1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

স্পষ্ট গরিষ্ঠতা নিয়েই জার্মান প্রেসিডেন্ট হলেন ভুল্ফ

সুস্পষ্ট সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়েই ক্রিস্টিয়ান ভুল্ফ জার্মানির নতুন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত ৷ তবে পার্টিমুখী রাজনীতিকদের অসম্মানজনক ক্ষমতার লড়াই-এর কারণে এক ক্ষতদীর্ণ পদে তিনি আসীন হবেন৷

default

চ্যান্সেলর ম্যার্কেলের অভিনন্দন নতুন প্রেসিডেন্টকে

যদি জনগণ এই নির্বাচনে ভোট দিত তাহলে জার্মানি প্রেসিডেন্ট হিসেবে অন্য একজনকে পেত৷ দেশের তিন-চতুর্থাংশ মানুষ মনে মনে বিরোধী পক্ষের প্রার্থী ইওয়াখিম গাউক-কেই রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে চাইছিল৷ তাঁর পরাজয় জার্মানদের মধ্যে অসন্তোষ আর রাজনীতি সম্পর্কে নিরাসক্তির মনোভাবকে আরও জোরদার করবে৷ জার্মান প্রেসিডেন্টের নির্বাচন কখনও পার্টি রাজনীতি থেকে মুক্ত থাকেনি৷ কিন্তু এবার সেটা ঘটেছে মাত্রাধিক৷ চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল ও তাঁর জোট নিজেদের পার্টি রাজনীতির স্বার্থের সঙ্গে সঙ্গতি রাখেন এমন একজনকেই প্রার্থী হিসেবে মনোনীত করেন৷

এই কারণেই বহু জার্মান রাষ্ট্রপ্রধানের পদে ভুল্ফকে চাচ্ছিলেন না৷

দুই বড় বিরোধী দল সামাজিক গণতন্ত্রী এসপিডি ও সবুজ দল নির্দলীয় যাজক ও নাগরিক অধিকারবাদী ইওয়াখিম গাউককে তাদের প্রার্থী হিসেবে দাঁড় করায়, সেটাও ছিল এক সূক্ষ্ম রাজনৈতিক কৌশলমাত্র৷ এর মধ্য দিয়ে তারা এমন একটা ধারণা দিতে পেরেছে যে, রাষ্ট্রের শীর্ষ পদের জন্য সেরা এক ব্যক্তিত্বকেই তারা প্রার্থী করেছে৷ কিন্তু প্রকৃতপক্ষে এটা কোয়ালিশন সরকারকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলার চেষ্টা ছাড়া আর কিছু নয়৷

Flash-Galerie Bundespräsidentenwahl 2010 Applaus Gauck

এসপিডি আর সবুজ দলের প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী ইওয়াখিম গাউক, মাঝে৷

সে যাই হোক, নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টিয়ান ভুল্ফ আন্তর্জাতিক পর্যায়ে কীভাবে দেশের প্রতিনিধিত্ব করতে চান, দেশের ভিতরে কোন্ কোন বিষয়ককে গুরুত্ব দিতে চান, তা পুরোপুরি অস্পষ্ট৷ এমনিতে জার্মান প্রেসিডেন্টের পদটি মূলত প্রতিনিধিত্বমূলক৷ তাঁকে দলীয় রাজনীতির ঊর্ধে গিয়ে সকল নাগরিকদেরই প্রতিনিধিত্ব করতে হবে৷ প্রেসিডেন্টের কাছে নাগরিকরা চাইবেন ভবিষ্যতের দিকনির্দেশ৷

ক্রিস্টিয়ান ভুল্ফ-এর পূর্বসূরিরা বিশেষ একটি বিষয়কে অগ্রাধিকার দিয়েছেন৷ হর্স্ট ক্যোয়েলারের কাছে তা ছিল আফ্রিকা, রোমান হেরৎসগের কাছে শিক্ষা, রিশার্ড ফন ভাইৎস্যাকারের কাছে তা ছিল জার্মানির ইতিহাস৷ একথাটি বলতেই হয়, পরাজিত প্রার্থী গাউকও মুক্তি ও স্বাধীন সত্তার বিষয়টিকে ধারণ করেছেন৷ কিন্তু ক্রিস্টিয়ান ভুল্ফ-এর কাছ থেকে বড় মাপের কোন বিষয় আসতে দেখা যায়নি৷ প্রাথমিকভাবে তিনি একটি দলের রাজনীতিক৷ কিন্তু তিনি যে পদে আসীন হচ্ছেন তা দলীয় রাজনীতির ক্ষমতার হিসাবনিকাশের শিকার হয়েছে৷ ক্ষতি হয়েছে পদটির৷

প্রতিবেদন: মার্ক কখ ভাষান্তর: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়