1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি ইউরোপ

স্বাধীনতার পথে স্কটল্যান্ডের দুস্তর যাত্রা

আর মাত্র ছয় মাস৷ তারপরই স্কটল্যান্ডের স্বাধীনতার ব্যাপারে গণভোট অনুষ্ঠিত হবে৷ যুক্তরাজ্য থেকে বের হয়ে যাওয়াটা যে সহজ নয়, সেটা অবশেষে বুঝতে পারছেন ইউরোপের এই দেশটির জাতীয়তাবাদীরাও৷

default

স্কটল্যান্ডের মুখ্যমন্ত্রী অ্যালেক্স স্যালমন্ড

ইইউ-তে যোগদান অসুবিধাজনক

স্কটল্যান্ডের স্বাধীনতা প্রসঙ্গে ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট জোসে মানুয়েল বারোসো বলেন, ‘‘স্কটল্যান্ডের পক্ষে ইউরোপীয় ইউনিয়নে যোগদান করা অসুবিধাজনক হবে, বলা যায় প্রায় অসম্ভব৷''

তিনি সতর্ক করে বলেন, স্পেনের মতো ইইউ-এর অন্যান্য সদস্য রাষ্ট্রগুলিও এর বিরোধিতা করতে পারে৷ কেননা এর ফলে তাদের দেশের বিচ্ছিন্নতাবাদী আন্দোলনগুলি উৎসাহিত হয়ে উঠতে পারে৷

Schottland Unabhängigkeitsbewegung

সর্বশেষ জরিপে দেখা যায়, স্কটল্যান্ডের স্বাধীনতার পক্ষে জনমত বৃদ্ধি পেয়েছে

বারোসো-র মন্তব্যকে তেমন গুরুত্ব দিতে চান না স্কটল্যান্ডের জাতীয়তাবাদীরা৷ এডিনবরার রাজ্যসংসদের অর্থমন্ত্রী জন সুইনে বলেন, ‘‘স্কটল্যান্ড ৪০ বছর ধরে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্য৷ আমরা তো ইইউ-এরই অংশ৷''

কারোই লাভ হবে না

অ্যাবারডিন ইউনিভার্সিটির রাষ্ট্রবিজ্ঞানের প্রফেসর মাইকেল কিটিংও একই মত পোষণ করেন৷ স্কটল্যান্ডকে বাদ দিলে কারোই লাভ হবে না৷ স্কটল্যান্ড, যুক্তরাজ্যের বাকি অংশ বা অন্যান্য সদস্য রাষ্ট্র কারোই এটা কাম্য নয়৷ ইইউ-এর সদস্য হওয়ার জন্য আবেদন করা স্কটল্যন্ডের জন্য জরুরি৷ আর এই আবেদন গ্রহণ করা হলে বারোসোর বক্তব্য ভুল বলে প্রমাণিত হবে৷

Schottland Unabhängigkeit von Großbritannien

স্কটল্যান্ডের স্বাধীনতা প্রশ্নে সেপ্টেম্বরে গণভোট অনুষ্ঠিত হবে

লন্ডন জানিয়েছে, স্কটল্যান্ড স্বাধীন হলে ব্রিটিশ পাউন্ড রাখতে পারবে না৷ ব্রিটিশ অর্থমন্ত্রী জর্জ অসবোর্ন স্বাধীন স্কটল্যান্ডের সাথে ব্রিটেনের একটি অভিন্ন মুদ্রা ইউনিয়নের কথা উড়িয়ে দিয়েছেন৷ স্কটল্যান্ডের মুখ্যমন্ত্রী স্কটিশ ন্যাশনাল পার্টির (এসএনপি) অ্যালেক্স স্যালমন্ড দোষারোপ করেছেন এই বলে যে, ইউনিয়নিস্টরা এই ক্ষেত্রে ‘মবিং' করছে৷ স্কটল্যান্ডের নিজস্ব মুদ্রা চালু হলে আর্থিক লেনদেনের ক্ষেত্রে যুক্তরাজ্যের বাকি অংশের বছরে ৫০০ মিলিয়ন পাউন্ড ব্যয় হবে৷ শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলি এটা মেনে নেবে না৷

মুদ্রাব্যবস্থা নিয়ে চিন্তাভাবনা

এসএনপি এবং ‘ইয়েস স্কটল্যান্ড' আন্দোলন মনে করে স্বাধীন হলেও যুক্তরাজ্যের বাকি অংশের সাথে একটি অভিন্ন মুদ্রাব্যবস্থা (স্টের্লিং-ইউনিয়ন) চালু থাকবে৷ কিন্তু এ ব্যাপারে তারা ক্রমেই চাপের মুখে পড়ছে৷ এ জন্য তাদের একটি ‘প্ল্যান বি-র' পরিকল্পনা করতে হচ্ছে৷

Britisches Pfund Ein-Pfund-Münze

লন্ডন জানিয়েছে, স্কটল্যান্ড স্বাধীন হলে ব্রিটিশ পাউন্ড রাখতে পারবে না

ইউরো মুদ্রা-ইউনিয়নে ঢোকার সুযোগও আপাতত তাদের নেই৷ এমনিতেই দুই বছরের আগে তা সম্ভব নয়৷ এ জন্য তাদের প্রথমে ‘ইউরোপিয়ান এক্সচেঞ্জ রেট এগ্রিমেন্ট' বা ইউরোপীয় বিনিময়হার চুক্তি করতে হতো৷

স্কটিশ ট্রেড ইউনিয়ন কনফেডারেশনের স্টেফেন বয়েড বলেন, ‘‘আসলে কোনোটাই ভালো বিকল্প নয়৷ অল্প খারাপ কোনটা, সেটাই এখন চিন্তা করতে হবে৷''

যদিও এসএনপি-র নেতৃত্ব বারবার বলছেন তাঁরা স্টের্লিং চালু রাখতে চান৷ কিন্তু ‘ইয়েস' ঘরানার কয়েকজন জানিয়েছেন, তাঁরা নিজস্ব মুদ্রাব্যবস্থাকে অগ্রাধিকার দিতে আগ্রহী৷

তবে নিজস্ব মুদ্রার প্রবর্তন কিছু সমস্যার সৃষ্টি করবে বলে মনে করেন বয়েড৷ কেননা তাহলে স্কটল্যান্ডকে প্রয়োজনীয় বিদেশি মুদ্রার রিজার্ভ গড়ে তুলতে হবে৷ এ কারণে স্কটিশ সরকারকে যুক্তরাজ্যের সঙ্গে অভিন্ন মুদ্রা ইউনিয়নে থাকাটাই শ্রেয় হবে৷ তা নাহলে অহেতুক ঝামেলার সৃষ্টি হবে৷

José Manuel Barroso, Präsident der Europäischen Kommission

ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট বারোসো বলেন, ‘‘স্কটল্যান্ডের পক্ষে ইইউতে যোগদান করা অসুবিধাজনক হবে, বলা যায় প্রায় অসম্ভব৷''

অনেকে রয়েছেন সিদ্ধান্তহীনতায়

সর্বশেষ জরিপে দেখা যায়, স্কটল্যান্ডের স্বাধীনতার পক্ষে জনমত বৃদ্ধি পেয়েছে৷ যদিও ইউনিয়নিস্টদের চেয়ে এখনও খানিকটা পিছিয়ে আছে তারা৷ অনেকেই আবার এব্যাপারে দ্বিধান্বিত৷ আর তাদের ওপরই নির্ভর করবে গণভোটের ফলাফল৷ সোফি ম্যাককুকও তাদের একজন৷ তিনি জানান, ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও মুদ্রা ব্যবস্থা নিয়ে মাথা ঘামাননি আগে৷ ‘‘মুদ্রার বিষয়টি ইন্টারেস্টিং৷ এখন এনিয়ে বিতর্কটা জোরালো হচ্ছে, তাই এ ব্যাপারে চিন্তা করতে হবে'', বলেন সোফি৷

এই রকমই আর একজন এডিনবরার ওয়েব ম্যানেজার জেন কার্নেল৷ ইইউ-এর সদস্যপদের ব্যাপারে বারোসোর বক্তব্যকে ‘মনযোগ ঘুরিয়ে দেওয়ার' প্রচেষ্টা বলে মনে করেন তিনি৷ তবে তাঁর মতে তেলসমৃদ্ধ স্কটল্যান্ডের জন্য মুদ্রাব্যবস্থার একটা বড় ভূমিকা রয়েছে৷

স্কটল্যান্ডের স্বাধীনতা: হ্যাঁ কিংবা না? এই বিতর্ক সারা স্কটল্যান্ডেই এখন তুঙ্গে৷ অনেক ভোটারই এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে পারেননি৷ সেপ্টেম্বরে গণভোট হওয়া পর্যন্ত পথটি খুব মসৃণ হবে না৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়