1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

স্মার্ট টুথব্রাশ চেনে কর্তার স্মার্টফোনকে

দাঁতের সুরক্ষায় স্মার্টফোন ব্যবহার বা সাইকেল চালাতে চালাতে রক্তে চিনির পরিমাণ মাপা, এসব যন্ত্র আগামীতে বাজারেই পাওয়া যাবে৷ ব্লুটুথ-যুক্ত টুথব্রাশ, রক্তে চিনির পরিমাণ মাপতে হাতে পরার সেন্সর, এ সব আর কল্পকাহিনি থাকবে না৷

ভিডিও দেখুন 02:38

দাঁতের সুরক্ষায় স্মার্টফোন ব্যবহার!

স্মার্টফোনের সঙ্গে যুক্ত টুথব্রাশ৷ দাঁতের উপর বেশি চাপ দিলে ব্যবহারকারীকে সতর্ক করে দেবে এই ব্রাশ৷ দাঁত ব্রাশ করার সময়ই পাশাপাশি স্মার্টফোনে পড়া যাবে সংবাদ, পাওয়া যাবে আবহাওয়ার তথ্য৷ আগামী গ্রীষ্ম নাগাদ ব্লুটুথ-যুক্ত এমন টুথব্রাশ বাজারে আসবে৷ ব্রাউন কোম্পানির হান্সইয়র্গ রাইক: ‘‘দাঁত পরিষ্কারের সময় টুথব্রাশ এবং স্মার্টফোনের মধ্যে নীরবে সংযোগ তৈরি হয়৷ পুরো প্রক্রিয়াটি স্বয়ংসম্পূর্ণ৷ অর্থাৎ আপনি ব্রাশ চালু করার পর অ্যাপও চালু হবে এবং দাঁত ব্রাশের সময় স্বয়ংক্রিয়ভাবে সেটি কাজ করবে৷''

মোবাইল ফোন মেলায় নতুন ট্রেন্ড হিসেবে ছিল স্বাস্থ্য সম্পর্কিত বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন৷ যেমন একজন সাইকেল চালকের রক্তে চিনির পরিমাণ নিরবিচ্ছিন্নভাবে পরীক্ষা করা হচ্ছে৷ এ জন্য তাঁর হাতে লাগানো রয়েছে একটি বিশেষ সেন্সর, যা প্রতি দু'মিনিট পরপর চিনির পরিমাণ পরীক্ষা করে এবং ফলাফল স্বয়ংক্রিয়ভাবে অন্যত্র পাঠিয়ে দেয়৷ এই পণ্যটি স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে৷ জিএসএমএ কানেক্টেড লিভিং-এর লাউরেন সারনো বলেন: ‘‘পৃথিবীর দশ শতাংশ মানুষের ডায়বেটিস রয়েছে৷ আমরা মনে করি এটা বিশাল বাজার এবং এ ধরনের পণ্য ব্যবহারের ট্রেন্ডও ক্রমশ বাড়ছে৷''

মোবাইল মেলায় ফিটনেস ঘড়িরও দেখা মিললো৷ হুয়াওয়াই-র তৈরি এই ঘড়ি ব্যবহার করে স্মার্টফোন পকেটে রেখেও ফোন কল গ্রহণ করা যাবে৷ স্যামসাং তা না পারলেও ঘড়িটির বাঁকানো রঙিন ডিসপ্লে বেশ দৃষ্টিনন্দন৷ আর ওজন মাত্র ২৭ গ্রাম৷ তবে ফিটনেস ঘড়ির দাম এখনো জানা যায়নি৷ স্যামসাং ইলেক্ট্রনিক্স-এর বারবারা গেল বললেন:

‘‘এটা আসলে হাতের কব্জিতে সব প্রয়োজনীয় তথ্য পৌঁছে দেবে৷ আপনি এই ঘড়িতে ‘ইনকামিং কল' গ্রহণ করতে পারবেন, ‘ম্যাসেজ' পড়তে পারবেন৷ আবার শরীরের হার্টবিট পরীক্ষা করে বুঝতে পারবেন বিশ্রামের প্রয়োজন আছে কিনা৷''

আসলে প্রযুক্তির ব্যবহার কোথায় থাকছে না! খেলোয়াড়দের পোশাকের কথাই ধরুন৷ এই বাস্কেটবল খেলোয়াড়দের জার্সির সঙ্গে সাধারন জার্সির পার্থক্য বোঝা কঠিন৷ অথচ এতে রয়েছে বিশেষ সেন্সর, যা খেলোয়াড়ের গতিপথ এবং পালস সম্পর্কিত তথ্য সাথে সাথে কোচের কাছে পাঠিয়ে দেয়৷ ‘ইন্টারন্যাশনাল সিটিজেন সায়েন্সেস'-এর গিলবার্ট রেভেইলন বললেন: ‘‘পোশাকে সেন্সর বসানোই হচ্ছে আমাদের মূল লক্ষ্য৷ সেন্সরটি এমনভাবে বসাতে হবে যাতে তা খেলোয়াড়, রোগী কিংবা অ্যাথলিটকে অস্বস্তিতে না ফেলে৷''

এই প্রযুক্তির পেছনে ২০ মিলিয়ন ইউরো খরচ করছে এক ফরাসি কনসর্টিয়াম৷ ধারণা করা হচ্ছে, সেপ্টেম্বর নাগাদ বাজারে পাওয়া যাবে সেন্সরযুক্ত জার্সি, যার দাম হবে ১৫০ ইউরোর মতো৷

বিশেষ ঘোষণা: এই সপ্তাহের অন্বেষণ কুইজে অংশ নিতে ক্লিক করুন এখানে

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও