1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

সৌদি আরবকে আইএস-এর মতো বলায়...

ঘটনার শুরু একটি টুইটকে ঘিরে৷ সেখানে সৌদি আরবকে তথাকথিত ‘ইসলামিক স্টেট' বা আইএস-এর সঙ্গে তুলনা করায় ঐ টুইটার ব্যবহারকারীর বিরুদ্ধে মামলা করা হবে বলে জানান সৌদি বিচার মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা৷

এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে মুখর হয়ে উঠেছেন অন্য টুইটার ব্যবহারকারীরা৷ হ্যাশট্যাগ ‘সু-মি-সৌদি' (#SueMeSaudi) ও ‘সৌদি-অ্যারাবিয়া-ইস-আইসিস' (#SaudiArabiaIsISIS) ব্যবহার করে তাঁরা প্রতিবাদ জানাচ্ছেন৷

সৌদি বিচার মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা সরকারপন্থি আল রিয়াদ পত্রিকাকে জানান, ‘‘বিচার মন্ত্রণালয় ঐ ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা করবে যে বলেছে ‘অ্যাপোসটাসি' বা ধর্মচ্যুতির জন্য একজন মানুষের বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ডের রায় দেয়া ‘আইসিস-এর মতো' কাজ৷''

ধর্মচ্যুতির অভিযোগে ফিলিস্তিনি কবি আশরাফ ফায়াদের বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ডের রায় দেয় সৌদি কর্তৃপক্ষ৷ এই রায়েরই বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেছিলেন ঐ টুইটার ব্যবহারকারী৷ তবে বিচার মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা টুইটার ব্যবহারকারীর নাম কিংবা তাঁকে কী শাস্তি দেয়া হবে সেটা উল্লেখ করেননি৷

আর মহাজন নামে এক টুইটার ব্যবহারকারী অনলাইন নিউজ পোর্টাল মিডলইস্টআই.নেট-এর একটি টুইট রিটুইট করেছেন৷ ঐ টুইটে বিভিন্ন অপরাধের কারণে ইসলামিক স্টেট ও সৌদি আরব কী ধরণের শাস্তি দিয়ে থাকে তা উল্লেখ করা হয়েছে৷

‘দ্য টাইমস'-এর কার্টুনিস্ট পিটার ব্রুকস তাঁর আঁকা একটি কার্টুন টুইট করেছেন৷ এতে দেখা যাচ্ছে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার ক্ষেত্রে আইএস ও সৌদি আরব প্রায় একই উপায় ব্যবহার করে থাকে৷

কিথ স্টোরিয়ার মনে করেন আইএস বা আইসিস ও সৌদি আরবের মধ্যে পার্থক্য হচ্ছে, এখনও পর্যন্ত আইসিস-এর প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থন নেই৷

জেসন স্পেনসার টুইটারে একটি জরিপ আয়োজন করেছিলেন৷ তাতে ভোট পড়েছে ৯৭৩টি৷ এর মধ্যে ৭৫ শতাংশ ভোটার মনে করেন, ধর্মচ্যুতির কারণে একজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়ে সৌদি বাদশা সালমান ‘পুরোপুরি আইসিস-জিহাদিস্ট'-এর মতো কাজ করছেন৷

সংকলন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

প্রিয় পাঠক, আপনারও কি সৌদি আরবকে আইএস-এর মতো মনে হয়? আপনার ভাবনা অন্যদের জানাতে পারেন নীচে মন্তব্যের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়