1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

সৌদি নারীদের গাড়ি চালানোর অনুমতির দাবি বাড়ছে

এক বছর আগে সৌদি আরবে গাড়ি চালিয়ে আইন ভেঙে শাস্তি পেয়েছেন বেশ কয়েকজন নারী৷ এ বছর এক অনলাইন পিটিশনে সৌদি সরকারের কাছে আইন বদলানোর জন্য আরও চাপ দেওয়া হচ্ছে৷

সৌদি আরব পৃথিবীর একমাত্র দেশ, যেখানে নারীদের গাড়ি চালানোর নিয়ম নেই৷ দেশ-বিদেশের অ্যাক্টিভিস্টরা এমন আইন বদলানোর জন্য সৌদি আরবের সরকারের উপর চাপ সৃষ্টি করে চলেছেন৷ শাস্তির ভয় সত্ত্বেও বিচ্ছিন্নভাবে ‘স্টিয়ারিং' ধরছেন অনেক নারী৷ শুধু গত বছরের ২৬শে অক্টোবর আইন অমান্য করে কমপক্ষে ১৬ জন সৌদি নারীর শাস্তি হয়েছে৷ তবে তাঁরা হাতেনাতে দেখিয়ে দিচ্ছেন যে, নারীরাও দিব্যি গাড়ি চালাতে পারেন৷ এমনই একজনের ছবি টুইটারে তুলে ধরেছেন বনি উড৷ তিনি বিক্ষুব্ধ সৌদি নারীদের সাহসের প্রশংসা করেছেন:

আগামী ২৬শে অক্টোবর এই অভিযান চূড়ান্ত রূপ নিতে চলেছে৷ সৌদি সরকারের উদ্দেশ্যে লেখা এক অনলাইন পিটিশনের সমর্থনে স্বাক্ষর সংগ্রহ করা হচ্ছে৷ এর জন্য আলাদা এক ওয়েবসাইটও তৈরি করা হয়েছে৷ যে সব নারী এই মুহূর্তে সাহস করে সৌদি আরবে গাড়ি চালাচ্ছেন, তাঁদেরও নিজেদের ছবি পোস্ট করতে উৎসাহ দিচ্ছেন অ্যাক্টিভিস্টরা৷ টুইটার হ্যাশট্যাগ ছাড়াও ইউটিউব ও ইনস্টাগ্রাম ব্যবহার করতে পারেন তাঁরা৷ ইউটিউবে ‘উইমেন টু ড্রাইভ মুভমেন্ট' নামে আলাদা একটা ভিডিও তালিকাও রয়েছে৷

এমন সাহসী নারীদের প্রতি টুইটারে বহুদিন ধরেই যথেষ্ট সমর্থন দেখা যাচ্ছে৷ যেমন লুইস আহিকার্ট লিখেছেন, ‘সৌদি নারীদের প্রতি আমার সমর্থন':

শুধু গাড়ি চালানো নয়, অন্যান্য ক্ষেত্রেও সৌদি নারীদের এগিয়ে আসতে প্রেরণা দিতে চান অনেকে৷ ‘ফেমিনিস্ট মেজরিটি' টুইটারে নারী অ্যাথলিটদের প্রতি সমর্থন প্রকাশ করে সিএনএন-এর একটি ছবি শেয়ার করেছেন:

এসবি/ডিজি (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়