরেরগুলো আর উচ্চারণ করার মতো নয়৷ গুগল এর এহেন শব্দ তালিকা বেশ বিব্রতকর বলেও দাবি তাঁর৷

গুগল বাংলার এহেন করুণ দশা নিয়ে আলোচনা চলছে বাংলা ব্লগ আঙ্গিনাতেও৷ জনপ্রিয় ব্লগার অমি আজাদ তাঁর পাতায় লিখেছেন, কয়েকদিন আগে আমার এক সহকর্মী গুগলে গিয়ে অনুসন্ধান করার জন্য টাইপ শুরু করে একটি অক্ষর চাপার সাথে সাথেই একগাদা ফলাফল সামনে এসে হাজির৷ ফলাফলগুলি ভালো কিছু না, বরং অশ্লীল কথার সম্ভার৷

অমি'র কথায়, কথিত আছে গুগলে মানুষ যে অনুসন্ধানগুলি চালায়, একটি অক্ষর চাপার সাথে সাথে গুগল্ সেগুলি থেকে সম্ভাব্য ফলাফল সামনে উপস্থাপন করে৷ আমি ধরে নিচ্ছি যে আমাদের দেখে অনেক ইন্টারনেট ব্যবহারকারী আছে যারা ইন্টারনেটকে এখনো অশ্লীল কাজের জন্য ব্যবহার করে এবং যেটা বন্ধ করা কোনো ভাবে সম্ভব না৷ কিন্তু গুগল কি পারেনা সেই ফলাফলগুলিকে একটু মার্জিত করতে?

গুগল বাংলায় অশ্লীল বাক্যের এই তালিকা দেখে বিব্রত এবং লজ্জিত কমবেশী সবাই৷ কেউ কেউ চেষ্টা করেছেন সেটা ফিল্টারিং এর মাধ্যমে বন্ধ করতে৷ গুগল বাংলার প্রিফারেন্সে গিয়ে সম্ভাব্য তালিকা প্রদানের অপশনটি বন্ধ করে দিলে খানিকটা সুবিধা পাওয়া যায়৷ কিন্তু ব্যাপক অর্থে সেটা কতটা কাজে আসবে বলা মুশকিল৷ আর তাই, এগিয়ে আসা উচিত গুগল সংস্থাকে৷ কেননা ইংরেজি সার্চের ক্ষেত্রে অনেক অশ্লীল বা দৃষ্টিকটু শব্দ সম্ভাব্য তালিকা থেকে বাদ রাখতে সক্ষম গুগলের প্রযুক্তি৷ সেটা নিশ্চয়ই বাংলার ক্ষেত্রেও ব্যবহার সম্ভব৷

প্রতিবেদক: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দোপাধ্যায়

সংশ্লিষ্ট বিষয়