1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

সোজা রাস্তা পছন্দ নয় ম্যাকাসকিলের

সাইকেল চালাতে অনেকেই ভালোবাসেন৷ স্কটল্যান্ডের ড্যানি ম্যাকাসকিল-ও তেমন৷ কিন্তু আর সবার সঙ্গে তাঁর পার্থক্য হলো, তিনি সোজা রাস্তায় সাইকেল চালাতে পছন্দ করেন না৷ তাঁর পছন্দ ব্যতিক্রমী পথ৷

ম্যাকাসকিল বলেন, ‘‘ট্রায়াল-বাইকিং এর ক্ষেত্রে আমার পছন্দ আমি যা করতে চাই তা করার স্বাধীনতা৷ আমি যখন শহরের মধ্যে সাইকেল চালাই তখন আমি সবসময় দেয়াল, বেড়া কিংবা বাধা খুঁজে বেড়াই৷ এগুলোই আমার সাইকেল চালানোর জায়গা৷''

খাঁজ-কাটা পাহাড়ও তাঁর জন্য কোনো প্রতিবন্ধকতা নয়৷ তাঁর সবশেষ ভিডিও ‘দ্য রিজ'-এ তিনি তাঁর জন্মভূমি স্কটল্যান্ডের ‘আইল অফ স্কাই'-তে প্রায় এক হাজার মিটার উঁচু পর্বতে উঠেছেন৷

তিনি বলেন, ‘‘ঐ ভিডিওতে সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং যে কাজটি আমি করেছি সেটা হচ্ছে, একটি পাথরের টুকরো থেকে অন্য আরেকটি পাথরে গিয়ে পড়া৷ ফাঁকা অংশটি যে খুব বড় ছিল তা নয়, তবে নীচে যে পাথরটি ছিল সেটার ঢাল ছিল একটু ঊর্ধ্বমুখী৷''

এই ভিডিও দিয়ে তিনি তাঁর একটি স্বপ্ন পূরণ করেছেন৷ তিনি সবসময় চেয়েছিলেন চাকায় ভর দিয়ে নিজ এলাকার ঐ পাহাড়টির শীর্ষে উঠতে৷

গত দু'বছর ধরে স্কটল্যান্ডের গ্লাসগো শহরে বাস করছেন ড্যানি ম্যাকাসকিল৷ ইন্টারনেট ভিডিও-র কারণে তিনি এখন তারকা৷ পথেঘাটে চলতে ফিরতে লোকজন এখন তাঁর সঙ্গে কথা বলতে চায়, ছবি তুলতে চায়৷

এই জনপ্রিয়তা ২৮ বছরের ম্যাকাসকিলকে বিস্মিত করেছে৷ তিনি বলেন, ‘‘আমি যখন ছোট ছিলাম তখন পেশাদার সাইকেল চালক হবার কোনো লক্ষ্য আমার ছিল না৷ আমার বর্তমান অবস্থা সত্যিই স্বপ্নের মতো৷ বন্ধুদের সঙ্গে মজা করার জন্যই আমি আমার প্রথম ভিডিওটি তৈরি করেছিলাম৷ আমি কখনই বুঝতে পারিনি এর ফলটা কত বড় হবে৷''

‘ট্রায়াল-বাইকিং'-এর শুরু গত শতকের সত্তরের দশক থেকেই৷ মোটরসাইকেল দিয়ে খেলা থেকেই এর উৎপত্তি৷ চার বছর বয়স থেকেই ম্যাকাসকিল এই বিষয়ে প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন৷ কয়েকটি কৌশল রপ্ত করতে তিনি কয়েক বছর সময় নিয়েছেন৷ দুর্ঘটনা আর ইনজুরি তাঁর অনুশীলনের অংশ৷ কিন্তু সেসবকে বাধা হিসেবে দেখেন না তিনি৷ ‘‘অবশ্যই, আমার বেশ কয়েকবার হাড় ভেঙেছে৷ আসলেই সংখ্যাটা অসংখ্যবার৷ কিন্তু আমি এটাকে কখনই বাধা হিসেবে দেখিনি৷ এটা কেবল সুস্থ হয়ে ওঠা এবং তারপর আবার সাইকেল নিয়ে বেরিয়ে পড়ার মতো ব্যাপার৷''

প্রথম ভিডিও-র সাফল্যের পর রেড বুলের মতো কোম্পানি তাঁর সঙ্গে চুক্তি করেছে৷ এখন তিনি পুরোপুরি এই খেলা নিয়ে মেতে থাকতে পারবেন, আরও বেশি সফল হতে পারবেন৷ এডিনবরা সহ আরও কয়েকটি শহরে তিনি ‘ওয়ে ব্যাক হোম’ নামের একটি ভিডিও তৈরি করেন৷ এখন পর্যন্ত এটি দেখা হয়েছে ৩৪ মিলিয়ন বার৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক