1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘স্থানীয় নির্বাচনে চাপা পড়ে গেছে স্থানীয় ইস্যু'

নবগঠিত গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন যেন জাতীয় নির্বাচনে পরিণত হয়েছে৷ পরিণত হয়েছে দুই বড় দলের মর্যাদার লড়াইয়ে৷ তাই স্থানীয় সরকার নির্বাচনে স্থানীয় ইস্যুই চাপা পড়ে গেছে৷ তাদের উন্নয়ন, তাদের আকাঙ্খা প্রাধান্য পায়নি৷

শনিবার গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের হিসাবে থাকছে, সরকার জনপ্রিয়তা হারিয়েছে না ধরে রাখতে পেরেছে; আর বিরোধী দল কতটা এগিয়েছে৷ বলা বাহুল্য, এই হিসাবের লক্ষ্য জাতীয় নির্বাচন৷ এর আগে চারটি সিটি কর্পোরেশনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীরা পরাজিত হয়েছেন৷ জয়ী হয়েছেন বিরোধী দল বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীরা৷  তাতে বিএনপির কথা হলো, সরকারকে সাধারণ মানুষ প্রত্যাখ্যান করেছে৷ অন্যদিকে সরকারের কথা হলো, তাদের অধীনে যে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব – তা প্রমাণ হয়েছে৷ তবে পরাজয় যে তাদের জন্য সতর্ক সংকেত, তাও মনে করছেন তারা৷

তাই গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন স্থানীয় সরকার নির্বাচন না হয়ে দুই দলের মর্যাদার লড়াইয়ে পরিণত হয়েছে৷ যেখানে বিএনপি জয়ের ধারা অব্যাহত রাখতে চায় আর আওয়ামী লীগ ঘুরে দাঁড়াতে চায় গাজীপুরে জিতে৷

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞানের অধ্যাপক ড. শান্তনু মজুমদার ডয়চে ভেলেকে বলেন, রাজনৈতিক দলগুলোই স্থানীয় সরকার নির্বাচনকে জাতীয় নির্বাচনে পরিণত করেছে৷ তারা স্থানীয় পর্যায়ের এই নির্বাচনকে জাতীয় রাজনীতির মল্লযুদ্ধে পরিণত করেছে৷ আর তাতে হাওয়া দিচ্ছে সংবাদমাধ্যম এবং সুশীল সমাজের একাংশ৷ তারাও নির্বাচনে জাতীয় ইস্যুকে তুলে আনছেন৷ তা নিয়ে আলোচনা করছেন, করছেন বিশ্লেষণ৷ তাতে চাপা পড়েছে স্থানীয় ইস্যু৷ তিনি বলেন, গাজীপুরে স্থানীয় অনেক সমস্যা আছে৷ রাস্তা-ঘাটের উন্নয়ন ছাড়াও ঐ এলাকায় মাদকের ব্যবহার বেড়ে গেছে৷ শিল্পঞ্চল হওয়ায় বিশেষ করে পোশাক শ্রমিকদের অনেক দাবি আছে৷ এই যেমন, আবাসস্থলের নিরপত্তা, চলাচলের নিরাপত্তা৷ এছাড়া সাধারণ মানুষের জন্য খেলার মাঠ, পার্ক – এ রকম নানা ইস্যু রয়েছে৷ কিন্তু এই নির্বাচনে তা প্রাধান্য পায়নি৷ ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হবে এই এলাকার সাধারণ মানুষ৷ কারণ, প্রার্থীরা উন্নয়নের কোনো প্রতিশ্রতি না দিয়ে জাতীয় ইস্যু নিয়ে ভোট চেয়েছেন৷

শান্তনু মজুমদার বলেন, এর ফলে স্থানীয় সরকার-ব্যবস্থা ক্ষতিগ্রস্ত হবে৷ স্থানীয় সরকার হারিয়ে ফেলবে তার চরিত্র৷ এছাড়া স্থানীয় সরকার জাতীয় রাজনীতির চরিত্র পাবে, স্থানীয় উন্নয়ন নিয়ে ভাববে না৷

তিনি মনে করেন, এ ব্যাপারে নির্বাচন কমিশন তার ভূমিকা সঠিকভাবে পালন করেনি৷ তারা স্থানীয় সরকার নির্বাচনের চরিত্র অক্ষুন্ন রাখতে পারেননি৷

গাজীপুরের শনিবারের নির্বাচনে মেয়র পদে মোট প্রার্থী সাতজন৷ তবে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হচ্ছে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রর্থী আজমত উল্লাহ খান এবং বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী এম এ মান্নানের মধ্যে৷ ভোটার হলো ১০ লাখেরও বেশি৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন