1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি ইউরোপ

স্পেনের তরুণদের আর রাজতন্ত্রে রুচি নেই

স্পেনের রাজা হুয়ান কার্লোস সিংহাসন ছাড়তে চান৷ তাঁর স্থলাভিষিক্ত হবেন তাঁর জ্যেষ্ঠপুত্র ফেলিপে এবং রাজা ষষ্ঠ ফেলিপে হিসেবে রাজকার্য চালাবেন৷ কিন্তু দেশের তরুণ সমাজ চাইছে রাজা-বদলের পরিবর্তে পালাবদল৷

রাজা হুয়ান কার্লোসকে দেশ চিরকাল মনে রাখবে, কেননা জেনারেল ফ্রাংকোর একনায়কতন্ত্রের পর স্পেনের গণতন্ত্রে উত্তরণের পথে এই নৃপতির বিশেষ অবদান ছিল৷ কিন্তু সে ঘটনাটি ঘটে ১৯৭৫ সালে: আজকের তরুণদের অধিকাংশের জন্ম তার অনেক পরে৷ রাজা হুয়ান কার্লোসের বয়স আজ ৭৬, তাঁর সুযোগ্য পুত্র ফেলিপের বয়স ৪৬৷ তরুণ প্রজন্মের বাস্তবের সঙ্গে আজকের রাজপরিবারের যোগাযোগ সামান্যই, বলে যুব সমাজের ধারণা৷

রাজা হুয়ান কার্লোস ১৯৮১ সালে টেলিভিশনে আবির্ভূত হয়ে একটি সামরিক অভ্যুত্থান রোধ করেছিলেন৷ কিন্তু ২০১২ সালে সেই নৃপতিই স্পেনে যুব বেকারত্ব নিয়ে হা-হুতাশ করার পর বতসোয়ানায় গিয়েছিলেন হাতি শিকার করতে৷ তারপর তাঁর কনিষ্ঠ কন্যা ক্রিস্টিনার স্বামী ইনাকি উর্দাঙ্গারিনকে নিয়েও দুর্নীতির মামলা হয়েছে এবং রাজকুমারী ক্রিস্টিনাকে সেই মামলায় প্রকাশ্য আদালতে সাক্ষ্য দিতে হয়েছে৷

এ সব কিছুর ফলে রাজপরিবার অথবা রাজতন্ত্রের জনপ্রিয়তা বাড়েনি, বরং আরো কমেছে৷ গত জানুয়ারির একটি জরিপ অনুযায়ী, স্পেনের অর্ধেকের কম মানুষ আজ রাজতন্ত্রের সপক্ষে৷ রাজপরিবারের প্রতি সমর্থন এর আগে কখনো এত নীচে নামেনি৷ ওদিকে গত মে মাসের একটি জরিপ অনুযায়ী ৩৫ বছরের কম বয়সি স্পেনীয়দের একটি সংখ্যাগরিষ্ঠ অংশ আজ নিজেদের ‘রিপাবলিকান', অর্থাৎ প্রজাতন্ত্রের সমর্থক বলে মনে করে৷

অপরদিকে স্পেনের ‘স্থায়িত্ব' নিয়ে একটা সমস্যা ছিল এবং থেকেই যাচ্ছে: কাতালোনিয়া ও বাস্ক প্রদেশ স্বাধীন হতে চায়, স্পেন থেকে বিচ্ছিন্ন হতে চায়৷ সেক্ষেত্রে রাজা, রাজপরিবার ও রাজতন্ত্র, সব মিলিয়ে একটা মিলনের যোগসূত্র হিসেবে কাজ করে বৈকি৷ ইউরোপের রাজপরিবারদের পারস্পরিক চেনাজানাই শুধু নয়, মধ্যপ্রাচ্যের রাজপরিবারগুলিও স্পেনের নৃপতির প্রতি বন্ধুসুলভ মনোভাবই পোষণ করে থাকেন – যা ব্যবসা-বাণিজ্যের ক্ষেত্রে স্পেনীয়দের নানা সুযোগ-সুবিধা এনে দিতে পারে৷

সব মিলিয়ে তরুণ স্পেনীয়দের মনোভাব হলো: হুয়ান কার্লোসের পর ফেলিপে রাজত্ব করলে তাদের কোনো আপত্তি নেই, তবে সেটা যদি কালে কোনো আগামী প্রজাতন্ত্রের প্রেসিডেন্টের পদে রূপান্তরিত হয়ে দাঁড়ায়, তাহলে ফেলিপে যেন আশ্চর্য না হন৷

এসি/ডিজি (এএফপি, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন