1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

স্বর্ণখনির খনন রুখতে মরিয়া রোমানিয়া আর গ্রিস

লক্ষ লক্ষ ইউরো আয় হবে, কর্মসংস্থান হবে অনেকের – এমন প্রলোভনেও কাজ হচ্ছে না রোমানিয়া আর গ্রিসে৷ দেশ দুটিতে স্বর্ণ উত্তোলনের জন্য খননকাজ শুরুর পরিকল্পনা চলছে৷ পরিকল্পনার বাস্তবায়ন রুখতে ফুঁসে উঠছে মানুষ৷

রোমানিয়ায় খনন শুরু হওয়ার কথা ২০১৬ সালে৷ কাজটি করবে ক্যানাডার প্রতিষ্ঠান গ্যাব্রিয়েল রিসোর্সেস আর কাজাখস্তানের এসএটি অ্যান্ড কোম্পানি৷ গ্রিসের হালকিদিকি উপদ্বীপের দুটি জায়গায় স্বর্ণ উত্তোলনের দায়িত্ব পেয়েছে সে দেশেরই এলডোরাডো গোল্ড৷ কিন্তু কাজ শুরুর আগেই শুরু হয়েছে বিক্ষোভ, প্রতিবাদ৷ পরিবেশবিদ এবং ভূতাত্বিকরা বলছেন, পরিকল্পনা অনুযায়ী খনন কাজ চললে পরিবেশের ভয়ানক ক্ষতি হবে৷

রোমানিয়ায় খনন কাজ চালাতে চারটি পাহাড় বিস্ফোরণে সমতল করা হবে৷ সে দেশের বিজ্ঞান বিষয়ক সবচেয়ে বড় সংস্থা রোমানিয়ান অ্যাকাডেমি সম্প্রতি খননের বিপক্ষে ২১টি যুক্তি দেখিয়েছে৷ পাহাড় ধসাতে বিস্ফোরণ ঘটালে আশপাশে ভূমিকম্পের আশঙ্কার কথাও বলা হয়েছে সেখানে৷ এছাড়া মাটির নিচ থেকে সোনা তোলার কাজে যে সায়ানাইড ব্যবহার করা হয়, তাতেও সমূহ বিপদের আশঙ্কা রয়েছে বলে মনে করেন বিজ্ঞানীরা৷ রোমানিয়ায় ৩০০ টন সোনা তুলতে বছরে ব্যবহার করা হবে ১২ হাজার টন সায়ানাইড৷ যেখানে এই বিপুল পরিমাণ সায়ানাইড রাখা হবে, সেখানে কোনো রকমের দুর্ঘটনা ঘটলেও বিপর্যয় নেমে আসতে পারে৷ বিজ্ঞানীদের সেরকমই আশঙ্কা৷

Protesters shout slogans as they take part in a demonstration against the opening of the Rosia Montana open cast gold mine, in Bucharest, Romania, 01 September 2013. Romania's government has approved a draft law enabling Canada's Gabriel Resources to open the mine. EPA/MIHAI BARBU +++(c) dpa - Bildfunk+++

রোমানিয়ায় কাজ শুরুর আগেই শুরু হয়েছে বিক্ষোভ, প্রতিবাদ৷ পরিবেশবিদ এবং ভূতাত্বিকরা বলছেন, খনন কাজ চললে পরিবেশের ভয়ানক ক্ষতি হবে

তাছাড়া যত কর্মসংস্থানের সুযোগ হবে বলে দাবি করা হয়, বাস্তবে সেরকম হয়না বলেও জানিয়েছেন রাজভান ওরসানু৷ রোমানিয়ার এই অর্থনীতিবিদ বলেছেন, ‘‘অন্যান্য শিল্পের মতো খনন কাজে খুব বেশি লোকের কর্মসংস্থানের সুযোগ নেই৷'' সুযোগ হলেও শেষ পরিণতি যে খারাপ হয় – এ কথা দৃষ্টান্ত দিয়েই বুঝিয়েছেন ওরসানু, ‘‘চারটি স্টিল প্ল্যান্ট ৫ হাজার মানুষকে কাজ দিয়েছিল৷ এই গ্রীষ্মে সবগুলো দেউলিয়া হয়ে গেছে৷ তা ঠেকাতে সরকার কিন্তু কোনো ব্যবস্থাই নেয়নি৷''

অথচ অর্থনৈতিকভাবে বিপর্যস্ত দেশ রোমানিয়া আর গ্রিসের সরকার এখন উত্তোলিত স্বর্ণের ভেতরেই দেখছে উন্নয়নের জোয়ার৷ অথচ খনিতে বড় রকমের দুর্ঘটনা এ অঞ্চলে নতুন কিছু নয়৷ গ্রিসে ২০০০ সালের এক বিস্ফোরণের ফলে এক লক্ষ ঘন ফুট সায়ানাইড নেমে এসেছিল দানিয়ুব নদীতে৷ ঘটনার পর কাজ বন্ধ করতে বাধ্য হয় অস্ট্রেলিয়ার এসমেরালডা কোম্পানি৷ মাত্র ১৩ বছর আগের এ অতীতকে ভুলে নতুন করে স্বর্ণ খননের পরিকল্পনার দিকে হাঁটছে গ্রিস সরকার৷ সরকারের বাইরের সব মহল থেকেই উঠেছে প্রতিবাদের ঝড়৷

এসিবি/এসবি (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন