1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

সৌরজগতের বাইরে সন্ধান মিলল এক্সোপ্ল্যানেটের

সৌরজগতের বাইরে ক্ষুদ্রতম গ্রহের সন্ধান পেয়ে গেল বিজ্ঞান৷ পাথুরে এই রহস্যময় গ্রহের নাম রাখা হয়েছে এক্সোপ্ল্যানেট৷ পৃথিবী থেকে ৫৬০ আলোকবর্ষ দূরে থাকা এই গ্রহ তার কক্ষপথে ঘুরে চলেছে৷

এক্সোপ্ল্যানেট, মহাশূণ্য, নাসা, গ্রহ, সৌরজগৎ, সূর্য, পৃথিবী, গবেষণা, আলোকবর্ষ

এক্সোপ্ল্যানেট তার নক্ষত্রের খুবই কাছাকাছি কক্ষপথে ঘুরছে

নাসার এক মহাকাশযান কিছুদিন আগে প্রথম সন্ধান পায় এই এক্সোপ্ল্যানেটের৷ মহাকাশ বিজ্ঞানের পরিভাষায় তার নাম কেপলার টেন বি৷ গত ছয়মাস যাবৎ একাধিক ছবি তুলে, নানান গবেষণা চালিয়ে যে সব তথ্য পাওয়া গেছে তা বেশ বিস্ময়কর৷ বিস্ময়কর কারণ, আমাদের চেনা সূর্য এবং তার গ্রহ পরিবারের বাইরেও যে কোন দ্বিতীয় তারাকে ঘিরে গ্রহের অস্তিত্ব আছে, সেটা এই প্রথম জানা গেল৷ এই পৃথিবী থেকে সেই এক্সোপ্ল্যানেটের দূরত্বটাও কিন্তু কম নয়, ৫৬০ আলোকবর্ষ৷

কিন্তু দূরের এই গ্রহ, যার আয়তন পৃথিবীর থেকে ১.৪ ভাগ বেশি, তাতে পাথর তো আছে পৃথিবীর মতই৷ প্রাণ আছে কী? এ প্রশ্নের জবাবও দিয়েছে নাসা৷

Flash-Galerie Die Sombrero Gallaxy aufgenommen von dem Hubble Space Teleskop

অসীম মহাশূণ্যের বহু রহস্যই এখনও মানুষের আয়ত্ত্বের বাইরে

বলছে, এই গ্রহটি যেহেতু তার সূর্য বা যে নক্ষত্রকে কেন্দ্র করে ঘুরছে, তার খুব কাছাকাছিই রয়েছে মহাশূণ্যে, অতএব প্রাণ সেখানে থাকার কোন সম্ভাবনাই নেই৷ কারণটাও ব্যাখ্যা করা হয়েছে৷ জানা গেছে, অতবড় একটা নক্ষত্রের কাছাকাছি থাকলে সেখানে প্রাণ থাকতে পারে না৷ প্রবল উত্তাপ আর তীব্র আকর্ষণের অভিঘাতে কোন প্রাণের সেখানে টিঁকে থাকা অসম্ভব৷ যেহেতু তার সূর্যের খুব কাছেই এই এক্সোপ্ল্যানেটের অবস্থান, অতএব বড় নক্ষত্রের ছায়ায় এক্সোপ্ল্যানেটের শরীরের ওপরের দিকটি প্রায় সব সময়েই আচ্ছন্ন৷ নাসার মহাকাশযানের তোলা ছবিতে তাই দেখা যাচ্ছে, এক্সোপ্ল্যানেটের ওপরের দিকটি প্রায় অন্ধকার আর নীচের দিকের রং ঘনলাল থেকে ক্রমশ উজ্জ্বল সোনালি আকার ধারণ করেছে৷ বিজ্ঞানীরা বলছেন, মহাজাগতিক রশ্মির পরিবর্তনের সঙ্গে তাল রেখে এই এক্সোপ্ল্যানেট নানান সময়ে তার রং বদলে ফেলে৷

অসীম মহাকাশে এ ধরণের এক্সোপ্ল্যানেটের সন্ধান আরও মিলবে অদূর ভবিষ্যতে৷ এ সবে শুরু৷ জানিয়েছেন নাসার বিজ্ঞানীরা৷ কারণ, যত সময় পেরোবে, উন্নত যন্ত্রপাতির কল্যাণে ক্রমশ এ ধরণের আরও গ্রহদের সন্ধানও পাওয়া যাবে৷

কে জানে, সেরকম কোন এক্সোপ্ল্যানেটে হয়তো বা প্রাণের সন্ধানও মিলবে৷ যে প্রাণ সেই ভিন গ্রহের জীবেরা৷ যাদের নিয়ে এই পৃথিবী গ্রহের কৌতূহল হাজার বছর ধরে বাড়ছে, বেড়েই চলেছে৷

প্রতিবেদন: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম